ঢাকা ৭ শ্রাবণ ১৪৩১, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪

শেষ মুহূর্তের গোলে ফাইনালে ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডসের বিদায়

প্রকাশ: ১১ জুলাই ২০২৪, ০৩:১৬ এএম
আপডেট: ১১ জুলাই ২০২৪, ০৩:১৬ এএম
শেষ মুহূর্তের গোলে ফাইনালে ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডসের বিদায়
সংগৃহীত

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সবশেষ ৯ ম্যাচে মাত্র ১টি জয় ছিল ইংল্যান্ডের, হার ৪টি এবং ড্র ৪টি। ২০২৪ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ডাচ-ভীতি কাটিয়ে উঠল থ্রি লায়ন্সরা। টুর্নামেন্টের একবারের চ্যাম্পিয়নদের বিদায় ঘন্টা বাজিয়ে আরও একবার স্বপ্নের ফাইনালে ইংল্যান্ড।

আজ বুধবার (১০ জুলাই) রাতে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের মাঠ সিগনাল ইদুনা পার্কে সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ইংল্যান্ড । দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোর ফাইনালে তারা। প্রথমবার খেলেছিল ২০২০ সংস্করণে। ফিরতে হয়েছিল রানার্সআপ ট্রফি নিয়ে। এ যাত্রায় টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ (যৌথভাবে) ৩ বারের চ্যাম্পিয়ন স্পেনের মুখোমুখি হবে থ্রি লায়ন্সরা। দুই দলের ফাইনাল হবে আগামী ১৪ জুলাই রাতে।

সেমিফাইনালে ডাচদের শুরুটা ছিল স্বপ্নের মতো। মূলত ডেক্লান রিসের ভুলে রঙিন শুরু পায় নেদারল্যান্ডস। নিজেদের ডি-বক্স থেকে খানিকটা দূরে নিখুঁত পাস বাড়াতে পারেননি ইংলিশ মিডফিল্ডার। মুহূর্তেই ছো মেরে বল দখলে নেন জাভি সাইমনস। কয়েকটা পা এগিয়ে বুলেট গতির শটে কমলাজার্সিধারীদের উল্লাসে মাতান ডাচ মিডফিল্ডার।

ইউরোতে সাইমনসের প্রথম গোলের উচ্ছ্বাস বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। প্রতিপক্ষের ভুলে এগিয়ে যাওয়া নেদারল্যান্ডস লিড হারায় নিজেদের ভুলে। নিজেদের ডি-বক্সে হ্যারি কেনকে ফাউল করেন ডাচ ডিফেন্ডার ডেঞ্জেল ডামফ্রায়েস। লাইভ খেলায় বিষয়টি এড়িয়ে যায় রেফারির চোখ। কিন্তু ভিএআর মনিটরে ঠিকই ধরা পড়ে সেই ঘটনা, যা দেখে পেনাল্টির বাঁশি ফুঁকান রেফারি।

১৮ মিনিটে সেই শট নিতে এসে ভুল করেননি কেন। সমতায় ফেরান দলকে। প্রথমার্ধের বাকিটা সময় বল দখল এবং আক্রমণে ছিল তাদের দাপট। কিন্তু প্রতিপক্ষের গোলমুখে ভাগ্যের স্পর্শ পায়নি থ্রি লায়ন্সরা। তাতে সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধে বল দখল আর আক্রমণে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে আনে নেদারল্যান্ডস। তবে তাদের ছেড়ে কথা বলেনি গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা।

দুই দলের জমজমাট লড়াইয়ে ৮০ মিনিটে গোলও পেয়ে যায় ইংল্যান্ড। কিন্ত অফসাইডে বাঁশিতে বাতিল হয় বুকায়ো সাকার গোলটি। তাতে ম্যাচ এগিয়ে যাচ্ছিল অতিরিক্ত সময়ে। সেটা হতে দেননি ওলি ওয়াটকিসন। তার ৯০ মিনিটের স্ট্রাইক লিখে দেয় ইংল্যান্ডের জয়ের গল্প এবং নেদারল্যান্ডসের বিদায়।

ইংল্যান্ড দলে পরামর্শকের দায়িত্বে অ্যান্ডারসন

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩০ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩০ পিএম
ইংল্যান্ড দলে পরামর্শকের দায়িত্বে অ্যান্ডারসন
ছবি : সংগৃহীত

দিনকয়েক আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ইংল্যান্ডের পেসার হেমস অ্যান্ডারসন। অবসর নিলেও ইংল্যান্ড দলে নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন ইংল্যান্ড দলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে দলে পেসারদের পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন তিনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে তিনি এই দায়িত্বে থাকলেও এরপর তিনি আবারও দায়িত্বে থাকবেন কিনা তা নিশ্চিত নয়।

অ্যান্ডারসনের বিদায়ী টেস্টে অভিষেক হয়েছিল গুজ অ্যাটকিনসনের। দুই ইনিংস মিলিয়ে তার ঝুলিতে যায় ১২ উইকেট। অবসরে যাওয়ায় অ্যান্ডারসনের জায়গায় দলে এসেছেন মার্ক উড।

আজ থেকে নটিংহামে শুরু হয়েছে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে। তৃতীয় টেস্ট বার্মিংহামে অনুষ্ঠিত হবে ২৬ জুলাই।

বাদ পড়লেন সাকিব, জয়ে ফিরল লস অ্যাঞ্জেলস

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪৩ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪৪ পিএম
বাদ পড়লেন সাকিব, জয়ে ফিরল লস অ্যাঞ্জেলস
ছবি : সংগৃহীত

জাতীয় দলে চলমান ফর্ম খরা এখনও চলমান সাকিব আল হাসানের। মেজর লিগ ক্রিকেটে আজ তাকে একাদশেই রাখেনি লস অ্যাঞ্জেলস নাইট রাইডার্স। আর এমন দিনেই ৪ ম্যাচ পর জয়ের দেখা পেয়েছে দলটি।

সাকিবকে একাদশে না রাখার ম্যাচে সিয়াটল অরকাসের বিপক্ষে লস অ্যাঞ্জেলস নাইট রাইডার্স জয় পেয়েছে ৪ উইকেটে।

টস জিতে আগে ব্যাটিং করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান করে সিয়াটল অরকাস। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উন্মুক্ত চাঁদের ৪৭ বলে ৬২ রানের ইনিংসে তারা জয় পায় ৪ উইকেটে।

৬ ম্যাচে মাত্র ২ জয় পেয়ে প্লে অফের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে সাকিবের দল। ফর্ম খরায় সাকিব নিজের অবস্থান করে ফেলেছেন নড়বড়ে। তাই পরবর্তী ম্যাচগুলোতে একাদশে জায়গা নিশ্চিত নয় 

জাতীয় দলে ফিরছেন ডি মারিয়া!

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০১:৩০ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০১:৩০ পিএম
জাতীয় দলে ফিরছেন ডি মারিয়া!
ছবি : সংগৃহীত

কোপা আমেরিকার ফাইনালে পূর্ব ঘোষণ দিয়েই আনহেল ডি মারিয়া খেলে ফেলেছেন আকাশি-সাদা জার্সিতে নিজের শেষ ম্যাচ। কিন্তু ডি মারিয়ার ফেরার নতুন খবর নিয়ে হাজির হলেন তার স্ত্রী হোর্হেলিনা।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে ২০২৬ বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাইপর্বের ম্যাচে ঘরের মাঠ মনুমেন্তাল স্টেডিয়ামে চিলির বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। দেশটির সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানিয়েছে, ডি মারিয়া সেই ম্যাচে খেলবেন কি না, তা নিশ্চিত নয়। তবে তিনি স্টেডিয়ামে থাকবেন এবং আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ) ঘরের মাঠে তাঁকে সম্মান জানাবে।

ডি মারিয়ার স্ত্রী হোর্হেলিনা আর্জেন্টিনার রেডিও স্টেশন ‘রাদিও লা রেদ’কে এই ব্যাপারে বলেছেন, ‘শুনেছি তারা চায় বিদায়ী ম্যাচটা যেন সে যেন আর্জেন্টিনায় খেলে। চিলির বিপক্ষে ১১ মিনিট সে খেলবে কি না, আমি জানি না। তবে ভাবনাটা দারুণ। কারণ, সে এটার যোগ্য। তার ভক্তরাও তাকে ঘরের মাঠে চায়। আমিও চাই। তেমন কিছু ঘটলে সে আনন্দের সঙ্গেই আসবে।’

ডি মারিয়া ১১ নম্বর জার্সিতেই খেলেন আন্তর্জাতিক থেকে ক্লাব ফুটবল সব জায়গাতেই। সেই কারণেইন সম্ভবত এই ১১ সংখ্যাকে গুরুত্ব দিয়ে ১১ মিনিট খেলার কথা সামনে আনা হয়েছে।

টিওয়াইসি স্পোর্টস আরও জানিয়েছে, বাংলাদেশ সময় ৫ সেপ্টেম্বর চিলির বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচেই দি মারিয়াকে সম্মান জানানোর পরিকল্পনা করছে এএফএ। তবে সংবাদমাধ্যমটি এই ম্যাচে তাঁর খেলার ব্যাপারে জোর দিয়ে কিছু বলেনি।

কোচ লিওনেল স্কালোনিও তাকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন ঘরের মাঠে একটি ম্যাচ খেলে বিদায় নেওয়ার জন্য। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের সেই ম্যাচ খেলে ঘরের মাঠের সমর্থকদের সামনে বিদায় নেওয়ার কথা বিবেচনায় নিয়েই এমন প্রস্তাব দিয়েছেন কোচ স্কালোনি তাকে। যদিও কোপা আমেরিকার ফাইনাল জিতে বিদায় বলে দেওয়া ডি মারিয়া কোনটিকে সেরা বিদায় বিবেচনা করবেন সেটি এখনও জানা যায়নি।

দি মারিয়ার স্ত্রী হোর্হেলিনা আরও জানিয়েছেন, ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ জয়ের পরই আর্জেন্টিনা জাতীয় দল ছাড়তে চেয়েছিলেন তাঁর স্বামী, ‘আমরা বিশ্বকাপ জয়ের পর সে বলল, এটাই সময়। তার সতীর্থরা তাকে বলেছিল যে সময়টা এখনো হয়নি। এ জন্য সে কোপা পর্যন্ত থেকেছে, আর খুব ভালোভাবে সব শেষ হয়েছে। আমি চাই না সে কখনো অবসর নিক। কিন্তু সে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা ঠিক আছে।’

অধিনায়ক হয়ে রিয়ালে থাকছেন মদ্রিচ

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:৪৭ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:৪৭ পিএম
অধিনায়ক হয়ে রিয়ালে থাকছেন মদ্রিচ
ছবি : সংগৃহীত

রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ গেল জুনেই শেষ হয়ে গেছে লুকা মদ্রিচের। মেয়াদ ফুরিয়ে গেলেও অন্যকোনো ক্লাবে না যাওয়ার ঘোষণাও দিয়ে রেখেছিলেন তিনি। তাতেই স্পষ্ট হয়েছিল এই ক্লাবেই থাকতে চান তিনি। তার সেই আশাই পূরণ করেছে ক্লাবটি। নতুন করে এই কিংবদন্তি মিডফিল্ডারের সঙ্গে এক বছরের চুক্তি করেছে রিয়াল। এমনকি করা হয়েছে তাকে অধিনায়ক।

গেল মৌসুমে খুব একটা একাদশে সুযোগ পাননি তিনি। বেশিরভাগ সময় কাটাতে হয়েছে বেঞ্চে বসে। লা লিগার শিরোপা জয়ের পথে মদ্রিচ কেবল ১৮টি ম্যাচে শুরুর একাদশে ছিলেন।

ক্লাব যে এখনও তার ওপর আস্থা হারায়নি সেটি প্রমাণ হয়েছে এক বছরের চুক্তি নবায়নের ঘটনায়। বুধবার (১৮ জুলাই) ক্লাব কর্তৃক ওয়েবসাইটে বিবৃতি দিয়ে চুক্তি নবায়নের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বিবৃতিতে রিয়াল জানিয়েছে, ‘রিয়াল এবং লুকা মদ্রিচ চুক্তি নবায়নের বিষয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। আমাদের অধিনায়ক ২০২৫ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত থাকবেন। এর আগে মদ্রিচ ২০১২ সালে রিয়ালে যোগ দেন, এরপর ১২টি মৌসুম প্রতিনিধিত্ব করবেন আমাদের জার্সির। এর মধ্য তিনি রিয়াল মাদ্রিদ এবং বিশ্বফুটবলের কিংবদন্তি হয়ে উঠেছেন।

রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে যোগ দেওয়ার পর এখন পর্যন্ত মদ্রিচ জিতেছেন ৬টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ৪টি লা লিগা, ৫টি ক্লাব বিশ্বকাপসহ মোট ২৬টি ট্রফি। জিতেছেন ২০১৮ সালে ব্যালন ডি’অরও। দ্য বেস্ট ফিফা মেন’স প্লেয়ার অ্যাওয়ার্ড এবং ২০১৭-১৮ মৌসুমে উয়েফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাবও পান। রিয়ালের জার্সিতে ৫৩৪ ম্যাচে খেলেছেন, রিয়ালের জার্সিতে তার ৩৯টি গোলও আছে। 

দুই রিয়াল তারকাকে বর্ণবাদী আক্রমণকারীর ৮ মাসের কারাদণ্ড

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:১৩ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ১২:১৩ পিএম
দুই রিয়াল তারকাকে বর্ণবাদী আক্রমণকারীর ৮ মাসের কারাদণ্ড
ছবি : সংগৃহীত

খেলার সময় মাঠে বেশ কয়েকবার বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের দুই ফুটবলার ভিনিসিয়ুস জুনিয়র ও অ্যান্টেনিও রুডিগার। এবার এই দুই খেলোয়াড়কে বর্ণবাদী আক্রমণের দায়ে এক ব্যক্তিকে দোষী সাব্যস্ত করে আট মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে স্পেনের আদালত।

রিয়াল মাদ্রিদ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, স্পেনের ক্রীড়া পত্রিকা মার্কা’র ডিজিটাল সংস্করণের ফোরামে বিভিন্ন ছদ্মনামে ভিনিসিয়ুস ও রুডিগারকে বর্ণবাদী আক্রমণ করেন এক ব্যক্তি। পাশাপাশি রুডিগারের ধর্ম নিয়েও কটূক্তি করেন ওই ব্যক্তি।

আটমাসের কারাদণ্ডের পাশাপাশি অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে মার্কার ফোরামে অংশগ্রহণ না করার আদেশ দিয়েছে আদালত ২০ মাসের জন্য জন্য। 

তাদের এই শাস্তি স্থগিত হওয়ার সুযোগ রয়েছে বৈষম্যহীন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের শর্তে। তাছাড়া সহিংস অপরাধ না করলে স্পেনে দুই বছরেরকম সাজায় সচরাচর কারাবাস করতে হয় না।