ঢাকা ১১ বৈশাখ ১৪৩১, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪
Khaborer Kagoj

আমার বিরুদ্ধে মামলাগুলোর কোনো ভিত্তি নেই : ড. ইউনূস

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:০৭ পিএম
আমার বিরুদ্ধে মামলাগুলোর কোনো ভিত্তি নেই : ড. ইউনূস
ছবি : সংগৃহীত

নোবেল জয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, আমার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলোর কোনো ভিত্তি নেই। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনের সাংবাদিক ক্রিস্টিয়ান আমানপোরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সাক্ষাৎকারটি প্রচারিত হয়।

শ্রমিকদের জন্য কল্যাণ ফান্ড গঠন না করতে পারাসহ এ ধরনের আরও অনেক অভিযোগ তার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে উল্লেখ করে আমানপোর জানতে চান, এসব অভিযোগ আনার কারণ কী। জবাবে ড. ইউনূস বলেন, এ নিয়ে দেশের ও দেশের বাইরের যেসব আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করেছি, তারা সবাই সম্মত হয়েছে যে, এসব মামলার কোনো ভিত্তি নেই। তারা এ ধরনের কোনো মামলা এর আগে দেখেননি ও পরিচালনা করেননি। এটা এক ধরনের হয়রানি।

বারাক ওবামার মতো ডজন ডজন নোবেলজয়ী আপনার বিরুদ্ধে বিচারিক হয়রানি বন্ধ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে চিঠি লিখেছেন। এসব মামলার পরিণতি কি হতে পারে? আপনি কি জেলে যেতে পারেন?

আমানপোরের এমন প্রশ্নের জবাবে ড. ইউনূস বলেন, ‘আমাকে ইতোমধ্যেই দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। জামিনের মেয়াদ শেষ হলে আমাকে ফের জামিন দিতে পারে, নয়তো আমিসহ অন্য যাদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে তারা সবাই জেলে যেতে পারি। দুর্নীতি দমন কমিশনের করা আরেকটি নতুন মামলা হচ্ছে। আমাদের দুর্নীতি, মানি লন্ডারিংসহ নানা অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে। ওই মামলায় সাজার মেয়াদ আরও দীর্ঘ। আমরা জানি না এসব কখন শেষ হবে।’

শেখ হাসিনা কি তাকে রাজনীতির জন্য চ্যালেঞ্জ হিসেবে ভাবছেন কি না, এই প্রশ্নের জবাবে ড. ইউনূস ‘আমি জানি না’। রাজনীতির সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। ওয়ান ইলেভেনে তাকে সরকারপ্রধান হওয়ার প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমি বারবার বলেছি, রাজনীতি করার কোনো ইচ্ছা আমার নেই।’

ক্রিস্টিয়ান আমানপোর ড. মুহাম্মদ ইউনূসের কাছে জানতে চান, গত কয়েক দিন ধরে আমরা দেখলাম এবং জানলাম যে আপনার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান দখল করে নেওয়া হচ্ছে। আপনি বলবেন যে, আসলে কী হচ্ছে? কী হচ্ছে বিজনেসের ক্ষেত্রে। কারণ আপনি বলেছেন সেগুলো জোর করে দখলে নিয়েছে।

জবাবে ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, হ্যাঁ। ভয়াবহ সব ঘটনা ঘটছে। ৩৫ জনের একটি দল আমাদের ভবনে জোর করে ঢুকে পড়ে। আমরা যে সামাজিক ব্যবসাগুলো তৈরি করেছিলাম, যার অনেকটি দেশের অন্যতম নেতৃস্থানীয় ব্যবসা, সেই ভবন থেকে পরিচালিত হয়। কী হচ্ছে সেখানে, এটা নিয়ে সবাই ভয় পাচ্ছিলেন, উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন। তারা তখন জানায় যে, তারা গ্রামীণ ব্যাংক থেকে এসেছেন। তারা কিছু কোম্পানির নিয়ন্ত্রণ নিচ্ছেন। তাদের দাবি এগুলো গ্রামীণ ব্যাংকের মাধ্যমে তৈরি হয়েছে এবং এ জন্য তারা এখন সেগুলো নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছেন এবং তারা এসব কোম্পানির ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব নিচ্ছেন।

আমানপোর জানতে চান, সরকার গ্রামীণ ব্যাংকে চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়েছে। সেখানে কিছুই জোর করে বা বেআইনিভাবে করা হচ্ছে না, বলা হচ্ছে। তাহলে কেন এটা ঘটছে? আপনাকে কি ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে? আপনাকে কি বলা হয়েছে যে, এটা কেন হচ্ছে?

ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, আপনার যদি কোনো দাবি থাকে, কোনো আইনি ইস্যু থাকে, তাহলে সেগুলো নিষ্পত্তি করার জন্য আদালতে যেতে পারেন। কিন্তু সেগুলোর জন্য আপনি হঠাৎ জোর করে কোনো ভবনে ঢুকে যেতে পারেন না এবং বলতে পারেন না যে এগুলো আমরা নিয়ে নিচ্ছি।

ক্রিস্টিয়ান আমানপোর প্রশ্ন করেন, তারাই কি এখন সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করছে? নাকি আপনি আপনার প্রপার্টি ফিরে পেয়েছেন? কী অবস্থা এখন সেগুলোর?

জবাবে ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, ‘আমরা সেগুলো ফিরে পেয়েছি। আমরা গত ১৫ ফেব্রুয়ারি একটি সংবাদ সম্মেলন করেছি। সেখানে আমরা আমাদের ভবনে দেশের সব গণ্যমাধ্যমকর্মীকে আসার অনুরোধ করি এবং কী ঘটছে সেগুলো বিস্তারিতভাবে জানাই। তারপর থেকে আমরা আমাদের ভবনের নিয়ন্ত্রণে আছি এবং তারা আর আসেনি।’

সম্প্রতি রাশিয়ার কারাগারে দেশটির বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃত্যুর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে আমানপোর ড. ইউনূসের কাছে জানতে চান আপনি কি বিদেশে থাকার প্রস্তাব পেয়েছেন?

উত্তরে ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি অনেক বিদেশি বন্ধুর কাছ থেকে এই দেশ ছেড়ে তাদের দেশে চলে যাওয়ার আমন্ত্রণ পেয়েছি। তারা আমাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা এবং আমার কাজ যাতে সারা বিশ্বে চলতে পারে তার সব ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। আমি যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফিরে এগুলো শুরু করেছিলাম। যুক্তরাষ্ট্রের মিডল টেনেসি স্টেট ইউনিভার্সিটিতে আমি শিক্ষকতা করতাম। তারপর আমি বাংলাদেশে ফিরে আসি। দেশে ফিরে আমি যা করেছি, তা সবই সাধারণ মানুষের জন্য। আমি দুর্ভিক্ষ দেখেছি, মানুষের বিভিন্ন সমস্যা দেখেছি। যে কারণে আমি চিন্তা করেছি গরিব মানুষ যেন উপকৃত হয়। এটাই আমার আকাঙ্ক্ষা, এটাই আমার জীবন। যার ফলে ক্ষুদ্র ঋণ এসেছে এবং বিশ্বে জনপ্রিয় হয়েছে।’

 

পদে থেকেই উপজেলা নির্বাচন করতে পারবেন ইউপি চেয়ারম্যানরা

প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৩ এএম
পদে থেকেই উপজেলা নির্বাচন করতে পারবেন
ইউপি চেয়ারম্যানরা

ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানরা পদত্যাগ না করেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন বলে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) কুষ্টিয়া ও সিলেটের দুই ইউপি চেয়ারম্যানের করা রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

রিটের পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করেন সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক। এ আদেশের ফলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে ইউপি চেয়ারম্যানদের পদত্যাগ করতে হবে না। তবে, তাদের আদালতের আদেশ নিতে হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

আদেশের পর ড. শাহদীন মালিক সাংবাদিকদের জানান, কুষ্টিয়া ও সিলেটের দুজন ইউপি চেয়ারম্যান পদত্যাগ না করেই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পদত্যাগ না করায় স্ব স্ব রিটার্নিং কর্মকর্তা তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। পরে নির্বাচন কমিশনের আপিল কর্তৃপক্ষও বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন। এরপর মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে দুই ইউপি চেয়ারম্যান হাইকোর্টে রিট করেন। তাদের দুজনের ক্ষেত্রেই এ আদেশ কার্যকর হবে। ‍সুতরাং অন্যান্য উপজেলায় কেউ পদে থেকে নির্বাচন করতে চাইলে তাদের আদালতের আদেশ নিতে হবে।

এমএ/

গৃহস্থালি কাজে নারীদের অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণের সুপারিশ সংসদীয় স্থায়ী কমিটির

প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৫ এএম
গৃহস্থালি কাজে নারীদের অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণের সুপারিশ সংসদীয় স্থায়ী কমিটির
ছবি : সংগৃহীত

গৃহস্থালি কাজের ক্ষেত্রে নারীদের জন্য অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি। 

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দ্বাদশ জাতীয় সংসদের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির দ্বিতীয় বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়।  

এছাড়াও সভায় ইউনিয়ন পর্যায়ে কিশোর-কিশোরী ক্লাব স্থাপন প্রকল্পের আওতায় ক্যারাতে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমটি বেগবান করা, শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ডিপিপি আরও বাস্তবসম্মত করা এবং পারিবারিক সহিংসতা প্রতিরোধ, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ এবং যৌন হয়রানি বন্ধের আইন সম্বলিত প্রচারণা বৃদ্ধির সুপারিশ করা হয়।  

আলোচনায় কমিটির পক্ষ থেকে ৭১ টিভিতে প্রচারিত ‘কিশোর-কিশোরী’ ক্লাব সম্পর্কিত নেতিবাচক রিপোর্টটি তদন্তে ভুল প্রমাণিত হওয়ায় চ্যানেলটির সিইওকে চিঠি দিতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে। এছাড়া একাদশ জাতীয় সংসদের ৪১তম বৈঠকের গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহসহ গত বৈঠকের কার্যবিবরণী নিশ্চিতকরণ ও বাস্তবায়ন অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। 

সভাপতি সাগুফতা ইয়াসমিন এর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত এই সভায় কমিটির সদস্য ও মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী সিমিন হোসেন (রিমি), মো. আব্দুল আজিজ, শাহিদা তারেখ দীপ্তি, পারুল আক্তার, তাহমিনা বেগম, মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান, রেজিয়া ইসলাম এবং সাবেরা বেগম বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, মহিলা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এলিস/এমএ/

স্বর্ণের দাম কমে ভরি ১ লাখ ১৬ হাজার

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩০ পিএম
স্বর্ণের দাম কমে ভরি ১ লাখ ১৬ হাজার
ছবি : সংগৃহীত

দুই চার দিন পর পর দেশের বাজারে স্বর্ণের দামের উত্থান-পতন লেগেই আছে। দুই দিনের ব্যবধানে মঙ্গলবার ২২ ক্যারেট স্বর্ণের দাম ভরিতে ৩ হাজার ১৩৮ টাকা কমানো হয়েছে। তারপরও ভালো মানের এক ভরি স্বর্ণ কিনতে লাগবে ১ লাখ ১৬ হাজার ২৯০ টাকা।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সোনার দাম কমানোর বিষয়টি জানিয়েছে।  

বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন প্রাইসিং অ্যান্ড প্রাইস মনিটরিং কমিটি বৈঠক করে দাম কমানোর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কমিটির চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তাতে বলা হয়, স্থানীয় বাজারে খাঁটি স্বর্ণের মূল্য কমেছে। তাই স্বর্ণের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। নতুন দাম গতকাল বেলা ৪টা থেকেই কার্যকর হবে। ২১ ক্যারেটে ৩ হাজার ৯ টাকা, ১৮ ক্যারেটে ২ হাজার ৫৬৬ টাকা এবং সনাতনী স্বর্ণে কমানো হয়েছে ২ হাজার ৭৬ টাকা। এভাবে স্বর্ণের দাম কমলেও রুপার দাম অপরিবর্তিত থাকবে।  

১৮ এপ্রিল দাম বাড়ানোর পর গত ২১ এপ্রিল ভালো মানের এক ভরি স্বর্ণের দাম কমিয়ে ১ লাখ ১৯ হাজার ৪২৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এই দাম নির্ধারণের দুদিনের মাথায় মঙ্গলবার আবার স্বর্ণের দাম কমানো হয়েছে। নতুন দাম অনুযায়ী, হলমার্ক করা ২২ ক্যারেট স্বর্ণের ভরির দাম ধরা হয়েছে ১ লাখ ১৬ হাজার ২৯০ টাকা। একইভাবে ২১ ক্যারেট সোনার ভরি ১ লাখ ১০ হাজার ৯৯৫ টাকা, ১৮ ক্যারেট ৯৫ হাজার ১৪৩ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের দাম ধরা হয়েছে ৭৬ হাজার ৫৮৬ টাকা। তবে রুপার দাম আগের মতোই ২ হাজার ১০০ টাকা ভরি রাখা হয়েছে।

এমএ/

সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার পূর্বাভাস ও সার্বিক সহযোগিতায় স্বচ্ছতার তাগিদ

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২০ পিএম
প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার পূর্বাভাস ও সার্বিক সহযোগিতায় স্বচ্ছতার তাগিদ
ছবি : সংগৃহীত

প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার পূর্বাভাস এবং সার্বিক সহযোগিতায় স্বচ্ছতা আনয়নের লক্ষ্যে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর এবং আবহাওয়া অধিদপ্তরকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে অন্তুর্ভুক্ত করতে জরুরি ভিত্তিতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে স্থায়ী কমিটি। একই সঙ্গে দেশব্যাপী চলমান প্রচণ্ড তাপদাহ নিয়ন্ত্রণে রাস্তায় পানি ছিটানো এবং উপজেলা পর্যায়ে জনগণের মধ্যে স্যালাইন ও বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়।  

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দ্বাদশ জাতীয় সংসদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির দ্বিতীয় বৈঠকে এসব সুপরিশ করা হয়। সংসদ ভবনে আয়োজিত সভাপতি আ স ম ফিরোজের সভাপতিত্বে এই সভায় কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

সভায় ইউনি ব্লক প্রকল্পের আওতায় গ্রামীণ রাস্তা নির্মাণ, আট মাত্রার ভূমিকম্প সহনীয় অবকাঠামো নির্মাণে বিল্ডিং কোড ব্যবহার, টিআর কাবিখার মাধ্যমে গ্রামের মজা পুকুর খনন ও পরিষ্কার পরিচ্ছনতার মাধ্যমে মাছ চাষ বৃদ্ধি এবং বিশুদ্ধ পানি সরবাহের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য কমিটির পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হয়। 

এছাড়াও বিগত সভার সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা, গ্রামীণ মাটির রাস্তাসমূহ টেকসইকরণের লক্ষ্যে ‘হেরিং বোন বন্ড প্রকল্প’ সম্পর্কে আলোচনা এবং অগ্নিকান্ডের ঘটনা, বন্যা ঝুঁকি, বজ্রপাত ইত্যাদি মোকাবেলার বিষয়ে করণীয় সম্পর্কে  বিশদ আলোচনা করা হয়।  
 
এলিস/এমএ/

পি কে হালদারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৯ পিএম
পি কে হালদারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট
ছবি : সংগৃহীত

১০৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্সের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদারসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দুদক সূত্র জানিয়েছে, গত ১৮ এপ্রিল কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে এ চার্জশিট অনুমোদন দেওয়া হয়। দাপ্তরিক প্রক্রিয়া শেষে চলতি সপ্তাহে এই চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হবে।

২০২১ সালের ৫ জানুয়ারি ৩৫১ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগ এনে পি কে হালদার, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ হাশেম, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. রাশেদুল হক, ৯ জন বোর্ড মেম্বার, পিপলস লিজিংয়ের চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দী, পি কে হালদারের আত্মীয়স্বজনসহ মোট ৩৩ জনের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা দায়ের করে দুদক। এর মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে বেনামী প্রতিষ্ঠান ‘আনান কেমিক্যালের’ নামে ঋণ দেখিয়ে ২০২২ সালে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত সুদসহ ১০৩ কোটি ১৬ লাখ ৭০ হাজার ৭১৯ টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে ২৩ জনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়। সেই দুই মামলার তদন্ত শেষে চার্জশিট অনুমোদন করেছে কমিশন। বাকি মামলাগুলোর তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।