ঢাকা ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Khaborer Kagoj

মানিকগঞ্জে ‘হারল্যান স্টোর’ উদ্বোধনে পরীমনি

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:৪৬ পিএম
মানিকগঞ্জে ‘হারল্যান স্টোর’ উদ্বোধনে পরীমনি
ছবি : বিজ্ঞপ্তি

মানিকগঞ্জে চালু হলো দেশের একমাত্র অথেনটিক রিটেইল কসমেটিক শপ ‘হারল্যান স্টোর’। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় জেলা সদরের খালপাড় ল’কলেজ মার্কেটে এ স্টোর উদ্বোধন করেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমনি।

এ সময় তিনি বলেন, ‘এই শোরুম মানসম্মত অথেনটিক প্রসাধনী পণ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করবে। হারল্যান স্টোর আন্তর্জাতিক মানের খ্যাতনামা অথেনটিক সব কসমেটিকস ও প্রসাধনী পণ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করছে। কসমেটিকস ব্যবহারকারীদের কাছে অথেনটিক প্রোডাক্ট প্রাপ্তির জন্য এ স্টোর এখন নির্ভরতার প্রতীক। শুধু তাই নয়, ভেজাল থেকে রক্ষা করে আপনার ত্বক বাঁচাতে হারল্যান স্টোর আজ আপনার শহরে এসেছে। তা ছাড়া প্রিমিয়াম কোয়ালিটির প্রোডাক্ট নিশ্চিত হওয়ায় হাতের নাগালে মিলবে হারল্যান, নিওর, সিওডিল এবং ব্লেইজ ও স্কিনের প্রোডাক্টগুলো।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিইও এমদাদুল হক সরকার, রিমার্কের হেড অব সেলস মাজেদুর রহমান রতন, হারল্যান স্টোরের হেড অব অপারেশনস আব্দুল আলিম শিমুলসহ কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

হারল্যান সংশ্লিষ্টরা জানান, মানসম্মত অথেনটিক কসমেটিকস পণ্য দেশের সবার কাছে পৌঁছে দিতেই নতুন করে এসব ‘হারল্যান স্টোর’ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দেশজুড়ে প্রতিটি জেলা ও উপজেলাভিত্তিক এসব স্টোর সৌন্দর্যপ্রিয় ত্বক সচেতন মানুষের চাহিদা পূরণ করবে। এ ছাড়া উদ্বোধন উপলক্ষে এসব স্টোরে মাসব্যাপী চলবে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত বিশেষ ছাড়। এসব স্টোরে রয়েছে ফ্রি স্কিন এনালাইজার মেশিন ব্যবহারের সুযোগ। যার মাধ্যমে ভোক্তারা তাদের ত্বকের জন্য কোন ধরনের কসমেটিকস প্রয়োজন সহজেই তা জানতে পারবেন।

ভোক্তাদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে হারল্যান তাদের প্রোডাক্ট লাইনআপ করেছে আধুনিক ও ট্রেন্ডি। প্রিমিয়াম প্যাকেজিং আর কোয়ালিটি প্রোডাক্ট নিয়ে এই ব্র্যান্ড তার লাইনআপে রেখেছে প্রাইমার, ফাউন্ডেশন, কনসিলার, লিপস্টিক, জেল আইলাইনার, মাসকারা ও নেইল পলিশের মতো সাজসজ্জার নানা রকম অনুষঙ্গ। যার সবকটি পাওয়া যাবে হারল্যান-নিউইয়র্ক স্টোরে। 

হারল্যান ছাড়াও বিশ্বখ্যাত জনপ্রিয় ব্র্যান্ড নিওর, সিওডিল, ব্লেইজ-ও-স্কিন এবং ‘লিলি’র অরিজিনাল কসমেটিকস পণ্য পাওয়া যাবে এসব স্টোরে। ‘ব্লেইজ ও স্কিন’র শাওয়ার জেল, বডি জেলি, স্ক্রাব, লোশন ইত্যাদি। রয়েছে ‘লিলি’ ব্র্যান্ডের হানি, লেমন, কিউ কাম্বার ও অ্যালোভেরা ফ্লেভারের ফেসওয়াশ। সিওডিল ব্র্যান্ডের স্কিন কেয়ার পণ্য। সিওডিলের পণ্যে নিয়াসিনামাইড, ভিটামিন সি, ই, বি৩, স্যালিসাইলিক এসিড ইত্যাদি ব্যবহার করা হয় যা ত্বক সমস্যা সমাধানে অনেক কার্যকর। 

শুধু তাই নয় এই স্টোরে চশমা, লেন্স বা আইল্যাসের মতো কসমেটিকস সংশ্লিষ্ট ফ্যাশনপণ্য যুক্ত করা হবে।

বিজ্ঞপ্তি/সালমান/

এমআইইউতে বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ৬ সদস্যকে সংবর্ধনা

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:৩৩ পিএম
এমআইইউতে বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ৬ সদস্যকে সংবর্ধনা
ছবি : বিজ্ঞপ্তি

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (এমআইইউ) বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ছয় সদস্যকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গুলশান ক্যাম্পাসের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ৮২তম সভায় এ সংবর্ধনা দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আরাফাত, সাবেক সিনিয়র সচিব সাজ্জাদুল হাসান এমপি, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিটিউশন বাংলাদেশের (আইইবি) সাবেক প্রেসিডেন্ট ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর এমপি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও সিটি ব্যাংকের ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডিরেক্টর ড. সেলিম মাহমুদ এমপি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিরেটাস অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হককে।

সভায় বোর্ড অব ট্রাস্টিজের অন্য সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান ও রেজিস্ট্রার ড. মো. মোয়াজ্জাম হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে ওই ছয় সদস্যকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ও ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। এ সময় শুভেচ্ছা স্বরূপ তাদের ফুলের চারা দেওয়া হয়। 

সভায় মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয়টিকে দেশসেরা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

বিজ্ঞপ্তি/সালমান/

ওয়ালটনের পৃষ্ঠপোষকতায় বুয়েটে ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাব উদ্বোধন

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:৫৮ পিএম
ওয়ালটনের পৃষ্ঠপোষকতায় বুয়েটে ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাব উদ্বোধন
বুয়েটকে ওয়ালটনের তৈরি পরিবেশবান্ধব ই-বাইক ‘তাকিওন লিও’ উপহার দিয়েছেন ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাব উদ্বোধন করেছে ওয়ালটন। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটিকে গবেষণার জন্য ওয়ালটনের তৈরি তাকিওন ১.০০ মডেলের ইলেকট্রিক বাইক উপহার দেওয়া হয়েছে। 

গবেষণা ও উদ্ভাবনে একসঙ্গে কাজ করার প্রত্যয়ে ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া কোলাবরেশনের অংশ হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে ওই ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাব। ল্যাবটির পৃষ্ঠপোষকতা ও সার্বিক ব্যবস্থাপনায় রয়েছে ওয়ালটন গ্রুপের অন্যতম অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি ) বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং (ইসিই) ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাবের উদ্বোধন করেন বুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার এবং ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটন ডিজি-টেকের বিভিন্ন প্রোডাক্ট লাইন নিয়ে বিস্তারিত প্রেজেন্টেশন দেন সিবিও মো. তৌহিদুর রহমান রাদ। 

ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার বলেন,  ‘আমাদের শিক্ষার্থীরা উদ্ভাবনী মেধায় সমৃদ্ধ। কিন্তু গবেষণার পর্যাপ্ত সুযোগ না থাকায় তারা দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে। এখন ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া কোলাবরেশনের মাধ্যমে তারা ওয়ালটনে গবেষণা ও উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করতে পারছেন। সেজন্য ওয়ালটনকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমাদের সবার অবদানে দেশীয় শিল্প খাত সমৃদ্ধ হবে। দেশের পণ্য বিশ্বজয় করবে। আমাদের প্রকৌশলীরা ওয়ালটনের মতো দেশীয় প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পেরে গর্ববোধ করছে। এই রিসার্চ ল্যাব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ওয়ালটন এবং বুয়েটের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপকৃত।’ 

ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম বলেন, ‘আমাদের প্রকৌশলীরা মেধাবী। তাদের মেধা কাজে লাগাতে হবে। আমাদের যে সামর্থ্য আছে, সেটার সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারলে আমাদের শিল্প খাত অনেক  এগিয়ে যাবে। দেশ এগিয়ে যাবে। আমরা সমৃদ্ধশালী হব।’ 

তিনি বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য ওয়ালটনকে অন্যতম সেরা গ্লোবাল ব্র্যান্ডে পরিণত করার মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করা। দেশের মেধাবী প্রকৌশলীরা যখন দেশেই গবেষণা ও উদ্ভাবনের পর্যাপ্ত সুযোগ পাবেন, তখন সেই লক্ষ্য অর্জন সহজ হবে। সেজন্য ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া কোলাবরেশনের মাধ্যমে এই ল্যাব তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আমাদের প্রত্যাশা, এই রিসার্চ ল্যাব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে স্বনামধন্য এই বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এবং ওয়ালটন উভয় পক্ষই উপকৃত হবেন।’

রিসার্চ ল্যাব উদ্বোধনের পাশাপাশি বুয়েটকে নিজস্ব কারখানায় তৈরি পরিবেশবান্ধব ই-বাইক- ‘তাকিওন ১.০০’ উপহার দিয়েছে ওয়ালটন। বুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলরের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে ই-বাইকের চাবি হস্তান্তর করেন ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এএমডি) লিয়াকত আলী, ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির এএমডি মেজর জেনারেল (অব.) ইবনে ফজল শায়েখুজ্জামান, বুয়েটের রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন সেন্টার ফর সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (রাইজ)-এর পরিচালক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান তালুকদার, ফ্যাকাল্টি অব পোস্ট গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজের ডিন প্রফেসর ড. আবু রায়হান মো. আলী, ফ্যাকাল্টি অব সায়েন্সের ডিন প্রফেসর ড. জীবন পোদ্দার, ফ্যাকাল্টি অব মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন প্রফেসর ড. মো. এহসান, ফ্যাকাল্টি অব ইইই’র ডিন প্রফেসর ড. মো. শফিকুল ইসলাম, ফ্যাকাল্টি অব আর্কিটেকচার এন্ড প্লানিংয়ের ডিন প্রফেসর ড. ইশরাত ইসলাম এবং ফ্যাকাল্টি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন প্রফেসর ড. মো. শফিউল বারি, ওয়ালটন কম্পিউটারের চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) মো. তৌহিদুর রহমান রাদ এবং ওয়ালটন ডিজিটেকের ডেপুটি হেড অব মার্কেটিং তানজিমুল হক তন্ময় প্রমুখ।

বিজ্ঞপ্তি/ইসরাত চৈতি/ 

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৫৩ এএম
ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত
ছবি: বিজ্ঞপ্তি

অ্যাকাডেমিক উৎকর্ষ এবং ফলপ্রসূ গবেষণায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষকদের ‘‍কোয়ালিটি  জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড ২০২৪’ দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির নতুন ক্যাম্পাসে এ পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।
 
এ সময় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ, ট্রেজারার প্রফেসর মাহবুব রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড উদ্ভাবনের সংস্কৃতি, গবেষণা এবং সামাজিক দায়িত্বশীলতা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অঙ্গীকারের একটি নিদর্শন। অ্যাকাডেমিক উৎকর্ষ এবং সামাজিক প্রভাব অর্জনের ক্ষেত্রে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি গবেষণাকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে থাকে। 

এরই স্বীকৃতিস্বরূপ ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ফলপ্রসূ গবেষণাগুলোকে সম্মাননা জানাতে এই পুরস্কার প্রদান করেছে। এই বছর স্কোপাস জার্নালের প্রথম প্রান্তিকের শীর্ষ ১০ শতাংশে থাকা ৭৮টি গবেষণার জন্য ৪৩ জন গবেষককে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।

ইয়াফেস ওসমান ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির গবেষণা অগ্রযাত্রায় অবদান রাখা সবার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, ‘গবেষকদের ধারাবাহিকভাবে উদ্ভাবনের সাধনায় নিয়োজিত থাকতে হবে। সেখানে বিরতি দেওয়ার অর্থ হলো যা অর্জিত হয়েছে তা হারিয়ে ফেলা। অজানাকে জানার কোনো সীমা থাকতে পারে না।’ 

তিনি শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সবাইকে সর্বদা জ্ঞানের অন্বেষণ করতে আহ্বান জানান। সেই সঙ্গে তিনি জ্ঞান আহরণে সব সময় সবার চেয়ে এগিয়ে থাকারও পরামর্শ দেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির গবেষকদের জন্য প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সহায়তা করবে বলেও আশ্বাস দেন স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ বলেন, ‘গবেষণা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির প্রাণ। গবেষণা এবং সামাজিক সমস্যাগুলোর সৃজনশীল সমাধানে আমরা আমাদের এই শিক্ষক এবং গবেষকরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং তারা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন, এ জন্য আমরা অত্যন্ত গর্ববোধ করি। ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে আমরা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিকে এই রিজিওনের শীর্ষ এবং গ্লোবাল সাউথের স্বনামধন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’

অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন রিসার্চ মেট্রিক্স কমিটির চেয়ার এবং ডিপার্টমেন্ট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের প্রফেসর ড. একেএম আবদুল মালেক আজাদ। 

বিজ্ঞপ্তি/সাদিয়া নাহার/

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৪৫ এএম
মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত
মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মঙ্গলবার মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (এমআইইউ) সুফি স্প্রিচুয়াল ফাউন্ডেশেনের সহযোগিতায় ‘মেন্টাল ওয়েল-বিইং অ্যান্ড পাবলিক হেলথ কোয়েস্ট ফর এ হোলিস্টিক অ্যাপ্রোচ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া ক্যাম্পাসের সেমিনার কক্ষে আইন বিভাগের উদ্যোগে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্সিয়ান ল্যাঙ্গুয়েজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ওসমান গনি, এমআইইউর কলা ও মানবিক অনুষদের ডিন ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রধান ড. মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ এবং এমআইইউর সেন্টার ফর জেনারেল অ্যাডুকেশনের পরিচালক ড. মোহাম্মাদ আবুল কালাম আজাদ। 

আইন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে ‘মেন্টাল ওয়েল-বিইং অ্যান্ড পাবলিক হেলথ কোয়েস্ট ফর এ হোলিস্টিক অ্যাপ্রোচ’-এর ওপর আলোচনা করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের চাইল্ড অ্যাডোলেসেন্ট অ্যান্ড ফ্যামিলি সাইকিয়াট্রি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ। 

আইন বিভাগের শিক্ষক শাহরিয়ার বিন ওয়ারেছের সঞ্চালনায় সেমিনারের গেস্ট অব অনার ছিলেন সুফি স্প্রিচুয়াল ফাউন্ডেশেনের চেয়ারম্যান খাজা ওসমান ফারুকী।

মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান বলেন, ‘জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে মানসিক স্বাস্থ্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মানসিক স্বাস্থ্য, মানসিক চাপ, প্রতিকার ও প্রতিরোধে নিয়ম মেনে খাওয়া, ঘুম থেকে জাগা বা বিছানায় যেতে হবে। মানসিকভাবে ভালো থাকতে নিয়মিত ব্যায়াম করার পাশাপাশি নিজেকে ও পরিবেশকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখতে মানুষকে মূল্যায়ন করার আহ্বান জানাচ্ছি।’
 
সেমিনারে প্রধান আলোচক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ শিক্ষার্থীদের মানসিক রোগ নিরাময়ে, মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে দৈনন্দিন জীবনে একজন মানুষ হিসেবে, একজন শিক্ষার্থী হিসেবে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া উচিত এ বিষয়ে আলোচনা করেন।

বিজ্ঞপ্তি/পপি/

ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. সাদী-উজ-জামান

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:১৬ পিএম
ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. সাদী-উজ-জামান

আবাসন খাতে অসামান্য অবদানের জন্য টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি অব বাংলাদেশ (ট্রাব) ও স্মার্ট বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ‘ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড-২০২৪’ পেয়েছেন নতুনধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও এফবিসিসিআই স্টান্ডিং কমিটি অন ল্যান্ড ডেভেলপার্সের কো-চেয়ারম্যান ড. মো. সাদী-উজ-জামান।

এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন তিনি।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ক্রিস্টাল বলরুমে আয়োজিত এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন প্রধান অতিথি ভূমিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

উদ্বোধক ছিলেন সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শাজাহান খান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নতুনধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. সাদী-উজ-জামান, সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখত, সংসদ সদস্য মহিউদ্দীন মহারাজ, সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক প্রমুখ।

বিজ্ঞপ্তি/অমিয়/