ঢাকা ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Khaborer Kagoj

আনোয়ার ডিউরারুফ-বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:৪৬ পিএম
আনোয়ার ডিউরারুফ-বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

অত্যাধুনিক ও সাশ্রয়ী ইন্ডাস্ট্রিয়াল রুফিং সল্যুশন প্রদানকারী আনোয়ার ডিউরারুফ সম্প্রতি বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ইলেকট্রিক গাড়ি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছে। 

ছয়-স্তর বিশিষ্ট আনোয়ার ডিউরারুফ বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের উপযুক্ত কর্মপরিবেশের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। এটি ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা হ্রাস করে, যা যানবাহন উৎপাদনে সঠিক তাপমাত্রা বজায় রাখার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

আনোয়ার গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওয়াইজ আর হোসেন এবং বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এ মান্নান খান আনুষ্ঠানিকভাবে এই চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি অনুয়ায়ী বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে পরিবেশবান্ধব এবং উপযুক্ত কর্মপরিবেশ তৈরিতে ব্যবহৃত হবে আনোয়ার ডিউরারুফ।

এই অনুষ্ঠানে উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- আনোয়ার গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের বিল্ডিং মেটেরিয়ালস ডিভিশনের সিইও গাজী মাহফুজুর রহমান, কনসালটেন্ট মোসাদ্দিক হোসেন, হেড অব বিজনেস- ডিউরারুফ সঞ্জয় কুমার বালা, ম্যানেজার মুরাদ-উল মুমিনিন এবং বাংলাদেশ অটো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার হাসিবুল হাসান ও প্রোজেক্ট ম্যানেজার মো. আব্দুস সামাদ।

বিজ্ঞপ্তি/পপি/অমিয়/

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৫৩ এএম
ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত
ছবি: বিজ্ঞপ্তি

অ্যাকাডেমিক উৎকর্ষ এবং ফলপ্রসূ গবেষণায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষকদের ‘‍কোয়ালিটি  জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড ২০২৪’ দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির নতুন ক্যাম্পাসে এ পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।
 
এ সময় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ, ট্রেজারার প্রফেসর মাহবুব রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ কোয়ালিটি জার্নাল পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড উদ্ভাবনের সংস্কৃতি, গবেষণা এবং সামাজিক দায়িত্বশীলতা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অঙ্গীকারের একটি নিদর্শন। অ্যাকাডেমিক উৎকর্ষ এবং সামাজিক প্রভাব অর্জনের ক্ষেত্রে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি গবেষণাকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে থাকে। 

এরই স্বীকৃতিস্বরূপ ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ফলপ্রসূ গবেষণাগুলোকে সম্মাননা জানাতে এই পুরস্কার প্রদান করেছে। এই বছর স্কোপাস জার্নালের প্রথম প্রান্তিকের শীর্ষ ১০ শতাংশে থাকা ৭৮টি গবেষণার জন্য ৪৩ জন গবেষককে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।

ইয়াফেস ওসমান ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির গবেষণা অগ্রযাত্রায় অবদান রাখা সবার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, ‘গবেষকদের ধারাবাহিকভাবে উদ্ভাবনের সাধনায় নিয়োজিত থাকতে হবে। সেখানে বিরতি দেওয়ার অর্থ হলো যা অর্জিত হয়েছে তা হারিয়ে ফেলা। অজানাকে জানার কোনো সীমা থাকতে পারে না।’ 

তিনি শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সবাইকে সর্বদা জ্ঞানের অন্বেষণ করতে আহ্বান জানান। সেই সঙ্গে তিনি জ্ঞান আহরণে সব সময় সবার চেয়ে এগিয়ে থাকারও পরামর্শ দেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির গবেষকদের জন্য প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সহায়তা করবে বলেও আশ্বাস দেন স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজুল আজিজ বলেন, ‘গবেষণা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির প্রাণ। গবেষণা এবং সামাজিক সমস্যাগুলোর সৃজনশীল সমাধানে আমরা আমাদের এই শিক্ষক এবং গবেষকরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং তারা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন, এ জন্য আমরা অত্যন্ত গর্ববোধ করি। ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে আমরা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিকে এই রিজিওনের শীর্ষ এবং গ্লোবাল সাউথের স্বনামধন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।’

অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন রিসার্চ মেট্রিক্স কমিটির চেয়ার এবং ডিপার্টমেন্ট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের প্রফেসর ড. একেএম আবদুল মালেক আজাদ। 

বিজ্ঞপ্তি/সাদিয়া নাহার/

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০:৪৫ এএম
মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত
মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে মঙ্গলবার মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে সুফি স্প্রিচুয়াল ফাউন্ডেশেনের সহযোগিতায় (এমআইইউ) ‘মেন্টাল ওয়েল-বিইং অ্যান্ড পাবলিক হেলথ কোয়েস্ট ফর এ হোলিস্টিক অ্যাপ্রোচ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া ক্যাম্পাসের সেমিনার কক্ষে আইন বিভাগের উদ্যোগে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্সিয়ান ল্যাঙ্গুয়েজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ওসমান গনি, এমআইইউর কলা ও মানবিক অনুষদের ডিন ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রধান ড. মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ এবং এমআইইউর সেন্টার ফর জেনারেল অ্যাডুকেশনের পরিচালক ড. মোহাম্মাদ আবুল কালাম আজাদ। 

আইন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে ‘মেন্টাল ওয়েল-বিইং অ্যান্ড পাবলিক হেলথ কোয়েস্ট ফর এ হোলিস্টিক অ্যাপ্রোচ’-এর ওপর আলোচনা করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের চাইল্ড অ্যাডোলেসেন্ট অ্যান্ড ফ্যামিলি সাইকিয়াট্রি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ। 

আইন বিভাগের শিক্ষক শাহরিয়ার বিন ওয়ারেছের সঞ্চালনায় সেমিনারের গেস্ট অব অনার ছিলেন সুফি স্প্রিচুয়াল ফাউন্ডেশেনের চেয়ারম্যান খাজা ওসমান ফারুকী।

মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান বলেন, ‘জীবনের প্রতিটি পর্যায়ে মানসিক স্বাস্থ্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মানসিক স্বাস্থ্য, মানসিক চাপ, প্রতিকার ও প্রতিরোধে নিয়ম মেনে খাওয়া, ঘুম থেকে জাগা বা বিছানায় যেতে হবে। মানসিকভাবে ভালো থাকতে নিয়মিত ব্যায়াম করার পাশাপাশি নিজেকে ও পরিবেশকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখতে মানুষকে মূল্যায়ন করার আহ্বান জানাচ্ছি।’
 
সেমিনারে প্রধান আলোচক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ শিক্ষার্থীদের মানসিক রোগ নিরাময়ে, মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার ক্ষেত্রে দৈনন্দিন জীবনে একজন মানুষ হিসেবে, একজন শিক্ষার্থী হিসেবে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া উচিত এ বিষয়ে আলোচনা করেন।

বিজ্ঞপ্তি/পপি/

ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. সাদী-উজ-জামান

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:১৬ পিএম
ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. সাদী-উজ-জামান

আবাসন খাতে অসামান্য অবদানের জন্য টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি অব বাংলাদেশ (ট্রাব) ও স্মার্ট বাংলাদেশ বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ‘ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড-২০২৪’ পেয়েছেন নতুনধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও এফবিসিসিআই স্টান্ডিং কমিটি অন ল্যান্ড ডেভেলপার্সের কো-চেয়ারম্যান ড. মো. সাদী-উজ-জামান।

এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন তিনি।

গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ক্রিস্টাল বলরুমে আয়োজিত এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন প্রধান অতিথি ভূমিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

উদ্বোধক ছিলেন সাবেক নৌ-পরিবহন মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শাজাহান খান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নতুনধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. সাদী-উজ-জামান, সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ দিদার বখত, সংসদ সদস্য মহিউদ্দীন মহারাজ, সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক প্রমুখ।

বিজ্ঞপ্তি/অমিয়/

আনন্দ ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেছে এক্সপ্রেশানস্ সদস্যরা

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:০৯ পিএম
আনন্দ ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেছে এক্সপ্রেশানস্ সদস্যরা

দেশের অন্যতম বিজ্ঞাপনী সংস্থা এক্সপ্রেশানস্ লিমিটেডের সদস্যরা প্রতিষ্ঠানের ৩১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে হিমালয়কন্যা নেপালে আনন্দ ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেছেন।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) চার দিনের এই আনন্দ ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেন তারা। এর আগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি কাঠমাণ্ডুর উদ্দেশ্যে রওনা দেয় এক্সপ্রেশানস্-এর কর্মীরা।

ভ্রমণের প্রথম দিন নাগরকোটে রাত্রিযাপন করে এক্সপ্রেশানস্ দল। নাগরকোটে পুরো দল এক সঙ্গে হিমালয়ে সূর্যোদয়, কাঠমাণ্ডু উপত্যকার অপরূপ মনোরম দৃশ্য ও আরও কয়েকটি হিমালয় পর্বতশ্রেণির দৃশ্য উপভোগ করেন।

নাগরকোট থেকে এক্সপ্রেশানস্ দল কাঠমাণ্ডু ফেরার পথে ইউনেস্কো স্বীকৃত বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান ভক্তপুর দরবার স্কোয়ারে প্রাচীন মল্ল রাজাদের রাজপ্রাসাদ নান্দনিক কারুকার্য ও স্থাপত্যশৈলির হিন্দু মন্দির ও বৌদ্ধ মন্দিরের অপূর্ব সমন্বয় দর্শন করে। 

এরপর কাঠমাণ্ডু ফিরে দর্শন করে শহরের পশ্চিমে টিলার চূড়ায় অবস্থিত প্রাচীন বৌদ্ধ ধর্মীয় কমপ্লেক্স স্বয়ম্ভূনাথ। 

দ্বিতীয় দিনের শেষ হয় ইউনেস্কো স্বীকৃত আরেক বিশ্ব এতিহ্যবাহী স্থান কাঠমাণ্ডু দরবার স্কোয়ার দর্শন করার মধ্য দিয়ে। 

তৃতীয় দিন চন্দ্রগিরি হিলে ক্যাবল কার রাইড সবার কাছে ছিল অন্যতম আর্কষণ। 

এরপর থামেল শহরে নেপালের ঐতিহ্যবাহী নানা কুটিরশিল্প ও হস্তশিল্প সংগ্রহ করে রাতে সবাই অংশগ্রহণ করেন মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে। সংগীত, অভিনয় ও কবিতা আবৃত্তি পরিবেশন করেন এক্সপ্রেশানস্-এর কর্মীরা। 

চতুর্থ দিন ২৪ ফেব্রুয়ারি তারা দেশে ফিরেন।

নেপাল আনন্দ ভ্রমণে নেতৃত্ব দেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক এবং চিফ বিলিফ অফিসার সৈয়দ আপন আহসান। 

তিনি জানান, ৩১তম বছরে এক্সপ্রেশানস্ লিমিটেড বাংলাদেশে আজ একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। জন্মলগ্ন থেকেই প্রতিষ্ঠানটি স্বাধীনতা, দেশ, মাটি ও মানুষের চেতনাকে ধারণ করে চলেছে। দেশজ সংস্কৃতির সাথে আন্তর্জাতিক যোগাযোগ কৌশলকে সমন্বয় করে বিজ্ঞাপনের উৎকর্ষতা অর্জনে বিশ্বাসী বিজ্ঞাপনী সংস্থা এক্সপ্রেশানস্ লি.।

কর্মীবৃন্দদের অভিজ্ঞতাকে ঋদ্ধ করতেই তাদের নিয়ে মাঝে মাঝে দেশের বাইরে আনন্দ ভ্রমণের আয়োজন করে থাকে এক্সপ্রেশানস্। 

এর আগেও ভারত ও থাইল্যান্ডে সকল কর্মীদের নিয়ে ভ্রমণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।     

ব্র্যান্ড সৃষ্টি, বিপণন ও উন্নয়ন যোগাযোগের লক্ষ্যে এটিএল, বিটিএল, ডিজিটাল ও ওটিটি সকল প্লাটফর্মে ৩৬০ ডিগ্রি সমাধান দিতে অডিও, ভিডিও, প্রিন্ট বিজ্ঞাপন তৈরি থেকে শুরু করে যেকোনো ইভেন্ট, অ্যাক্টিভেশন, মিডিয়া সলিউশন, ডিজিটাল কমিউনিকেশন করে থাকে এক্সপ্রেশানস্। 

বিগত তিন দশক ধরে দেশিয় ও বহুজাতিক কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার যোগাযোগ ও প্রচারণামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে এক্সপ্রেশানস্ লিমিটেড।

বিজ্ঞপ্তি/অমিয়/

স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের বার্ষিক বিক্রয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৬:৫৮ পিএম
স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের বার্ষিক বিক্রয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত

স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের বার্ষিক বিক্রয় সম্মেলন ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজারের হোটেল সি প্যালেসে এই সম্মেলনে স্কয়ার টয়লেট্রিজ পরিবারের প্রায় দেড় হাজার সদস্য অংশ নেন।

এই বিক্রয় সম্মেলন উদ্বোধন করেন স্কয়ার টয়লেট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী। 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) মালিক মোহাম্মদ সাঈদ, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. গোলাম কিবরিয়া-সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

কনফারেন্সে মেরিল পেট্রোলিয়াম জেলির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদ উপস্থিত হয়ে সবাইকে চমকে দেন। 

তিনি স্কয়ার টয়লেট্রিজের সহকর্মীদের অনুপ্রাণিত করতে এক জমকালো পরিবেশনা করেন এবং তুলে ধরেন এবারের সম্মেলনের মূল মন্ত্র ‘জিততে হলে লড়তে হবে’। 

কনফারেন্সে এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ট্রেইনার এজাজুর রহমান। যিনি তার মোটিভেশনাল বক্তব্যে অনুপ্রাণিত করেন বিক্রয় প্রতিনিধিদের।

শুরু থেকেই স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড বাংলাদেশের মানুষের জীবনমানের কথা চিন্তা করে নিরলস কাজ করে চলেছে প্রতিনিয়ত। স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডে কর্মরত সবাই ‘সুস্থ জীবনে সুন্দর থাকুন’ প্রতিজ্ঞায় আবদ্ধ। দেশের মানুষের প্রয়োজনীয়তা ও চাহিদার কথা মাথায় রেখে পণ্যের গুণগত মানে এক চুলও ছাড় না দিয়ে ক্রমান্বয়ে নিয়ে আসছে নতুন নতুন সব পণ্য। এরই ধারাবাহিকতায় প্রকৃতি এবং আধুনিক বিজ্ঞানের মিশেলে তৈরি ‘মায়া’ ব্র্যান্ড নতুন ন্যাচারাল হারবাল সল্যুশন হিসেবে নিয়ে এসেছে আরও তিনটি নতুন পণ্য “মায়া ট্রু হার্বস হারবাল কোকোনাট অয়েল, মায়া অল ন্যাচারাল মরোক্কান আরগান অয়েল এবং মায়া অল ন্যাচারাল স্প্যানিশ রোজহিপ সিড অয়েল।’’

দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানে ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী বছরের সেরা বিক্রয়কর্মীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

বিজ্ঞপ্তি/অমিয়/