ঢাকা ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Khaborer Kagoj

মানবতাবিরোধী অপরাধে শেরপুরের ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:২২ পিএম
মানবতাবিরোধী অপরাধে শেরপুরের ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত হত্যা, গণহত্যাসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় শেরপুরের নকলা উপজেলার তিন আসামিকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল এ রায় দেয়। 

দণ্ডিত তিন আসামি বর্তমানে কারাবন্দী। তারা হলেন- আমিনুজ্জামান ফারুক, মোখলেসুর রহমান ওরফে তারা এবং একেএম আকরাম হোসেন।

এর আগে গত ২৪ জানুয়ারি শুনানি শেষে রায়ের জন্য মামলাটি অপেক্ষমাণ (সিএভি) রেখেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। পরে আজ রায় ঘোষণার ধার্য করে দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আইনজীবী আবদুস সোবহান তরফদার ও আবদুস সাত্তার পালোয়ান।

প্রসিকিউশন পক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন।

এই চার রাজাকারের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ তদন্ত করে ২০১৭ সালের ২৬ জুলাই প্রতিবেদন দাখিল করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। একই বছরের ৩১ অক্টোবর ট্রাইব্যুনালে ফরমাল চার্জ দাখিল করা হয়। ২০১৮ সালের ৩০ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল। চার আসামির মধ্যে বিচার চলাকালে এমদাদুল হক খাজা নামে এক আসামি মারা যান।

ঢাকা আইনজীবী সমিতির ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৩:৩০ পিএম
ঢাকা আইনজীবী সমিতির ভোটগ্রহণ চলছে
ছবি : খবরের কাগজ

ঢাকা আইনজীবী সমিতির (২০২৪-২৫) কার্যকরী কমিটির নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। টানা দুই দিন চলবে ভোটগ্রহণ। 

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রথম দিনের ভোটগ্রহণ শুরু হয় সকাল ৯টায়। মাঝে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ। দ্বিতীয় ও শেষদিন বৃহস্পতিবারও (২৯ ফেব্রুয়ারি) একইভাবে ভোটগ্রহণ হবে।

নির্বাচনে সরকারি দল আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাদা প্যানেল থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যথাক্রমে আবদুর রহমান হাওলাদার ও মো. আনোয়ার শাহাদাত। আর বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল থেকে এই দুই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যথাক্রমে খোরশেদ মিয়া আলম ও সৈয়দ নজরুল ইসলাম।

সাদা প্যানেলের অন্যান্য পদের প্রার্থীদের মধ্যে আছেন সিনিয়র সহসভাপতি পদে আবুল কালাম মোহাম্মাদ আক্তার হোসেন, কোষাধ্যক্ষ পদে মো. ওমর ফারুক, সিনিয়র সহসাধারণ সম্পাদক পদে মাসরাত আলী, সহসাধারণ সম্পাদক পদে আসাদুজ্জামান, লাইব্রেরি সম্পাদক পদে হুমায়ুন কবির, সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মনিরা বেগম, অফিস সম্পাদক পদে সরোয়ার জাহান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে প্রদীপ চন্দ্র সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক পদে মো. ওয়াকিলুর রহমান এবং নতুন পদ তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক পদে সৈয়দা ফরিদা ইয়াছমিন জেসি।

আর নীল প্যানেলে অন্যান্য পদের প্রার্থীদের মধ্যে আছেন সিনিয়র সহসভাপতি পদে আবদুর রাজ্জাক, সহসভাপতি পদে সহিদুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ পদে আবদুর রশীদ মোল্লা, সিনিয়র সহসাধারণ সম্পাদক পদে জহিরুল হাসান, সহসাধারণ সম্পাদক পদে সৈয়দ মো. মইনুল হোসেন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে মাহবুব হাসান, লাইব্রেরি সম্পাদক পদে নার্গিস পারভীন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে নূরজাহান বেগম, দপ্তর সম্পাদক পদে আনোয়ারুল ইসলাম, ক্রীড়া সম্পাদক মোবারক হোসেন এবং তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক পদে মো. মাজহারুল ইসলাম। 

মাহমুদুল/সালমান/

বায়তুল মোকাররম এলাকায় সমাবেশ বন্ধের আবেদন নিষ্পত্তির নির্দেশ

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৯:৪১ পিএম
বায়তুল মোকাররম এলাকায় সমাবেশ বন্ধের আবেদন নিষ্পত্তির নির্দেশ
ছবি : সংগৃহীত

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় রাজনৈতিক মিছিল, বিক্ষোভ-সমাবেশ বন্ধের আবেদন নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

ধর্ম মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্টদের আগামী ৯০ দিনের মধ্যে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলেছেন হাইকোর্টের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ।  

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সেলিম আজাদ সাংবাদিকদের জানান, সাধারণ মুসল্লিদের নিরাপত্তার জন্য বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় রাজনৈতিক মিছিল, বিক্ষোভ সমাবেশ বন্ধ করতে ধর্ম মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গত ৭ ফেব্রুয়ারি আবেদন করেন আবদুল্লাহ আল মামুন কৌশিক নামের এক ব্যক্তি। আবেদন নিষ্পত্তি না করায় পরে তিনি হাইকোর্টে রিট করেন। রিটের শুনানি নিয়ে বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় রাজনৈতিক মিছিল, বিক্ষোভ সমাবেশ বন্ধ চেয়ে করা আবেদন ৯০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন। শুনানিতে রিটের পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করেন অ্যাডভোকেট সানোয়ার হোসেন।

যৌন নির্যাতনের মামলায় ভিকারুননিসার শিক্ষক রিমান্ডে

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৭:২৩ পিএম
যৌন নির্যাতনের মামলায় ভিকারুননিসার শিক্ষক রিমান্ডে

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখার শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারের বিরুদ্ধে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। যৌন নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় তার বিরুদ্ধে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জাকী-আল-ফারাবীর আদালত এ আদেশ দেন। 

রাজধানীর কলাবাগানের বাসা থেকে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে গণিতের শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে পুলিশ তাকে রিমান্ডে চেয়ে আদালতে আবেদন করে। তাকে ৭ দিন রিমান্ডে চেয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রসঙ্গত, ছাত্রীদের যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারকে প্রত্যাহার করে গত শনিবার অধ্যক্ষের কার্যালয়ে সংযুক্ত করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরে গতকাল সোমবার রাতে কলেজের পরিচালনা কমিটির জরুরি সভায় এই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এ ছাড়া যৌন হয়রানির অভিযোগের ঘটনা তদন্তে গঠিত হয় তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি। তদন্ত কমিটি এরই মধ্যে প্রতিবেদনও জমা দিয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষক মুরাদ হোসেন সরকারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা গত রবিবার ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর ক্যাম্পাসের ফটকে বিক্ষোভ করে। ওই দিন বিকেল ৩টার দিকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কেকা রায় চৌধুরীর আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা। তবে ওই দিন বিকেলে একই দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন কয়েকজন অভিভাবক। 

সাগর-রুনী হত্যা মামলার প্রতিবেদন পেছাল ১০৬ বার

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৬:৫২ পিএম
সাগর-রুনী হত্যা মামলার প্রতিবেদন পেছাল ১০৬ বার

১০৬ বারের মতো পেছাল সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনী হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার তারিখ। ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুল হকের আদালত আগামী ২ এপ্রিল এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নতুন তারিখ ধার্য করেছেন।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এই আদেশ দেন আদালত।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন (জিআর) শাখার উপপরিচালক (এসআই) আলমগীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এদিন এই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। তবে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এই তারিখেও আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়নি। এর পরিপ্রেক্ষিতে নতুন দিন ধার্য করেন আদালত।

প্রসঙ্গত, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনী ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসায় নৃশংসভাবে খুন হন। ঘটনার সময় সাগর মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক এবং রুনী এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ছিলেন। ওই ঘটনায় রুনীর ভাই নওশের আলম বাদী হয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর এ মামলা তদন্ত করছিল শেরেবাংলা নগর থানা-পুলিশ। এর চার দিন পর মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)।

এরপর ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল হাইকোর্টে ব্যর্থতা স্বীকার করে ডিবি। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত র‌্যাবকে মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দেন। তখন থেকে মামলাটির তদন্তের দায়িত্বে আছে র‌্যাব। 

সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি নিয়ে শুনানি আজ

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৯:৫১ এএম
সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি নিয়ে শুনানি আজ

খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহসভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ির মালিকানা নিয়ে রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) আদেশ দিতে পারেন হাইকোর্ট। বিষয়টি হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের বেঞ্চের দিনের কার্যতালিকায় রয়েছে। 

এর আগে এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ধার্য দিনে মালিকানার ক্রমধারা (চেইন অব টাইটেল) ও বাড়ির মানচিত্রসহ যাবতীয় নথিপত্র হাইকোর্টে জমা দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ওই দিন শুনানি শেষে আদেশের জন্য ২৫ ফেব্রুয়ারি (আজ) ধার্য করেন আদালত। 

তার আগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি নিয়ে দুদকের অনুসন্ধান প্রতিবেদন ও মামলার এফআইআর হাইকোর্টে জমা করা হয়। তবে আদালত তদন্ত প্রতিবেদনের সঙ্গে বাড়িটির যাবতীয় নথিপত্র জমা দিতে বলেন। 

এরপর গত ১৬ জানুয়ারি মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়িসংক্রান্ত মূল নথি ও এ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন এফিডেভিট করে এক সপ্তাহের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। পরের দিন ১৭ জানুয়ারি দুদককে ওই বাড়ি নিয়ে ৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে অনুসন্ধান প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ। 

সরকারের সম্পত্তি নিজের নামে লিখে নিয়ে বাড়ি বানানোর অভিযোগে সালাম মুর্শেদীর বিরুদ্ধে গত বছর রিট করেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এতে দুদকসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়। রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ১ নভেম্বর সালাম মুর্শেদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই সম্পত্তি-সম্পর্কিত সব কাগজপত্র ১০ দিনের মধ্যে আদালতে জমা করতে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক), গণপূর্ত বিভাগ এবং সালাম মুর্শেদীকে নির্দেশ দেওয়া হয়। এদিকে অভিযোগ অনুসন্ধানে দুই সদস্যের কমিটি গঠন করে দুদক। দুদকের অনুসন্ধান প্রতিবেদনও আদালতে জমা করতে বলা হয়। অনুসন্ধান শেষে গত ৬ ফেব্রুয়ারি সালাম মুর্শেদীকে বাদ দিয়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক মো. ইয়াছির আরাফাত। ৮ ফেব্রুয়ারি অনুসন্ধান প্রতিবেদন ও মামলার কাগজপত্র আদালতে জমা করে দুদক।