ঢাকা ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪
Khaborer Kagoj

হরতাল-অবরোধে এক মাসে ৫২৯ ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ

প্রকাশ: ০২ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৩১ পিএম
হরতাল-অবরোধে এক মাসে ৫২৯ ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ
ফাইল ছবি

গত ২৮ অক্টোবর থেকে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত এক মাস ২ দিনে সারা দেশে যানবাহন এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে ৫২৯টি। বিএনপি-জামায়াতসহ সমমনা দলগুলোর ডাকা সমাবেশ, হরতাল ও অবরোধকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) পুলিশ সদর দপ্তর ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একটি সূত্র মতে এসব তথ্য জানা গেছে। ২৮ অক্টোবর থেকে হরতাল অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি ও সমমনা জোট। 

ওই সূত্রটি জানায়, ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী ৩০টি যানবাহনে ভাঙচুর, ৪২টি যানবাহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া ১৫টি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। অগ্নিসংযোগ করা হয় ৭টি গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায়।

এদিকে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ৩১ অক্টোবরের অবরোধে ২৮ জন পুলিশ সদস্য আহত হন। নিহত হন ২ জন। ১ নভেম্বরের অবরোধে ১৭ জন পুলিশ সদস্য আহত হন, ৬ নভেম্বরের অবরোধে ৮ পুলিশ, ৮ নভেম্বর ২ পুলিশ, ১৫ নভেম্বর ১৭ পুলিশ, ১৯ নভেম্বরের হরতালে ৭ পুলিশ ও ২ সাংবাদিক, ২০ নভেম্বরের হরতালে ৫ পুলিশ এবং ২২ নভেম্বর ২ পুলিশ আহত হয়েছে। এ ছাড়া এসব ঘটনায় শতাধিক সাধারণ মানুষ আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২৮ অক্টোবর থেকে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত এক মাস ২ দিনে ঢাকাসহ সারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় নানা ধরনের যানবাহন ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ১০১টি যানবাহনে ভাঙচুর এবং ২৯৯টি যানবাহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। 

এ ছাড়া ১৮টি স্থাপনায় ভাঙচুর এবং ১১টি স্থাপনায় অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। সর্বমোট ৫১৯টি যানবাহন ও স্থাপনায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের একটি সূত্র মতে এসব জানা গেছে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, বিএনপি-জামায়াতসহ সমমনা দলগুলোর ডাকা সমাবেশ, হরতাল ও অবরোধকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা ঘটছে। তবে এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। সিসিটিভি ফুটেজ, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ভিডিও ফুটেজ এবং সংশ্লিষ্ট তথ্য বিশ্লেষণ করে জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয় এবং অনেক দুষ্কৃতকারী গ্রেপ্তার হয়।

খাজা/এমএ/

ডিসি সম্মেলন শুরু ৩ মার্চ

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ০৭:০১ পিএম
ডিসি সম্মেলন শুরু ৩ মার্চ

জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন শুরু হচ্ছে আগামীকাল (৩ মার্চ)। চার দিনব্যাপী এ সম্মেলন চলবে ৬ মার্চ পর্যন্ত।

রবিবার (৩ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সম্মেলন উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন।

তিনি জানান, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) কারাবি হলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ডিসিরা মুক্ত আলোচনায় অংশ নেবেন। 

সোমবার (৪ মার্চ) সম্মেলনের পরবর্তী কার্য অধিবেশন ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান তিনি।

২৫টি কার্য অধিবেশনসহ মোট ৩০টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে ডিসিদের দেওয়া ৩৫৬টি প্রস্তাব নিয়ে সেখানে আলোচনা হবে।

এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি (২২টি) প্রস্তাব এসেছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের বিষয়ে। এসব বিষয়ে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেবেন সরকারের নীতিনির্ধারকরা।

এবারের সম্মেলনে প্রধান আলোচ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে ভূমি ব্যবস্থাপনা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ, স্বাস্থ্যসেবা, পরিবেশ সংরক্ষণ ও দূষণরোধ, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রম জোরদার করা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম, স্থানীয় পর্যায়ে কর্ম-সৃজন ও দারিদ্র্য বিমোচন কর্মসূচি বাস্তবায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচি বাস্তবায়ন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার এবং ই-গভর্নেন্স, ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়ন এবং উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও সমন্বয় করা।

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন জানান, গত বছর (২০২৩) মোট ২১২টি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। এর মধ্যে স্বল্পমেয়াদি অর্থাৎ এক বছরের মধ্যে বাস্তবায়নের কথা ছিল এ রকম সিদ্ধান্ত হয়েছিল ৫২টি। যার বাস্তবায়নের হার ৮৯ শতাংশ। তিন বছরের মধ্যে বাস্তবায়নের (মধ্যমেয়াদি) জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ৯০টি। এগুলোর মধ্যে এখন পর্যন্ত বাস্তবায়নের হার ৫৯ শতাংশ। আর ৫ বছরের জন্য যেসব সিদ্ধান্ত (দীর্ঘমেয়াদি) নেওয়া হয়েছিল ৭০টি। এখন পর্যন্ত যার বাস্তবায়নের হার ৪৫ শতাংশ।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন বাস্তবায়নের এই হারে তারা সন্তুষ্ট। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বাকি সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সম্মেলনের প্রথম দিন সাতটি সেশন অনুষ্ঠিত হবে।

উদ্বোধনী দিনে উন্মুক্ত আলোচনা এবং পাঁচটি কার্য অধিবেশন। দ্বিতীয় দিন ডিসিরা জাতীয় সংসদে (জেএস) ডাকবেন। ওইদিন মোট নয়টি সেশন অনুষ্ঠিত হবে।

তৃতীয় দিন ৫ মার্চ সাতটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। 

৬ মার্চ ডিসিরা আদালত ভবনে সুপ্রিম কোর্টে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। ওই দিন মোট সাতটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।

অমিয়/

বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড: ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ০৬:০৮ পিএম
বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ড: ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা
ছবি : খবরের কাগজ

রাজধানীর বেইলি রোডে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন গ্রিন কোজি কটেজে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভবনের মালিকসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

শনিবার (২ মার্চ) পুলিশ বাদী হয়ে মামলাটি করেছে।

মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগ আনা হয়েছে বলে জানা গেছে।
 
এর আগে শুক্রবার (১ মার্চ) সন্ধ্যায় এক ব্রিফিংয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার মহিদ উদ্দিন জানিয়েছিলেন, বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজে অগ্নিকাণ্ডে কেউ অভিযোগ না দিলে, পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

বৃহস্পতিবার রাতে বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজে অগ্নিকাণ্ডে এখন পর্যন্ত ৪৬ জন নিহত হয়েছেন। নিহত ৪৩ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি তিনজনের মরদেহ ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

অমিয়/

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ০৫:৩৬ পিএম
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত
ছবি : সংগৃহীত

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১ম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার (২ মার্চ) বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল।

সভায় কমিটির সদস্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান, সামছুল হক দুদু, মো. ছানোয়ার হোসেন এবং মো. সাদ্দাম হোসেন (পাভেল) অংশ নেন। 

পবিত্র কোরআন তেলায়াতের মাধ্যমে বৈঠক শুরু করা হয়। 

বৈঠকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাত্রিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবসহ শহিদ পরিবারের সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের ত্রিশ লাখ শহীদ, জাতীয় চার নেতা এবং ভাষা আন্দোলনে সকল শহিদদের রূহের মাগফেরাত কামনা করে তাদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। 

এর আগে সভার শুরুতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক নবনির্বাচিত কমিটির সদস্যদের ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১ম বৈঠক হওয়ায় উপস্থিত সদস্যদের পরিচিতি তুলে ধরা হয়।
         
বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হতে জানানো হয়, বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে ৫ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। 

বৈঠকে ‘আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) (সংশোধন) বিল, ২০২৩’ এর উপর বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং প্রয়োজনীয় সংশোধন ও পরিমার্জন করে বিলটি অবিলম্বে সংসদে উত্থাপনের সুপারিশ করা হয়। 

বৈঠকে জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিবসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

এলিস/অমিয়/

চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করল ইসি

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ০৫:১৮ পিএম
চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করল ইসি

চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নতুন তালিকা অনুযায়ী দেশে মোট ভোটার ১২ কোটি ১৮ লাখ ৫০ হাজার ১০০ জন। এই তালিকায় ভোটার বেড়েছে ২ দশমিক ২৬ শতাংশ।

শনিবার (২ মার্চ) মোট ভোটারের এই চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। 

কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, মোট ভোটারের মধ্যে পাঁচ কোটি ৯৭ লাখ চার হাজার ৬৪১ জন নারী, ছয় কোটি ২১ লাখ ৪৪ হাজার ৫৮৭ জন পুরুষ ও ৯৩২ জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার। 

ভোটার তালিকা আইন অনুযায়ী, প্রতি বছর ২ জানুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হওয়ায় নির্দিষ্ট সময়ে খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করতে পারেনি কমিশন।

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করে কমিশন। খসড়া তালিকায় মোট ভোটার সংখ্যা ১২ কোটি ১৭ লাখ ৭৫ হাজার ৪৫০ জন ছিল। ইসির ঘোষিত সময়ে বাড়ি বাড়ি ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করা হলেও সারা বছর সংশ্লিষ্ট উপজেলা, থানা নির্বাচন অফিসে গিয়ে বাংলাদেশি নাগরিকদের ভোটার হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৮৯ হাজার ২৮৯ জন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার ছয় কোটি ৭৬ লাখ ৯ হাজার ৭৪১ ও নারী ভোটার সংখ্যা পাঁচ কোটি ৮৯ লাখ ১৮ হাজার ৬৯৯ জন।

অমিয়/

গাউসুল আজম মার্কেটে আগুন

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ০৫:০৮ পিএম
গাউসুল আজম মার্কেটে আগুন

রাজধানীর নীলক্ষেত এলাকায় গাউসুল আজম মার্কেটে আগুন লেগেছে। 

শনিবার (২ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় আগুনের সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বিকেল সাড়ে ৪টায় গাউসুল আজম মার্কেটের দোকানে আগুন লাগার খবর পাওয়া যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট কাজ করছে।

তবে প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

অমিয়/