ঢাকা ৫ আষাঢ় ১৪৩১, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

যেখানে বন্ধুত্বের জয়জয়কার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ০৯:১৩ এএম
আপডেট: ১৬ মে ২০২৪, ০৯:১৪ এএম
যেখানে বন্ধুত্বের জয়জয়কার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

সময়টা ২০১৭। ওই সময় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ভর্তি পরীক্ষার কার্যক্রম চলমান। ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য মেধাবীদের আনাগোনায় ক্যাম্পাস মুখরিত। এ সময় ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে ভর্তি হন তিন বন্ধু। কে জানতো তাদের বন্ধুত্বের জয়জয়কার একদিন ক্যাম্পাসে প্রস্ফুটিত হবে। বলছিলাম মামুনুর রশিদ, সুমন আলী ও নাঈম হোসেনের কথা। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এক চমকপ্রদ ঘটনার জন্ম দিয়েছেন তারা।

একসঙ্গে তারা যুক্তরাষ্ট্রে ফুল ফান্ডেড স্কলারশিপ পেয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সারা দেশে। এর মধ্যে মামুনুর রশিদ ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসে ফিন্যান্স, নাঈম হোসেন ইউনিভার্সিটি অব নিউ ওরল্যান্সে ফিন্যান্সিয়াল ইকোনোমিকসে এবং সুমন আলী ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসে ফিন্যান্স নিয়ে পিএইচডির জন্য মনোনীত হয়েছেন।

এমন সফলতার পেছনের রহস্য বলতে গিয়ে তারা বলেন, ‘আমরা তিন বন্ধু সপ্তাহে ২-৩ বার জুমে মিটিং করতাম। ২০২১ সালের জুনের দিকে আমাদের গবেষণাপত্র প্রথম প্রকাশিত হয়। গবেষণাপত্র প্রকাশিত হলে আমরা আরও বেশি উৎসাহ নিয়ে কাজ শুরু করি। তবে মাঝে মধ্যেই ভেঙে পড়তাম। কিন্তু অধ্যাপক ড. বখতিয়ার হাসান স্যারের কথায় আবার আমরা উদ্যমী হয়ে উঠতাম। অনেক আনন্দ নিয়ে কাজ করতাম। এই অর্জনের  পেছনে স্যারই আমাদের স্বপ্নদ্রষ্টা ছিলেন।’ 

তারা আরও বলেন, ‘বখতিয়ার স্যার আমাদের হাতে-কলমে গবেষণা শিখিয়েছেন। আমরা শপথ করে বলতে পারি, স্যারের মতো এমন সুপারভাইজার পাওয়া দুষ্কর। তার অক্লান্ত পরিশ্রম, সহযোগিতা ও একান্ত চাওয়ায় আমরা দেশি ও আন্তর্জাতিক মানের গবেষকদের সঙ্গে গবেষণা করার সুযোগ পাব। স্যারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা আমাদের নেই। সবচেয়ে মজার বিষয়, আমরা যখন বখতিয়ার স্যারের পাবলিকেশন দেখতাম, ওই সময় তিনজন আলোচনা করতাম, আমরাও একদিন স্যারের সঙ্গে পাবলিকেশন করব।’

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তারা বলেন, ‘আমাদের বিভাগ ও পরিবারের জন্য এই সাফল্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। তবে একসঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করব ভাবিনি। এ ভেবে ভালো লাগছে, যে আমরা একইসঙ্গে এমন সাফল্য পেয়েছি।’

এর আগে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির মধ্য দিয়েই তাদের তিন বন্ধুর পথচলা। শুরু থেকেই পড়াশোনা, গবেষণা থেকে শুরু করে বিভিন্ন একাডেমিক কার্যক্রমে তাদের সাড়া জাগানো পদার্পণ ছিল। বখতিয়ার স্যারের সহায়তায় ‘Hasan's research lab’ নামে একটি ল্যাব প্রতিষ্ঠা করে একসঙ্গে গবেষণার কাজে এগোতে থাকেন তারা। করোনা মহামারির সময়ও থেমে থাকেনি তাদের কার্যক্রম। ওই সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে বাসা ভাড়া নিয়ে গবেষণার কাজ চালিয়ে যান তারা। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হলো স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে তাদের রেজাল্ট একই এবং তারা একই দেশ যুক্তরাষ্ট্রে ফুল ফান্ডেড স্কলারশিপে মনোনীত হয়েছেন।

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ঢাবি শিক্ষার্থী ফয়েজ মারা গেছেন

প্রকাশ: ১৬ জুন ২০২৪, ০৪:৩৬ পিএম
আপডেট: ১৬ জুন ২০২৪, ০৪:৩৯ পিএম
সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ঢাবি শিক্ষার্থী ফয়েজ মারা গেছেন
মো. ফয়জুল আলম ফয়েজ

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী মো. ফয়জুল আলম ফয়েজ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

রবিবার (১৬ জুন) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

গত ৬ জুন রাজধানীর যাত্রাবাড়িতে রাস্তা পার হওয়ার সময় বাসের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন ফয়েজ।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংলিশ ফর স্পিকারস অব আদার ল্যাংগুয়েজেস (ইসোল) ডিপার্টমেন্টের ২০২১-২২ সেশনের শিক্ষার্থী। 

ফয়েজের বড় ভাই ফিরোজ খবরের কাগজকে বলেন, নোয়াখালীতে গ্রামের বাড়িতে ফয়েজের দাফন সম্পন্ন হবে।

পপি/

ঢাবিতে ঈদের প্রথম জামাত সকাল ৮টায়, বুয়েটে সাড়ে ৬টায়

প্রকাশ: ১৫ জুন ২০২৪, ০৩:১২ পিএম
আপডেট: ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:৪২ পিএম
ঢাবিতে ঈদের প্রথম জামাত সকাল ৮টায়, বুয়েটে সাড়ে ৬টায়
ছবি: খবরের কাগজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় মসজিদ মসজিদুল জামিআয় পবিত্র ঈদুল আজহার দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ঈদের একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। 

বিশ্ববিদ্যালয় দুটির জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

ঢাবির ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ মসজিদুল জামিআয় ঈদের প্রথম জামাত সকাল ৮টায় এবং দ্বিতীয় জামাত সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাতে ইমামতি করবেন মসজিদের প্রধান খতিব ড. সৈয়দ মুহাম্মদ এমদাদ উদ্দীন এবং দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করবেন সিনিয়র মুয়াজ্জিন এমডি এ জলিল।

এ ছাড়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল মসজিদে সকাল ৭টায়, ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ্ হল লনে সকাল ৮টায় এবং ঈশা খাঁ আবাসিক এলাকার মসজিদে সকাল ৭টায় ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে বুয়েটের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বুয়েটে ঈদের জামাত সকাল সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠিত হবে। যদি কোনো কারণে খোলা মাঠে নামাজের জামাতের ওপর সরকারি বিধিনিষেধ জারি করা হয় বা আবহাওয়া অনুকূলে না থাকলে সেক্ষেত্রে খেলার মাঠের পরিবর্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি মসজিদে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

সেক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় মসজিদে সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে, বায়তুস সালাম মসজিদে সকাল ৭টায় এবং আজাদ আবাসিক এলাকা মসজিদে সকাল ৭টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়াও বিজ্ঞপ্তিতে সবাইকে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঈদের জামাতে আসার অনুরোধ করা হয়।

আরিফ জাওয়াদ/সাদিয়া নাহার/অমিয়/

ঈদে ঢাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করবে জবি

প্রকাশ: ১৫ জুন ২০২৪, ১২:৩৬ এএম
আপডেট: ১৫ জুন ২০২৪, ১২:৩৬ এএম
ঈদে ঢাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করবে জবি
খবরের কাগজ গ্রাফিকস

ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রথমবারের মতো শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বাড়ি যেতে না পারা শিক্ষার্থীদের জন্য ঈদের দিন ঢাকায় ও ছাত্রী হলে অবস্থানরত সব শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করাবে প্রশাসন। এর জন্য ৫টি খাসির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ জুন) বিষয়টি খবরের কাগজকে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম। তিনি বলেন, ঈদে ঢাকায় অবস্থান করা শিক্ষার্থীদের জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজন করা হবে। হলের শিক্ষার্থীদের এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের তালিকা করতে প্রশাসনকে নির্দেশনা দিয়েছি।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ঈদের দিন অনেক শিক্ষার্থী বাড়ি যেতে পারে না। অনেকে হলে থাকে। এর মধ্যে ভিন্ন ধর্মের শিক্ষার্থীরাও রয়েছে। ঈদে বাড়ি যেতে না পারায় কেউ যেন আনন্দ থেকে বঞ্চিত না হয় সে জন্য উপাচার্য সবার জন্য দুপুরে খাবারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ জন্য ৫টি খাসির ব্যবস্থা করা হয়েছে। থাকবে পোলাও, ডিমের কোরমাসহ আরও নানা পদের খাবার। ক্যাম্পাসে বা ঢাকায় অবস্থানরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও এ আপ্যায়ন করা হবে। এর মাধ্যমে জবিতে প্রথমবারের মতো নতুন এক দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে।

জাককানইবিসাস ও বাকৃবিসাসের তরুণ সাংবাদিকদের মিলনমেলা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ০২:২৪ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১০:০৬ পিএম
জাককানইবিসাস ও বাকৃবিসাসের তরুণ সাংবাদিকদের মিলনমেলা

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জাককানইবিসাস) ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (বাকৃবিসাস) তরুণ সাংবাদিকদের মধ্যে প্রীতি মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) এ মিলনমেলা উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা আয়োজন করা হয়। 

এর মধ্যে মৌসুমি ফল দিয়ে আপ্যায়ন, ক্রিকেট ম্যাচ, নৌকা ভ্রমণ এবং রাতের প্রীতিভোজের মধ্য দিয়ে আয়োজন শেষ হয়।

প্রীতিভোজে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আউয়াল। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দীন মোহাম্মদ দীনু। বর্তমানে তিনি বাকৃবির জনসংযোগ দপ্তরের উপ-পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। 

এ ছাড়া বাকৃবিসাস ও জাককানইবিসাসের সাবেক ও বর্তমান সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আসলাম বেগ বলেন, ‘সুন্দর এবং আনন্দঘন দিন কেটেছে আমাদের। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির আতিথেয়তায় আমরা মুগ্ধ। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সঙ্গে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির অতীতে যেমন সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক ছিল, ভবিষ্যতেও এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করছি।’

জান্নাতী/পপি/

সড়কে নিহত চুয়েটের ২ শিক্ষার্থীর পরিবার পেল ২০ লাখ টাকা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১১:১৬ এএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১১:১৬ এএম
সড়কে নিহত চুয়েটের ২ শিক্ষার্থীর পরিবার পেল ২০ লাখ টাকা
নিহতের পরিবারের কাছে অনুদান তোলে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসক। ছবি: খবরের কাগজ

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চুয়েটের দুই শিক্ষার্থীর পরিবারকে ২০ লাখ টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। আহত অপর শিক্ষার্থীর পরিবারকে দেওয়া হয়েছে ২ লাখ টাকা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চুয়েটের দুই ছাত্রের পরিবার ও আহত ছাত্রের পরিবারের কাছে অনুদানের চেক হস্তান্তর করা হয়।

এ সময় জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ‘বাসের সঙ্গে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) দুই ছাত্র নিহত ও অপর ছাত্র আহত হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। সড়কে অকালমৃত্যু আমরা কখনো কামনা করি না। সড়ক দুর্ঘটনায় কারও অকালমৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এর পরও সরকার, জেলা প্রশাসন ও বাস মালিক সমিতি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী দুই মাসের মধ্যে চুয়েটের সড়কটি প্রশস্তকরণ করা হবে। নিহত দুই ছাত্র শান্ত সাহা ও তৌফিকুর রহমানের নামে এ সড়কের নামকরণ করার বিষয়ে নিহত ছাত্রদ্বয়ের অভিভাবকের অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমরা সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগকে প্রস্তাবনা পাঠাব। দুর্ঘটনায় যে দুইজন ছাত্র মারা গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের নামে কোনো ভবন বা চত্বর নামকরণ করা যায় কি-না জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভায় বিষয়টি উপস্থাপনসহ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।’

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, ‘দুই ছাত্র নিহত ও একজন ছাত্র আহত হওয়ার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তাৎক্ষণিক বৈঠক করেন। এ সময় আমাদের ছাত্ররা বেশকিছু দাবি উত্থাপন করে। তিনি তাদের দাবিগুলো পূরণের অঙ্গীকার করেন। তিনি (ডিসি) কথা রেখেছেন।’

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট একেএম গোলাম মোর্শেদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহমদ, চুয়েট ছাত্র কল্যাণ পরিষদের পরিচালক অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অংগ্যজাই মারমা, বিআরটিএর সহকারী পরিচালক রায়হানা আক্তার উর্থী।

অনুষ্ঠানে ছেলের মৃত্যুর স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন নিহত ছাত্র শান্ত সাহার বাবা কাজল সাহা ও নিহত তাওফিক হোসেনের বাবা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন। 

গত ২২ এপ্রিল বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হয়ে রাঙ্গুনিয়া থানার সত্য পীরের মাজার গেটসংলগ্ন সড়কে বাসের ধাক্কায় প্রাণ হারান চুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শান্ত সাহা এবং গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান একই বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তাওফিক হোসেন। এ ছাড়া গুরুতর আহত হন পুরকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. জাকারিয়া হাসান হিমু।

ইফতেখারুল/ইসরাত চৈতী/