ঢাকা ২ বৈশাখ ১৪৩১, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
Khaborer Kagoj

এইচএসসির প্রস্তুতি: ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা

প্রকাশ: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০২:০৮ পিএম
এইচএসসির প্রস্তুতি: ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা

তৃতীয় অধ্যায়, এক মালিকানা ব্যবসায়

             বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর

নিচের উদ্দীপকটি পড়ে ১৯ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও:

রহিম ও করিম মধ্যপ্রাচ্যের একটি দেশে ইলেকট্রনিক পণ্যের দোকানে কর্মচারী হিসেবে বেশ কয়েক বছর কাজ করে দেশে ফিরেছে। নিজস্ব ৫,০০,০০০ টাকা এবং ব্যাংক থেকে ২,০০,০০০ টাকা ঋণ নিয়ে গঞ্জে রহিম ইলেকট্রনিক পণ্যের একটি দোকান দেয় এবং করিমকে তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে নিয়োগ দেয়। গঞ্জে বেশ কয়েকটি এরূপ দোকান থাকার পরও দুজনের পূর্ব অভিজ্ঞতা ও কাজের ধরনের কারণে ব্যবসায়ের মুনাফা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পায়।

১৯. প্রতিযোগিতার মধ্যেও উদ্দীপকের ব্যবসাটির সাফল্যের কারণ-

i. গ্রাহকদের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক

ii. আর্থিক ও বৈষয়িক সামর্থ্য

iii. কাজের অভিজ্ঞতা

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

২০. কোন ব্যবসার আয়কর মূলত মালিককে পরিশোধ করতে হয়?

ক. এক মালিকানা খ. সমবায় সমিতি

গ. অংশীদারি ঘ. যৌথমূলধনী কোম্পানি

২১. নিচের কোন ব্যবসার ক্ষেত্রে নিবন্ধন আবশ্যক নয়?

ক. কোম্পানি খ. এক মালিকানা

গ. সমবায় ঘ. যৌথ উদ্যোগ

২২. কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে সংগতি রেখে চলতে পারে?

ক. রাষ্ট্রীয় খ. অংশীদারি

গ. কোম্পানি ঘ. এক মালিকানা

নিচের উদ্দীপকটি পড়ে ২৩ ও ২৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও:

মিসেস সানজিদা একটি বুটিক প্রতিষ্ঠানের মালিক। তিনি কাপড়ে খুব সুন্দর করে নকশা তৈরি করতে পারেন। তার সাফল্য দেখে অনেকেই তার ডিজাইন তৈরি করছে। ফলে তিনি এখন প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হচ্ছেন।

২৩. মিসেস সানজিদার সাফল্যের মূল কারণ কোনটি?

ক. একক সিদ্ধান্ত

খ. একচেটিয়া ব্যবসা

গ. ব্যক্তিগত নৈপুণ্য

ঘ. স্বাধীনভাবে কর্ম পরিচালনা

২৪. প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য মিসেস সানজিদার করণীয় হলো-

i. পণ্যের উৎকর্ষতা বৃদ্ধি

ii. নতুন বিক্রয়কেন্দ্র স্থাপন

iii. বিজ্ঞাপন কার্যক্রম গ্রহণ

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

নিচের উদ্দীপকটি পড়ে ২৫ ও ২৬ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও:

কবিরের দুজন কর্মীসহ শহরে একটি মুরগির দোকান আছে। তার দোকানটি এলাকায় খুবই প্রসিদ্ধ। সম্প্রতি একটি রেস্টুরেন্ট সেখানে চালু করা হয়েছে। ফলে তার ব্যবসায়ের সুযোগ বৃদ্ধি পেয়েছে। 

২৫. কবিরের মুরগির দোকান ভালোই চলছে। কারণ-

i. তার দোকানের সাজসজ্জা সুন্দর

ii. সে নিজেই ব্যবসাটি চালায়

iii. তার ব্যবসায়ের অবস্থান ভালো

নিচের কোনটি সঠিক?

ক. i ও ii খ. i ও iii

গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii

২৬. এক মালিকানা ব্যবসার কোন সুবিধাটি কবিরের সফলতায় অবদান রেখেছে?

ক. অধিক মূলধন খ. ঝুঁকি

গ. দ্রুত সিদ্ধান্ত ঘ. নিশ্চিত স্থায়িত্ব

২৭. নিচের কোনটি এক মালিকানা ব্যবসায়?

ক. নেসলে খ. গ্রামীণ ফোন

গ. আরামিট সিমেন্ট লি. ঘ. হক জুয়েলার্স

উত্তর: ১৯. গ, ২০. ক, ২১. ক, ২২. ঘ, ২৩. গ, ২৪. ঘ, ২৫. গ, ২৬. গ, ২৭. ঘ।

 

সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান , ব্যবস্থাপনা বিভাগ, মাইলস্টোন কলেজ, ঢাকা

 

কলি 

ও লেভেল পরীক্ষার Speech Writing

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৫ এএম
ও লেভেল পরীক্ষার Speech Writing

Speech Writing

Today we are going to discuss about speech writing.

You also can structure your speech in the following way:
a) Directly address the reader or audience:
- Introduce the topic and your point of view
- Use personal and inclusive pronouns to involve your audience, e.g., “you” or “we” 
- Engage your audience using a rhetorical question
b) Your next paragraph should develop your argument:
- You will need to infer information, ideas and opinions from the reading texts to do this
c) Provide an anecdote to offer an example which proves your argument:
- This builds rapport with your reader by engaging with them on a personal level
- Again, this should be based on what you have read 
d) Engage the reader on a personal level using a counter-argument:
- Again, this should be based on and developed from the ideas in the reading texts
e) Offer more research or studies:
- This can be in the form of statistics, a witness statement, poll or quote from an expert, based on the reading texts
f) End your speech with an emotive plea:
- Use emotive language to engage your reader
- Ending your response on a single sentence, perhaps using a triplet, is an effective conclusion
Example 1
Write a speech to be delivered in the school assembly as Suhana/Sohan from Orange Leaf International School emphasizing the importance of cleanliness and implying that the level of cleanliness represents the character of its   residents. (150-200 words)
“Cleanliness is next to godliness,” said the great John Wesley.
Hello, respected principal, instructors and good friends. Today, I, Suhana/Sohan, stand in front of you all to emphasize the significance of cleanliness.
Cleanliness is the condition or attribute of being or remaining clean. Everyone must learn about cleaning, hygiene, sanitation and the different diseases that are produced by unsanitary circumstances. It is essential for physical well-being and the maintenance of a healthy atmosphere at home and at school. A filthy atmosphere invites a large number of mosquitos to grow and spread dangerous diseases. On the other side, poor personal cleanliness causes a variety of skin disorders as well as lowered immunity.
Habits formed at a young age become ingrained in one’s personality. Even if we teach our children to wash their hands before and after meals, brush their teeth and bathe on a regular basis, we are unconcerned about keeping public places clean. Moreover, cleanliness is next to godliness. There are countless benefits of cleanliness. Did you know that the simple action of washing hands with water and soap reduces the chances of diarrheal diseases by up to 50%! In fact, the major cause of foodborne diseases is contaminated hands. There are many more potentially dangerous conditions that can be prevented and cured by proper hygiene. From our restrooms and other rooms in the house and workplace, clothes, study table to dining table, cleanliness is crucial everywhere. 
Good health ensures a healthy mind, which leads to better overall productivity, higher living standards and economic development. It will improve India’s international standing. As a result, a clean environment is a green environment with fewer illnesses. Thus, cleanliness is defined as a symbol of mental purity.
Thank you very much.

লেখক: Assistant Teacher
English Language, O Level
Bangladesh International School & College
Mohakhali, DOHS, Dhaka

জাহ্নবী

এইচএসসির সমাজকর্ম দ্বিতীয় পত্রের জ্ঞানমূলক প্রশ্নোত্তর

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৮ এএম
এইচএসসির সমাজকর্ম দ্বিতীয় পত্রের জ্ঞানমূলক প্রশ্নোত্তর

প্রথম অধ্যায়
মৌলিক মানবিক চাহিদা

জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর
প্রশ্ন: ‘Common Human Needs’ গ্রন্থের লেখক কে?
উত্তর: ‘Common Human Needs’ গ্রন্থের লেখক Charlotte Towle.
প্রশ্ন: জীবন রক্ষার জন্য কোন মৌল মানবিক চাহিদার প্রয়োজন?
উত্তর: জীবন রক্ষার জন্য মৌল মানবিক চাহিদা খাদ্যের প্রয়োজন। 
প্রশ্ন: মানবসভ্যতার ধারক ও বাহক কী?
উত্তর: মানবসভ্যতার ধারক ও বাহক হলো বস্ত্র। 
প্রশ্ন: সমাজবিজ্ঞানী Towle-এর মতে  মৌলিক মানবিক চাহিদা কয়টি?
উত্তর: সমাজবিজ্ঞানী Towle-এর মতে মৌলিক মানবিক চাহিদা ছয়টি। 
প্রশ্ন: মৌল মানবিক চাহিদার সংজ্ঞা দাও। 
উত্তর: মানুষ হিসেবে সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপনের জন্য যেসব গুরুত্বপূর্ণ চাহিদা পূরণ করা অপরিহার্য, সেসব চাহিদাকেই মৌল মানবিক চাহিদা বলে। 
প্রশ্ন: কোন চাহিদাকে সভ্যতার প্রতীক বলা হয়?
উত্তর: বস্ত্রকে সভ্যতার প্রতীক বলা হয়। 
প্রশ্ন: মৌলিক মানবিক চাহিদা মূলত কত প্রকার?
উত্তর: মৌলিক মানবিক চাহিদা মূলত দুই প্রকার। 
প্রশ্ন: সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদের সামাজিক নিরাপত্তার কথা উল্লেখ আছে?
উত্তর: বাংলাদেশের সংবিধানের ১৫ নম্বর অনুচ্ছেদের (ঘ) তে সামাজিক নিরাপত্তার কথা উল্লেখ আছে। 
প্রশ্ন: কোন চাহিদা চিরন্তন ও সর্বজনীন?
উত্তর: মৌলিক চাহিদা চিরন্তন ও সর্বজনীন। 
প্রশ্ন: শিক্ষা প্রধানত কয় ধরনের?
উত্তর: শিক্ষা প্রধানত দুই ধরনের। 
প্রশ্ন: শিক্ষার প্রধান ধরন দুটি কী কী?
উত্তর: শিক্ষার প্রধান ধরন দুটি হচ্ছে অসংগঠিত বা অনানুষ্ঠানিক এবং সংগঠিত বা আনুষ্ঠানিক। 
প্রশ্ন: বর্তমানে শিক্ষা বলতে কোন ধরনের শিক্ষাকে বোঝানো হয়?
উত্তর: বর্তমানে শিক্ষা বলতে আনুষ্ঠানিক শিক্ষাকে বোঝানো হয়। 
প্রশ্ন: অন্যান্য প্রাণী থেকে মানুষের শ্রেষ্ঠত্বের কারণ কী?
উত্তর: অন্যান্য প্রাণী থেকে মানুষের শ্রেষ্ঠত্বের কারণ হচ্ছে শিক্ষা। 
প্রশ্ন: মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান কততম?
উত্তর: মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৩তম।

লেখক: প্রভাষক, সমাজকর্ম বিভাগ
শের-ই-বাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

জাহ্নবী

নবম শ্রেণি: নতুন পাঠ্যক্রম- ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৬ এএম
নবম শ্রেণি: নতুন পাঠ্যক্রম- ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান

প্রথম অধ্যায়: প্রকৃতি ও সমাজ অনুসন্ধান

দলীয় কাজ-২-এর নমুনা উত্তর
চিত্রা দল
অনুসন্ধানের বিষয়: আমাদের এলাকার সামাজিক উপাদানের পরিবর্তন বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে অনুসন্ধান।
অনুসন্ধানের উদ্দেশ্য: পটুয়াখালী জেলার অন্তর্গত গলাচিপা উপজেলায় গত ৩০ বছরে সংঘটিত সামাজিক উপাদানের পরিবর্তন নির্ণয়।
হাইপোথিসিস বা অনুমান: গলাচিপা এলাকার সামাজিক উপাদানের পরিবর্তন হয়েছে।
তথ্যের উৎস: আমার এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাসকারী কমপক্ষে ৪০ বছর বয়সের পুরুষ ও নারীদের তথ্যদাতা হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে।
তথ্য সংগ্রহ পদ্ধতি: বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অনুসরণ করে গলাচিপা এলাকায় গত ৩০ বছরে সংঘটিত সামাজিক উপাদানের পরিবর্তন যাচাই করব। এজন্য কমপক্ষে ৪০ বছর বয়স্ক ২০ জন নারী ও পুরুষের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। কারণ ৩০ বছর আগের অবস্থার পরিবর্তন নির্ণয় করতে হলে তথ্যদাতার বয়স কমপক্ষে ৪০ বছর বা তার চেয়ে বেশি হওয়া প্রয়োজন। আমার এলাকার সামাজিক উপাদানের পরিবর্তন উপলব্ধি করার জন্য একটি প্রশ্নমালা তৈরি করা হয়েছে। তথ্য সংগ্রহের জন্য তথ্যদাতার কাছ থেকে সম্মতি নেওয়া হয়েছে।
ছক: তথ্য সংগ্রহের আগে করণীয়

লেখক: সিনিয়র শিক্ষক
শের-ই-বাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মধুবাগ, মগবাজার, ঢাকা

জাহ্নবী

এইচএসসির ইংরেজি প্রথম পত্রের STORY WRITING

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৩ এএম
এইচএসসির ইংরেজি প্রথম পত্রের STORY WRITING

Question No. 8

STORY WRITING

A King and Astrologer
There was a king in India. He was fond of knowing his future from the astrologers. One day an astrologer happened to visit the capital. The king came to learn about the name and fame of the astrologer. He at once invited the astrologer to the court. The king asked him about his future. He told the king something unpleasant. At this the king got furious and condemned him to death. When the astrologer was being taken to the place of execution, the king asked him. ‘How long would you live?’
“I’ll die only week before your death” replied the astrologer with a ready wit. “I'll receive your majesty where you are sending me” he cleverly added.
At this reply, the king turned pale like a dead man and shouted, ‘Drive this wretch away and let him not come here again.’
‘So good bye’ said the astrologer promptly. Thus, he managed to escape from the king’s wrath. 

The Grocer and the Fruit seller
One day a grocer borrowed a balance and weights from a fruit seller. After a few days, the fruit seller asked the grocer to return his balance and weights to him. The grocer said, ‘The mice ate away your balance and weights. I am sorry that I can’t return them to you.’ The lame excuse of the dishonest grocer made the fruit seller very angry. But he controlled his temper and said, ‘Never mind. I can’t blame you. It’s my bad luck.’ The grocer thought to himself, ‘The illiterate fruit seller is a great fool.’ Then one day, the fruit seller said to the grocer, ‘I am going to the town to do some shopping. Please send your son with me to carry my thongs. We will come back tomorrow.’ So the grocer sent his son with the fruit seller. The next day the fruit seller came back alone from the town. ‘Where is my son?’ asked the grocer. ‘A crow carried your son away’ replied the fruit seller. ‘You liar. How can a crow carry away such a big boy?’ the grocer shouted angrily. ‘Just the same way as mice can eat away the balance and weights,’ said the fruit seller. The grocer understood the point He returned the balance and weights to the fruit seller and told him with tearful eyes, ‘I wronged you greatly by lying to you about your weight and balance. I will give them back to you. Please pardon me and give me back my son.’ Then the fruit seller sent the boy back to his father.
An Honest Farmer
Once there lived a poor farmer who worked very hard to maintain his big family. But he hardly managed two square meals a day. One day while working in the field he found a basket. He picked it up and carried it home. His wife became very pleased to see it. She thought the basket must contain some valuable things. By selling those things, they could overcome their poverty and enjoy happy days. But the farmer was an honest man. He was not at all interested to use anything inside the basket. His wife opened it and found thousand taka in a paper packet covered with some ragged clothes. She told the farmer to use all the money for themselves. The farmer was in a great problem. However, he announced in the market that a basket was found by him. The real owner could take it from him showing/proving his/her real identity. At last the owner was found. He gave the farmer ten thousand taka being very pleased with him. With the money the farmer started a business. In course of time, he became a rich man. His poverty disappeared and he became a happy man. Thus, his honesty was rewarded.

লেখক: সহযোগী অধ্যাপক, ইংরেজি বিভাগ
আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা

জাহ্নবী

পঞ্চম শ্রেণির বাংলার শখের মৃৎশিল্পের প্রশ্নোত্তর

প্রকাশ: ০৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৯ এএম
পঞ্চম শ্রেণির বাংলার শখের মৃৎশিল্পের প্রশ্নোত্তর

প্রবন্ধ: শখের মৃৎশিল্প

প্রশ্ন: শখের মৃৎশিল্প প্রবন্ধের মূলভাব লেখ।
উত্তর: মাটির তৈরি শিল্পকর্মকে বলা হয় মাটির শিল্প বা মৃৎশিল্প। বাংলাদেশের প্রাচীন শিল্পকলার পরিচয় পাওয়া যায় এই মাটির শিল্পে। মৃৎশিল্প আমাদের এ দেশের নিজস্ব শিল্প।  বৈশাখী মেলায় কিংবা নানা পার্বণে বিভিন্ন মেলায় মাটির তৈরি নানা রকম পুতুল, নকশা করা হাঁড়ি, মাটির তৈরি ফল, তৈজসপত্র বিক্রি করতে দেখা যায়। মাটির তৈরি এসব জিনিসই মৃৎশিল্প। গ্রামের কুমাররা নিপুণভাবে এসব তৈরি করেন। প্রাচীনকাল থেকে এ দেশে মৃৎশিল্পের চর্চা হচ্ছে। ময়নামতির শালবন বিহার, বগুড়ার মহাস্থানগড়, বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদে দেখা যায় পোড়ামাটির ফলক। পোড়ামাটির এসব ফলককে বলা হয় টেরাকোটা। মাটির শিল্প আমাদের বাংলাদেশের ঐতিহ্য।
প্রশ্ন: নিচের শব্দগুলোর অর্থ লেখ।
শখ, টেপাপুতুল, নকশা, শালবন বিহার, টেরাকোটা, মৃৎশিল্প, শখের হাঁড়ি
উত্তর: প্রদত্ত শব্দ --- অর্থ 
শখ----রুচি, মনের ইচ্ছা।
টেপাপুতুল----কুমাররা নরম এঁটেল মাটির চাক হাতে নিয়ে টিপে টিপে নানা ধরন ও আকারের পুতুল তৈরি করে। টিপে টিপে তৈরি করা হয় বলে এসব পুতুলের নাম টেপাপুতুল। তবে এসব মাটির পুতুলের হাত-পা বা জোড়াগুলো একটু ভেজা ভেজা মাটি দিয়ে যত্ন করে লাগাতে হয়।
নকশা---রেখা দিয়ে আঁকা ছবি।
শালবন বিহার----কুমিল্লার ময়নামতিতে মাটি খুঁড়ে আবিষ্কৃত হয়েছে প্রাচীন বৌদ্ধ সভ্যতার নানা নিদর্শন। এ রকম একটি নিদর্শনই হচ্ছে শালবন বিহার। শালবন বিহারেও পাওয়া গেছে নানা ধরনের পোড়ামাটির ফলক।
টেরাকোটা----‘টেরা’ অর্থ মাটি আর ‘কোটা’ অর্থ পোড়ানো। পোড়ামাটির তৈরি মানুষের ব্যবহারের সব রকমের জিনিস টেরাকোটা হিসেবে পরিচিত।
মৃৎশিল্প---মাটির তৈরি শিল্পকর্মকে আমরা বলি মাটির শিল্প বা মৃৎশিল্প।
শখের হাঁড়ি---পছন্দের জিনিস শখ করে যে সুন্দর হাঁড়িতে রাখা হয়, তার নাম শখের হাঁড়ি।
প্রশ্ন: নিচের শব্দগুলো খালি জায়গায় বসিয়ে বাক্য তৈরি করো।
নকশা, শখ, মৃৎশিল্প, টেপাপুতুল
ক) এই যে ..... দেখছ, এসবই গ্রামের শিল্পীদের তৈরি।
খ) মাটির পুতুল জমানো আমার একটি .......।
গ) মাটির তৈরি শিল্পকর্মকে.......... বলে।
ঘ) আমরা মেলা থেকে অনেক .......... কিনলাম।
উত্তর: ঘরের ভেতরে শব্দগুলো খালি জায়গায় বসিয়ে বাক্য তৈরি করা হলো-
ক) এই যে নকশা দেখছ, এসবই গ্রামের শিল্পীদের তৈরি।
খ) মাটির পুতুল জমানো আমার একটি শখ।
গ) মাটির তৈরি শিল্পকর্মকে মৃৎশিল্প বলে।
ঘ) আমরা মেলা থেকে অনেক টেপাপুতুল কিনলাম।
প্রশ্ন: মাটির শিল্প বলতে কী বোঝায়?
উত্তর: কোনো কিছু যখন সুন্দর করে আঁকা হয়, সুন্দর করে তৈরি করা হয় তখন তা হয়ে ওঠে শিল্প। আর শিল্পের এই কাজ বা সৌন্দর্যকে বলা হয় শিল্পকলা। আমাদের বাংলাদেশে অনেক রকম শিল্পকলা রয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে প্রাচীন ও অন্যতম হলো মাটির শিল্প। মাটি দিয়ে তৈরি এই শিল্পকর্মের মধ্যে রয়েছে মাটির কলস, হাঁড়ি, বাসনকোসন, পেয়ালা, সুরাই, মটকা, জালা, পিঠা তৈরির ছাঁচ ইত্যাদি। এই শিল্পের প্রধান উপকরণ হলো মাটি। আর এই শিল্পের প্রধান শিল্পী হলো আমাদের কুমার সম্প্রদায়। কুমার সম্প্রদায়ের হাতের নৈপুণ্য ও কারিগরি জ্ঞানের মাধ্যমে মাটি দিয়ে তৈরি শিল্পকর্মকে মাটির শিল্প বলা হয়। মাটির শিল্পের আরেক নাম হলো মৃৎশিল্প।

লেখক: সহকারী শিক্ষক
ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ 
বসুন্ধরা শাখা, ঢাকা

জাহ্নবী