ঢাকা ২ বৈশাখ ১৪৩১, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
Khaborer Kagoj

জেন্ডার সংবেদনশীল প্রতিবেদন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল পুরস্কার পেলেন ৫ সাংবাদিক

প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৫২ এএম
ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল পুরস্কার পেলেন ৫ সাংবাদিক
ছবি : সংগৃহীত

জেন্ডার সংবেদনশীল সেরা রাজনৈতিক প্রতিবেদনের জন্য সংবাদপত্র, অনলাইন ও টেলিভিশনের পাঁচজন সাংবাদিককে পুরস্কার দিয়েছে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল। পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন, কামরুন নাহার সুমি (নিউ এজ), ফারহানা তাহের তিথি (দৈনিক খবরের কাগজ), ইসমাইল হোসেন রাসেল (জাগোনিউজ২৪ডটকম), আব্দুল হালিম আদিত্য রিমন (ঢাকাপোস্টডটকম) ও আতোয়ার হোসেন (নাগরিক টিভি)। 

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেল ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যশনাল আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ডেপুটি চিফ (প্রোগ্রামস) আমিনুল এহসান, ডেপুটি চিফ অব পার্টি লেসলি রিচার্ডস, সিনিয়র ডিরেক্টর লিপিকা বিশ্বাস এবং সিনিয়র প্রোগ্রাম স্পেশালিস্ট রীতা দাস।

ইউএসএআইডি অর্থায়নে স্ট্রেনদেনিং পলিটিক্যাল ল্যান্ডস্কেপ (এসপিএল) প্রকল্পের আওতায় ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল ঢাকার বিভিন্ন মিডিয়ার ২৩ জন সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে জেন্ডার সংবেদনশীল রাজনৈতিক প্রতিবেদন তৈরির উপর দুই ধাপে আবাসিক প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করে। ২০২৩ এর নভেম্বর থেকে ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অংশগ্রহণকারীদের প্রকাশিত ও প্রচারিত প্রতিবেদন মূল্যায়ন করে এই স্বীকৃতি দিলো ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল। 

রাজনীতিতে নারীর প্রতিনিধিত্বের গুরুত্ব এবং নারীদের মিডিয়া চিত্রায়নের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলার উপায় নিয়ে মিডিয়া কর্মীদের সংবেদনশীল করার জন্য সাংবাদিকদের জন্য ‘জেন্ডার সংবেদনশীল রাজনৈতিক প্রতিবেদন’ বিষয়ে দু'টি ব্যাচে প্রশিক্ষণের আয়োজন করে সংগঠনটি। প্রশিক্ষণে প্রধান তিন দলের রাজনীতিকসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন সেশন পরিচালনা করেন। যাতে বিদ্যমান লিঙ্গ বৈষম্য, সামাজিকীকরণ প্রক্রিয়া, নারীর রাজনৈতিক অংশগ্রহণে বৈষম্য, গণমাধ্যমে নারী রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের উপস্থাপন, সংবেদনশীল ভাষার ব্যবহার, নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের আইনি কাঠামোসহ বিভিন্ন বিষয়বস্তুর উপর বিশদ আলোচনা হয়। 

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে সমাপনী প্রশিক্ষণে সেরা প্রতিবেদনের পুরস্কার ও সনদ তুলে দেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের এসপিএল প্রকল্পের চিফ অব পার্টি ডানা এল. ওল্ডস। এসময় তিনি গণমাধ্যমে রাজনৈতিক ইস্যুতে নারীদের যথাযথ উপস্থাপনের মাধ্যমে তুলে ধরতে এবং ইতিবাচক মনোভাব তৈরির জন্য চতুর্থ এস্টেট হিসাবে গণমাধ্যমের শক্তির উপর জোর দেন।

ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের পক্ষ থেকে পুরস্কারপ্রাপ্তদের জেন্ডার-সংবেদনশীল রাজনৈতিক প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য অভিনন্দন জানিয়ে আশা প্রকাশ করা হয়, দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার মাধ্যমে গণতন্ত্র ও অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে তারা তাদের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখবেন।

তিথি/এমএ/ 

দুস্থদের ইফতার বিতরণ ঢাকাস্থ রাজশাহী বিভাগ সাংবাদিক সমিতির

প্রকাশ: ৩১ মার্চ ২০২৪, ১২:৪৩ এএম
দুস্থদের ইফতার বিতরণ ঢাকাস্থ রাজশাহী বিভাগ সাংবাদিক সমিতির
ছবি : সংগৃহীত

ঢাকায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত রাজশাহী বিভাগের আটটি জেলার সাংবাদিকদের সংগঠন রাজশাহী বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকা দুস্থদের মধ্যে ইফতারসামগ্রী বিতরণ করেছে। 

শনিবার (৩০ মার্চ) ঢাকার সেগুনবাগিচা এলাকায় সংগঠনের নেতারা ইফতার বিতরণ করেন। এসময় শতাধিক অসহায় ও দুস্থদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে রাজশাহী বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকার সভাপতি মুজিবুর রহমান চৌধুরীর সভাতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক দীপক দেবের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাজ্জাদ আলম খান তপু সহ সংগঠনের নেতারা।

এরপর ঢাকায় কর্মরত রাজশাহী বিভাগের আট জেলার সাংবাদিকদের নিয়ে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ খায়রুজ্জামান কামাল, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সাজ্জাদ আলম খান তপু, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক কামরুজ্জামান কামরুল, পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার জয়িতা শিল্পী, জাতীয় প্রেসক্লাবের নির্বাহী পরিষদের সদস্য শাহনাজ সিদ্দিকী সোমা, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক সাঈফ আলী, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাবেক সভাপতি দীপু সরোয়ার, সিরাজগঞ্জ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকার সাধারণ সম্পাদক কাউসার আজম, রাজশাহী বিভাগীয় সাংবাদিক সমিতি, ঢাকার যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, প্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ইসহাক আসিফ প্রমুখ।

রিয়াজ/এমএ/

ঈদের আগে গণমাধ্যমকর্মীদের বেতন বোনাস ও বকেয়া পরিশোধের দাবি

প্রকাশ: ২৭ মার্চ ২০২৪, ০৭:২৩ পিএম
ঈদের আগে গণমাধ্যমকর্মীদের বেতন বোনাস ও বকেয়া পরিশোধের দাবি
ছবি : সংগৃহীত

ঈদের আগে গণমাধ্যমকর্মীদের বকেয়া বেতন ও বোনাস পরিশোধের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)।

বুধবার (২৭ মার্চ) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে অনুষ্ঠিত বিএফইউজে নির্বাহী পরিষদের সভায় এ দাবি জানানো হয়। 

বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব কাদের গনি চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সহসভাপতি ওবায়দুর রহমান শাহীন, সহসভাপতি এ কে এম মহসিন ও মুহাম্মদ খায়রুল বাশার, সহকারী মহাসচিব বাছির জামাল, কোষাধ্যক্ষ শহীদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এরফানুল হক নাহিদ, দপ্তর সম্পাদক আবু বকর এবং প্রচার সম্পাদক হয়েছেন শাহজাহান সাজু,নির্বাহী সদস্য শাহীন হাসনাত, মোদাব্বের হোসেন, অর্পণা রায়, মুহাম্মদ আবু হানিফ, ম হামিদুল হক মানিক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম, খুরশীদ আলম, মুন্সীগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাজী বিপ্লব হাসান ও সাংবাদিক ইউনিয়ন ময়মনসিংহের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম।

সভার এক প্রস্তাবে দেশে সাংবাদিক নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার গভীর উদ্বেগ প্রকাশ এবং সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধ কার্যকর প্রদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানানো হয়। সভায় গতকাল মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) ফেনীতে সাংবাদিকদের ওপর হামলার নিন্দা জানান তারা। একইসঙ্গে হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি জানানো হয়। 

এ ছাড়া সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্টকে গণমাধ্যমের স্বাধীনতাবিরোধী ‘কালাকানুন’ উল্লেখ করে সভায় বলা হয়, বিশ্বঘৃণিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নাম বদলে সাইবার নিরাপত্তা আইন নাম দেওয়া হয়েছে। সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্টেও নিবর্তনমূলক উপাদানগুলো রয়েই গেছে। আগের মতোই বাকস্বাধীনতা, ভিন্নমতের স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ‘ব্যাপকভাবে খর্ব’ করার সুযোগ নতুন আইনেও রাখা হয়েছে।

বিশেষ করে এই আইনে পুলিশকে বিনা পরোয়ানায় তল্লাশি ও গ্রেপ্তারের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। এখানে পুলিশ কর্মকর্তার ‘মনে করার ওপর’ নির্ভর করতে হচ্ছে। কারণ, পুলিশ কর্মকর্তা যদি মনে করেন, প্রস্তাবিত আইনের অধীনে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে তাহলে তিনি বিনা পরোয়ানায় তল্লাশি করতে পারবেন এবং প্রয়োজনে গ্রেপ্তারও করতে পারবেন। এটি ভয়ংকর আশঙ্কা তৈরি করছে। ফলে নতুন এই আইনের মাধ্যমেও মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিস্তর সুযোগ রয়ে গেছে। একইসঙ্গে এ আইনের মাধ্যমে ডিজিটাল মাধ্যম থেকে তথ্য-উপাত্ত অপসারণ বা ব্লক করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষমতাও দেওয়া হয়েছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে।

সভায় সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্টসহ গণমাধ্যমের স্বাধীনতাবিরোধী সব কালাকানুন বাতিল, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনীসহ সাংবাদিক হত্যার বিচার, আমার দেশ, দিনকাল, চ্যানেল ওয়ান, দিগন্ত টেলিভিশন, ইসলামিক টেলিভিশনসহ বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

এনাম/সালমান/

স্বাধীনতা দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সাংবাদিকদের শ্রদ্ধা

প্রকাশ: ২৬ মার্চ ২০২৪, ০৫:২৮ পিএম
স্বাধীনতা দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সাংবাদিকদের শ্রদ্ধা
ছবি : সংগৃহীত

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে জাতীয় প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সকাল সাড়ে ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাব কমপ্লেক্সের নিচতলায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে তারা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। 

কর্মসূচির শুরুতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন ও সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্তের নেতৃত্বে ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে), ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে), বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র, বঙ্গবন্ধু সাংবাদিক পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক কমান্ড, ঢাকা সাংবাদিক পরিবার বহুমুখী সমবায় সমিতি লি., বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির (বাচসাস), ঢাকাস্থ গোপালগঞ্জ সাংবাদিক সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে নেতৃবৃন্দরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। 

এ সময় বিএফইউজে সভাপতি ওমর ফারুক, মহাসচিব দীপ আজাদ, ডিইউজের সভাপতি সোহেল হায়দার চৌধুরী ও সাজ্জাদ আলম খান তপু, সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মিয়া, কোষাধ্যক্ষ সোহেলী চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মুজতবা ধ্রুব, দপ্তর সম্পাদক জান্নতুল ফেরদৌস সোহেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

এ ছাড়া স্বাধীনতা দিবসে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে মুক্তিযুদ্ধের বীর শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) ও বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ। সকালে ডিআরইউয়ের সভাপতি সৈয়দ শুকুর আলী শুভ ও সাধারণ সম্পাদকের মহিউদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংগঠনটির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা। 

পরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কামরুজ্জামান খান ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ওই সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মুক্তিযুদ্ধের বীর শহিদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। 

এলিস/সালমান/

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ১০ সাংবাদিককে বহিষ্কারের নিন্দা বিএফইউজের

প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০২৪, ১০:২২ পিএম
ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ১০ সাংবাদিককে বহিষ্কারের নিন্দা বিএফইউজের
ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে সাংবাদিক সমিতির কমিটি গঠন করায় ১০ জন বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিককে সাময়িক বহিষ্কারের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে। 

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে অনুষ্ঠিত বিএফইউজে নির্বাহী পরিষদের সভায় এ সিদ্ধান্তকে হটকারি উল্লেখ করে ১০ সাংবাদিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত বাতিল এবং ক্যাম্পাসে সাংবাদিকরা যাতে নির্বিঘ্নে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে পারে সেজন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়।

সভায় সাংবাদিক নেতারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে মুক্তবুদ্ধি চর্চার কেন্দ্র। এখানে ছাত্র-ছাত্রীরা শুধু লেখাপড়ার জন্য নয়, শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে লেখাপড়া ও গবেষণা করে প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে তারা দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করে আসছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যেখানে ক্যাম্পাসে সাংবাদিক সমিতি গঠনে উৎসাহ দিয়ে আসছে সেখানে ডিআইইউ কর্তৃপক্ষের এমন হটকারি সিদ্ধান্ত আমাদের বিস্মিত করেছে।

বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব কাদের গনি চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে সিনিয়র সহসভাপতি ওবায়দুর রহমান শাহীন, সহসভাপতি এ কে এম মহসিন ও মুহাম্মদ খায়রুল বাশার, সহকারী মহাসচিব বাছির জামাল, কোষাধ্যক্ষ শহীদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এরফানুল হক নাহিদ, দপ্তর সম্পাদক আবু বকর এবং প্রচার সম্পাদক হয়েছেন শাহজাহান সাজু, নির্বাচিত নির্বাহী সদস্য শাহীন হাসনাত, মোদাব্বের হোসেন, অর্পণা রায়, মুহাম্মদ আবু হানিফ, ম হামিদুল হক মানিক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।

সভায় বলা হয়, ২০২০ সাল থেকে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি সাংবাদিক সমিতি বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা কার্যক্রমসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ অনিয়ম, দুর্নীতি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জেরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাংবাদিক সমিতির সদস্যদের ওপর বিক্ষুব্ধ হয়ে বহিষ্কার আদেশ দিয়েছে বলে সভা মনে করছে। সভায় সাংবাদিক সমিতির কাউকে কোন কারণ দর্শানোর নোটিশ না দিয়ে সাংবাদিক সমিতির কার্যক্রম বন্ধ এবং ১০ সাংবাদিককে বহিস্কারের সিদ্ধান্তকে 'নোংরামি' উল্লেখ করে বলা হয়, সাংবাদিক সমাজ এসিদ্ধান্ত মেনে নেবে না। দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কলম ও কণ্ঠরোধ করার উদ্দেশ্যেই ডিআইইউর এমন বহিষ্কারাদেশ বলে সভায় সাংবাদিক নেতারা মত প্রকাশ করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ডিইউজে নির্বাচন সমান ভোট পেয়ে সোহেল-তপু সভাপতি, আকতার সম্পাদক

প্রকাশ: ১২ মার্চ ২০২৪, ১২:১৭ এএম
সমান ভোট পেয়ে সোহেল-তপু সভাপতি, আকতার সম্পাদক
ছবি : খবরের কাগজ

জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সোমবার (১১ মার্চ) ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নির্বাচনে সভাপতি পদে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর সমান ৮১২ ভোট করে পেয়েছেন সোহেল হায়দার চৌধুরী ও  সাজ্জাদ আলম খান তপু। তারা দুজনেই এক বছর করে দায়িত্ব পালন করবেন।

লটারির মাধ্যমে তাদের দায়িত্ব বণ্টন হয়। প্রথম এক বছর দায়িত্ব পালন করবেন সোহেল হায়দার চৌধুরী। পরের বছর দায়িত্ব পালন করবেন সাজ্জাদ আলম খান তপু।

এদিকে দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন আকতার হোসেন। তিনি পেয়েছেন ৬৩৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এ জিহাদুর রহমান জিহাদ পেয়েছেন ৫৯২ ভোট।

দ্বিবার্ষিক এই নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ২ হাজার ৮৩৭ জন। ভোট  পড়েছে ১ হাজার ৮৩১টি।

২১ সদস্যের নির্বাহী কমিটিতে মোট ৭৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বিজয়ী অন্যরা হলেন-সিনিয়র সহসভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু (৭৪১ ভোট), সহসভাপতি ইব্রাহীম খলিল খোকন (৫২৩ ভোট), যুগ্ম সম্পাদক মো. শাহজাহান মিঞা (৫১৪), কোষাধ্যক্ষ সোহেলী চৌধুরী (৫৫০), সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মুজতবা ধ্রুব (৯৪৭), আইনবিষয়ক সম্পাদক আসাদুর রহমান (৮৭৬), প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মদ মামুন শেখ (৭৪৮), দপ্তর সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী (৭১৭), কল্যাণ সম্পাদক  শাহজাহান স্বপন (৭১৮), ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক দুলাল খান (৫৭৪), নারীবিষয়ক সম্পাদক সুমি খান (৬০৭)।

সদস্য পদে নির্বাচিত ৮ জন হলেন-জি এম মাসুদ ঢালী ৭৪১, নাসরিন গীতি ৬৯৪, এ এম শাহজাহান মিয়া ৬৪৭, আনোয়ার সাদাত সবুজ ৫৪৬, সাজেদা হক ৫২৯, আহমেদ মুশফিকা নাজনিন ৫০৯, রারজানা সুলতানা ৫০৩, অনজন রহমান ৪৮৮ ভোট।