ঢাকা ১০ আষাঢ় ১৪৩১, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

চাকরির প্রত্যাশায় পাঠের প্রতিযোগিতা

প্রকাশ: ১৫ মে ২০২৪, ১০:৩০ এএম
আপডেট: ১৫ মে ২০২৪, ০২:৪২ পিএম
চাকরির প্রত্যাশায় পাঠের প্রতিযোগিতা
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগারে প্রবেশের জন্য শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ সারি। ছবি : খবরের কাগজ

পড়ালেখা শেষ করে সবাই ছুটছে সরকারি চাকরির পেছনে। আর এটা সবচেয়ে বেশি বোঝা যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে গেলে। সকাল ৭টা থেকেই শুরু হয়ে যায় লাইনে দাঁড়ানোর প্রতিযোগিতা। প্রথমে শুধু ব্যাগ রেখে জায়গা রাখা হয়। ঠিক ৮টায় লাইব্রেরির গেট খুলে দেওয়া হয়…সারি বেঁধে সুশৃঙ্খলভাবে শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরির ভেতরে প্রবেশ করেন…তবে বিসিএস পরীক্ষার আগে এই লাইন শুরু হয় ভোর ৬টা থেকে, লাইনও থাকে অনেক দীর্ঘ।    

সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে সকালের প্রতিদিনের দৃশ্য দেখে অনেকেই অবাক হতে পারেন, কিন্তু এটাই বাস্তবতা। বাংলাদেশে সরকারি চাকরি সবার অতি কাঙ্ক্ষিত। এ জন্য কঠিন এক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হয়। কিন্তু চাকরিপ্রত্যাশীদের নিয়মিত পড়াশোনার জন্য নেই পর্যাপ্ত লাইব্রেরি। অন্যদিকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে পড়ে আছে পাবলিক লাইব্রেরি, এমনকি বিজনেস ফ্যাকাল্টির একমাত্র লাইব্রেরিও বন্ধ করে রাখা হয়েছে, আর এসব চাপ এসে পড়েছে সেন্ট্রাল লাইব্রেরির ওপর।   

সাবেকদের কারণে লাইব্রেরিতে জায়গা পান না বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীরা। চাইলেও পড়ালেখা করার জন্য লাইব্রেরিতে জায়গা হয় না, আর সব কিছু বিবেচনা করেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে শিক্ষার্থীদের পাঞ্চ কার্ডের মাধ্যমে প্রবেশ করানোর উদ্যোগ  নেওয়া হচ্ছে। এটি বাস্তাবায়ন হলে ছাত্রত্ব শেষ হওয়ার পরও যারা গ্রন্থাগারে পড়তে যান, বিশেষ করে বিভিন্ন চাকরি ও বিসিএস প্রস্তুতির জন্য পড়তে যাওয়ারা গ্রন্থাগারে প্রবেশ করতে পারবেন না। আগামী বছর থেকেই এই নিয়ম চালু হবে। ১০মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালের দেওয়া এমন ঘোষণায় বেশ শঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনরা, যারা নিয়মিত লাইব্রেরিতে চাকরির পড়ালেখা করেন। অন্যদিকে পাঞ্চ কার্ডে বর্তমান শিক্ষার্থীরা সুবিধা পেলেও সাবেকরাও যাতে বিপদে না পড়েন সে ব্যবস্থা নেওয়ার আশা ব্যক্ত করেন তারা। 

শফিকুল ইসলাম, ঢাবির সমাজকল্যাণ গবেষণা বিভাগের একজন শিক্ষার্থী। তিনি বলেন, ‘পাঞ্চ কার্ড কার্যকর হলে ভালো হবে কিন্তু আসলেই হবে কি না সেটাই বড় কথা। কারণ আগেও এমন উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। নতুন ভিসি এসে বলেন, কিন্তু বাস্তবায়ন হয় না। পাঞ্চ কার্ড চালু হলে প্রাক্তনরা লাইব্রেরিতে আসতে পারবেন না, সেক্ষেত্রে তাদের জন্য আলাদা একটা জায়গা নির্ধারণ করা উচিত। মাস্টার্স বা অনার্স শেষের দিকে সবাই চাকরির পড়া শুরু করেন। সেক্ষেত্রে তাদের কোথাও পড়ার সুযোগ না দিলে তারা পড়বেন কোথায়। সেটাও বিবেচনায় নিতে হবে।’

সাব্বির হোসেন স্বাধীন, ঢাবির বিজনেস ফ্যাকাল্টির একজন সাবেক ছাত্র। তিনি বলেন, ‘হঠাৎ করে ডিসিশন জানিয়ে দিলে তো হবে না, সময় দিতে হবে। লাইব্রেরিতে সাবেক যারা আসেন তাদের সংখ্যাও অনেক। তাই সময় নিয়ে যদি প্রশাসন তাদের সিদ্ধান্ত জানায় তাহলে ভালো হয়। যারা সরকারি চাকরির জন্য পড়ছেন, তাদের কারণে বর্তমান শিক্ষার্থীরা অনেক সময় একাডেমিক পড়ালেখা করতেও আসতে পারেন না। বিজনেস ফ্যাকাল্টির লাইব্রেরি বন্ধ,পাবলিক লাইব্রেরি বন্ধ, সবাই সেন্ট্রাল লাইব্রেরিতেই আসেন। এখানে চাপ পড়ে প্রচুর। প্রশাসন সিদ্ধান্ত যদি নিতেই চায় তাহলে অন্য লাইব্রেরিগুলো চালু করুক। সব জায়গা বন্ধ হয়ে গেলে চাকরিপ্রত্যাশীরা কোথায় পড়ালেখা করবে?’ 

তৌফিকুর রহমান ইসলামিক হিস্ট্রি অ্যান্ড কালচার ডিপার্টমেন্টে পড়াশোনা করছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘পাঞ্চ কার্ডের ব্যবস্থা করলে অবশ্যই রানিং স্টুডেন্টদের জন্য ভালো হয়, তারা এসেই লাইব্রেরিতে বসতে পারবেন, পড়ালেখা করতে পারবেন। কিন্তু এর বিপরীতেও কথা আছে। বিশ্ববিদ্যালয় একজন ছাত্রকে হলে সিট দেয় সেকেন্ড ইয়ার বা থার্ড ইয়ারে গিয়ে। আবার একাডেমিক পড়া শেষ হওয়ার পরেই হল ছেড়ে দিতে হবে, লাইব্রেরি ব্যবহার করতে পারবে না, এটা কেমন যুক্তি। তাহলে ফার্স্ট ইয়ার থেকেই হলে সিটের ব্যবস্থা করুক। সেটা তো করছে না। আগে চিন্তা করতে হবে দেশের সার্বিক কাঠামো কেমন। এখানে শিক্ষার্থীদের স্বপ্নই থাকে একটা সরকারি চাকরি, এর জন্য একাডেমিক পড়ালেখা কাজে আসে না। সেক্ষেত্রে লাইব্রেরিতে তো সবাই এসে চাকরির পড়াই পড়বে। উদ্যোগ ভালো, বর্তমান শিক্ষার্থীরা অনেকেই লাভবান হবেন, কিন্তু সাবেক ছাত্ররা যে সময় প্রতিকূলতার ভেতর দিয়ে পার করেছেন, সেই সময় বিবেচনা করেও তাদের জন্য মিনিমাম দুই বছরের জন্য একটা কার্ডের ব্যবস্থা করে দেওয়া উচিত যাতে একাডেমিক পড়ালেখা শেষ হলেও তারা যেন লাইব্রেরিতে এসে পড়তে পারেন।’ 

ঢাবির দর্শন বিভাগের ছাত্র আব্দুল আলীম বলেন, ‘অনেকে আছেন যারা ঢাবিরও না, তারাও হলে থাকেন, লাইব্রেরিতে পড়েন। আবার যারা রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তারাও দীর্ঘসময় হলে থাকেন। সেক্ষেত্রে নতুনদের জন্য সমস্যা তৈরি হয়।’

কারিতাস বাংলাদেশে চাকরি

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১৪ পিএম
আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১৬ পিএম
কারিতাস বাংলাদেশে চাকরি

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কারিতাস বাংলাদেশ জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। সংস্থাটি কক্সবাজারে ‘ইমার্জেন্সি রেসপন্স টু দ্য ফোরসিভলি ডিসপ্লেসড পিপল অব মিয়ানমার ইন বাংলাদেশ’ প্রকল্পে ম্যানেজার-শেল্টার পদে কর্মী নিয়োগ দেবে। আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

পদের নাম: ম্যানেজার-শেল্টার

পদসংখ্যা:

যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা: স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক/স্নাতকোত্তর ডিগ্রি থাকতে হবে। কোনো সংস্থায় শেল্টার সেক্টরে ম্যানেজার বা সমপদে অন্তত পাঁচ বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। কক্সবাজারে রোহিঙ্গা রেসপন্স প্রোগ্রামে শেল্টার ম্যানেজার পদে কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এমএস অফিস অ্যাপ্লিকেশনের কাজ জানতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। সাংগঠনিক দক্ষতা থাকতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৪৫ বছর

চাকরির ধরন: চুক্তিভিত্তিক

কর্মস্থল: উখিয়া, কক্সবাজার

বেতন: ১,১০,০০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)।

আবেদন যেভাবে
আগ্রহী প্রার্থীদের কারিতাস বাংলাদেশের ওয়েবসাইটের এই https://caritasbd.org/career/job-career/ লিংকে গিয়ে নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জেনে আবেদন করতে হবে।

কারিগরি সহযোগিতায় [email protected] ঠিকানায় ই-মেইলে যোগাযোগ করা যাবে।

আবেদনের শেষ তারিখ: ২৫ জুন ২০২৪।

 কলি

 

গোল্ডেন হারভেস্টে বড় নিয়োগ

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১১ পিএম
আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১১ পিএম
গোল্ডেন হারভেস্টে বড় নিয়োগ

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে গোল্ডেন হারভেস্ট ইনফোটেক লিমিটেডে (জিএইচআইটিএল)। ‘ডেটা এন্ট্রি অপারেটর’ পদে ৪০০ জনকে নিয়োগ দেবে প্রতিষ্ঠানটি। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন আগামী ১৩ জুলাই পর্যন্ত।

পদের নাম: ডেটা এন্ট্রি অপারেটর

পদসংখ্যা: ৪০০

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/ডিপ্লোমা ডিগ্রি থাকলে ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে আবেদন করা যাবে

অন্যান্য যোগ্যতা: বেসিক ইংরেজি, দ্রুত টাইপিংসহ কম্পিউটারের প্রাথমিক জ্ঞান থাকতে হবে।

অভিজ্ঞতা: প্রযোজ্য নয়।

আবেদনের বয়স: ১৮ থেকে ৩৫ বছর

প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ

কর্মস্থল: রাজধানী ঢাকার (মহাখালী)

বেতন: ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে বেতন আলোচনা সাপেক্ষে নির্ধারণ করা হবে।

অন্যান্য সুবিধা: বেতনের পাশাপাশি অন্যান্য সুবিধার মধ্যে বছরে দুটি উৎসব ভাতা ছাড়া ডেটা এন্ট্রি অপারেটর পদে চাকরি পেলে বিভিন্ন সুবিধা পাবেন। এ ছাড়া প্রশিক্ষণের সময় পাঁচ মাসের জন্য ‘প্যাকেজ অ্যালাউন্স’ বাবদ কিছু সুবিধা পাবেন।

যেভাবে আবেদন
আগ্রহী প্রার্থীদের https://jobs.bdjobs.com/bn/jobdetailsbn.asp?id=1262958&fcatId=61&ln=1 লিংকে গিয়ে নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জেনে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের শেষ সময়: ১৩ জুলাই, ২০২৪।

কলি

স্কয়ার গ্রুপে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০৬ পিএম
আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০৬ পিএম
স্কয়ার গ্রুপে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ

স্কয়ার গ্রুপের স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। প্রতিষ্ঠানটির মার্কেটিং বিভাগ ‘ব্র্যান্ড ম্যানেজার’ পদে জনবল নিয়োগ দেবে। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত।

শিক্ষাগত যোগ্যতা
যেকোনো স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বিবিএ/এমবিএ ডিগ্রি থাকতে হবে। মার্কেটিংয়ে বিবিএ/এমবিএ থাকলে ভালো।

অভিজ্ঞতা
সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে কমপক্ষে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে অগ্রাধিকার মিলবে।

আবেদনের বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩০ বছর

বেতন
আলোচনা সাপেক্ষে নির্ধারণ করা হবে।

যেভাবে আবেদন করবেন
আগ্রহীরা আবেদন করতে ও বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে https://hotjobs.bdjobs.com/jobs/sq.toiletries/sq.toiletries284.htm ভিজিট করুন।

 কলি

 

উত্তরা ব্যাংক নেবে প্রবেশনারি অফিসার

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০৪ পিএম
আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:২০ পিএম
উত্তরা ব্যাংক নেবে প্রবেশনারি অফিসার

দেশের অন্যতম বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক উত্তরা ব্যাংক পিএলসিতে ‘প্রবেশনারি অফিসার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা ৩০ জুন পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের হার্ড কপি গ্রহণ করা হবে না।

পদের বিবরণ
শিক্ষাগত যোগ্যতা: বাংলাদেশের যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি পাস হতে হবে। একাডেমিক সব পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণি অথবা জিপিএ-৫-এর মধ্যে ৪ থাকতে হবে।

বেতন: প্রথম বছর প্রবেশন বা প্রশিক্ষণ পিরিয়ড চলবে। এ সময় মাসে বেতন হবে ৪০ হাজার টাকা। প্রবেশনারী অফিসার শেষে সিনিয়র অফিসার হওয়ার সুযোগ থাকবে।

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ

কর্মস্থল: যেকোনো স্থান

বয়স: আগ্রহী প্রার্থীদের বয়স ৩০ জুন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে।

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহী প্রার্থীরা উত্তরা ব্যাংক পিএলসির https://www.uttarabank-bd.com/home/career মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। বিস্তারিত https://www.uttarabank-bd.com/downloads/Jobs/CO_PO_2024.pdf এই লিংকে প্রবেশ করে জানতে পারবেন।

 কলি

 

বিআইডব্লিউটিএতে নিয়োগ

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০১ পিএম
আপডেট: ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০১ পিএম
বিআইডব্লিউটিএতে নিয়োগ

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) একটি প্রকল্পে ‘অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের বাংলাদেশ আঞ্চলিক অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন প্রকল্প-১ (বিআরডব্লিউটিপি-১)-এর আওতায় এ নিয়োগ দেওয়া হবে। নারী-পুরুষ যে কেউ এ পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা
ন্যূনতম এইচএসসি/সমমান পাস থাকলে ‘অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর’ পদের আবেদন করা যাবে। কর্মক্ষেত্রে কমপক্ষে দুই বছরের কাজ করার বাস্তব অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। প্রার্থীকে অবশ্যই প্রতি মিনিটে বাংলায় ৩০ অক্ষর ও ইংরেজিতে ৩০ অক্ষর টাইপ করার যোগ্যতা থাকতে হবে।

আবেদনপত্র সংগ্রহ
আগ্রহী প্রার্থীদের বিআইডব্লিউটিএর চাকরির আবেদন ফরম্যাটে আবেদন করতে হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা আবেদনের নমুনা বিআইডব্লিউটিএর ওয়েবসাইট (www.biwta.gov.bd) থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

আবেদনের ঠিকানা
প্রকল্প পরিচালক, বিআরডব্লিউটিপি-১ প্রকল্প, বিএসসি টাওয়ার (১৯ তলা)।

আবেদন ফি
আবেদনপত্রের সঙ্গে বিআরডব্লিউটিপি-১ প্রকল্প বরাবর ১০০ টাকার পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট সংযুক্ত করতে হবে।

আবেদনের শেষ সময়
আগামী ৩০ জুলাই বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

 কলি