ঢাকা ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Khaborer Kagoj

এসএসসি পরীক্ষা: বাংলা প্রথম পত্র

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:৫৭ এএম
এসএসসি পরীক্ষা: বাংলা প্রথম পত্র
প্রবন্ধ: একাত্তরের দিনগুলি
 
বহু নির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর
৩৩। ‘কথিকা’ অর্থ কী?
(ক) কথোপকথন
(খ) কথামালা
(গ) ক্ষুদ্র পরিসরে বর্ণনাত্মক রচনা (ঘ) ছোট কবিতা
৩৪। জাহানারা ইমাম মাছ খাওয়া বাদ দিয়েছিলেন কেন?
(ক) মাছের দাম বেড়ে গিয়েছিলেন বলে
(খ) মাছে ফরমালিন মেশানো হতো বলে
(গ) নদীতে মানুষের লাশ ভাসছিল বলে
(ঘ) পাকিস্তান থেকে আমদানি হতো বলে
৩৫। ‘গেরিলা বাহিনী’ কোন তাৎপর্য বহন করে?
(ক) প্রকাশ্যে হামলা
(খ) রাতের বেলা হামলা
(গ) কৌশলে শত্রু হনন
(খ) বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি
৩৬। স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রে কথিকা পাঠ করতেন কে?
(ক) রাজু আহমেদ
(খ) জয় লাল রায়
(গ) আলী যাকের
(ঘ) কামরুল হাসান
৩৭। ‘একাত্তরের দিনগুলি’ রচনায় অধিকতর কী স্পষ্ট হয়ে উঠেছে?
(ক) পাকিস্তানি বাহিনীর হত্যাযজ্ঞ 
(খ) মায়ের আত্মমর্যাদা
(গ) মুক্তিযুদ্ধের চেতনা
(ঘ) গেরিলা তৎপরতা
৩৮। জাহানারা ইমাম ‘শহিদ জননী’ হিসেবে পরিচিত। কারণ- 
i. যুদ্ধে অবদান রাখার জন্য  
ii. যুদ্ধে তার সন্তানের মৃত্যুর জন্য
  iii. সন্তানের আদর্শকে রক্ষার জন্য
নিচের কোনটি ঠিক?
(ক) i ও ii    (খ) i ও iii (গ) ii ও iii    (ঘ) i, ii ও iii 
৩৯। ‘একাত্তরের দিনগুলি’ রচনায় করিম এলিফ্যান্ট রোড ছেড়ে শান্তিনগর যেতে চাইছিল কেন?
(ক) বাড়ি ভাড়া বেড়ে যাওয়ায়
(খ) ভালো বাসা পেয়ে যাওয়ায়
(গ) নিরাপত্তাজনিত কারণে
(ঘ) পারিবারিক কারণে
উত্তর: ৩৩। গ ৩৪। গ ৩৫। গ ৩৬। ঘ ৩৭। খ ৩৮। গ ৩৯। গ।
 
লেখক: 
সিনিয়র শিক্ষক, বাংলা
আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা
 
জাহ্নবী

২০২৪ সালের এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর: বাংলা প্রথম পত্র

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৪০ পিএম
অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর: বাংলা প্রথম পত্র

গল্প
মাসি-পিসি

অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর
প্রশ্ন-১. কৈলাশ কী কারণে গোপন কথা আহ্লাদিকে শুনিয়ে শুনিয়ে বলে, তা ব্যাখ্যা করো। 
উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পে স্বামী জগুর বিষয়ে আগ্রহী করে তুলতে কৈলাশ গোপন কথা আহ্লাদিকে শুনিয়ে শুনিয়ে বলেছিল। জগু তার সঙ্গী কৈলাশকে মাসি-পিসির কাছে পাঠায়। সে বিভিন্নভাবে মাসি-পিসিকে বোঝাতে চেষ্টা করে যেন আহ্লাদিকে তারা স্বামীর কাছে পাঠিয়ে দেয়। তা না হলে জগু এবার মামলা করবে বলে কৈলাশ জানিয়ে দেয়। এসব গোপন কথা সে জোরে জোরে বলে, যাতে আহ্লাদি তা শুনতে পায় এবং স্বামীর বাড়িতে যাওয়ার জন্য মনস্থির করতে পারে। তাই বলা যায়, স্বামীর প্রতি আগ্রহী করে তুলতে এবং ভয় দেখাতেই কৈলাশ গোপন কথা আহ্লাদিকে শুনিয়ে শুনিয়ে বলেছিল।

প্রশ্ন-২. হাতে টাকা এলে কৈলাশের স্বভাব কীভাবে পাল্টায়, তা ব্যাখ্যা করো?
উত্তর: হাতে টাকা এলে কৈলাশের স্বভাব পাল্টায়, কারণ সে মাদকাসক্ত এবং বিভিন্ন বাজে নেশায় যুক্ত। হাতে টাকা এলে কৈলাশ মদ পান করতে যায়। কৈলাশ শ্রমজীবী মানুষ। শ্রমের বিনিময়ে টাকা আয় করে। কখনো যদি হাতে দুটো বেশি টাকা আসে, তখন কৈলাশের মতিগতি ঠিক থাকে না। একজন শ্রমিক আয় বুঝে যেভাবে ব্যয় করে, কৈলাশ তখন সেটা ভুলে যায়। বাড়তি টাকার কোনো সদ্ব্যবহার না করে মদ পানের জন্য টাকা খরচ করে। গ্রাম্য ও বন্য স্বভাবের কারণে কৈলাশের বদনাম ছিল, সেটা মাসি-পিসি আগে থেকেই জানত বলে পিসি তাকে খোঁচা দেয়।

প্রশ্ন-৩. আহ্লাদিকে দেখে যে কারণে বুড়ো রহমানের চোখ ছলছল করে তা ব্যাখ্যা করো?
উত্তর: আহ্লাদিকে দেখে তার নিজের মেয়ের পরিণতির কথা মনে হওয়ায় বুড়ো রহমানের চোখ ছলছল করে। আহ্লাদির চেয়ে বয়সে ছোট মেয়েটাকে রহমান বিয়ে দিয়েছিল। অবুঝ মেয়েটি শ্বশুরবাড়ি না যাওয়ার জন্য খুব কেঁদেছিল। কিন্তু তার ভালোর জন্যই তাকে জোর করে শ্বশুরবাড়ি পাঠায় রহমান। সেখানে গিয়ে অল্পদিন পরেই শ্বশুরবাড়ির লোকদের অত্যাচারে মেয়েটি মারা যায়। একই সমস্যার শিকার আহ্লাদিকে দেখে মেয়ের কথা মনে হওয়ায় বুড়ো রহমানের চোখ ছলছল করে। বিষয়টিতে অসহায় পিতার করুণ কান্না যেন গুমড়ে উঠেছে।

প্রশ্ন-৪. বুড়ো রহমান খড়ের আঁটি তুলে দেওয়ার ফাঁকে ফাঁকে আহ্লাদির দিকে তাকায় যে কারণে, তা ব্যাখ্যা করো।
উত্তর: আহ্লাদির ফ্যাকাশে মুখে নিজের মেয়ের মুখের ছাপ দেখতে পায় বলে বুড়ো রহমান খড়ের আঁটি তুলে দেওয়ার ফাঁকে ফাঁকে আহ্লাদির দিকে তাকায়। আহ্লাদির মতো বুড়ো রহমানের মেয়েও শ্বশুরবাড়িতে নির্যাতনের শিকার। সেও শ্বশুরবাড়িতে ফেরত যেতে চায়নি, কিন্তু তাকে ফেরত পাঠানো হয় এবং শ্বশুরবাড়িতেই তার মৃত্যু হয়। তাই রহমান যখন কৈলাশ ও মাসি-পিসির মধ্যে আহ্লাদির অত্যাচারী স্বামীর বাড়িতে ফিরে যাওয়া প্রসঙ্গে কথোপকথন শোনে, তখন সে আহ্লাদির ফ্যাকাশে মুখে তার মেয়ের মুখের ছাপ দেখতে পায়। তাই বারবার সে আহ্লাদির দিকে তাকায় এবং তার নিজের মেয়ের কথা মনে পড়ে যায়। মৃত মেয়ের প্রতি মমত্ববোধ থেকেই রহমানের এমন অনুভূতি জাগ্রত হয়।

প্রশ্ন-৫. ‘সোয়ামি নিতে চাইলে বৌকে আটকে রাখা আইনে নেই’ ব্যাখ্যা করো।
উত্তর: মাসি-পিসিকে ভয় দেখিয়ে আহ্লাদিকে স্বামী জগুর কাছে পাঠানোর কৌশল হিসেবে কৈলাশ এ উক্তি করেছে। আহ্লাদি স্বামীর বাড়িতে প্রতিনিয়ত নির্যাতিত হতো। স্বামীর নির্যাতনে তার মৃত্যুর আশঙ্কায় মাসি-পিসি তাকে শ্বশুরবাড়ি না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। অন্যদিকে স্বামী জগুর লোভ ছিল স্ত্রীর সম্পত্তির প্রতি। এ সম্পত্তির লোভে সে স্ত্রীকে ফিরে পেতে চায়। তাই সে কৈলাশকে দিয়ে মাসি-পিসিকে মামলার ভয় দেখায়। মামলা করলে মাসি-পিসির জেল হবে বলে কৈলাশ জানায়। পুরো বিষয়টি ছিল মাসি-পিসিকে ভয় দেখানোর জন্য।

প্রশ্ন-৬. মাসি-পিসি খালি ঘরে আহ্লাদিকে রেখে যেতে সাহস পায় না কেন?
উত্তর: আহ্লাদির নিরাপত্তার কথা ভেবে মাসি-পিসি খালি ঘরে তাকে রেখে যেতে সাহস পায় না। স্বামী জগুর অত্যাচার থেকে বাঁচার জন্য আহ্লাদি বাবার বাড়ি চলে আসে এবং মাসি-পিসির কাছে আশ্রয় নেয়। কিন্তু এখানেও তার নিরাপত্তা ছিল না। গ্রামের জোতদার, দারোগা ও গুণ্ডা-বদমাশদের লালসার দৃষ্টি পড়ে তার ওপর। তাই মাসি ও পিসি আহ্লাদিকে ঘরে একা রেখে কোথাও যাওয়ার সাহস করে না। কোথাও যেতে হলে তারা আহ্লাদিকে সঙ্গে করে নিয়ে যায়। গ্রামে নারীর কোনো নিরাপত্তা ছিল না। গোকুল মাতব্বর যখন-তখন যেকোনো নারীর দিকে চোখ দিলে সে আর রক্ষা পেত না। তাই মাসি-পিসি আহ্লাদিকে সঙ্গে সঙ্গে রাখত। 

প্রশ্ন-৭. ‘মরণ ঠেকাতেই ফুরিয়ে আসছে তাদের জীবনীশক্তি।’ উক্তিটি ব্যাখ্যা করো।
উত্তর: এ উক্তিটিতে দুর্ভিক্ষের সময় মাসি-পিসির জীবন-সংগ্রামের দিকটি প্রতিফলিত হয়েছে। ‘মাসি-পিসি’ গল্পে দুর্ভিক্ষের সময় খাদ্যের অভাব তীব্র হয়ে ওঠে। তার মধ্যে জগুর লাথির চোটে নির্যাতিত আহ্লাদি বাবার বাড়ি এসে হাজির হয়। খেয়ে না খেয়ে মাসি-পিসি আহ্লাদিকে সুস্থ করার চেষ্টা করে। কিন্তু আহ্লাদির অবস্থা আরও খারাপের দিকে যায়, কারণ কলেরায় তার বাবা-মা-ভাই মারা যায়। অন্যদিকে, চারপাশের মানুষ না খেয়ে মরতে শুরু করে। ফলে জীবন বাঁচাতে মাসি-পিসিকে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। মাসি-পিসির মতো যারা সে যাত্রায় বেঁচে যায়, তাদের অবস্থা বোঝাতেই প্রশ্নোক্ত কথাটি বলা হয়েছে। দুর্ভিক্ষের নিদারুণ করুণ পরিস্থিতি এখানে উপজীব্য হয়েছে।

প্রশ্ন-৮. মাসি-পিসির মধ্যকার বিরোধ দূর হয়েছিল কীভাবে, ব্যাখ্যা করো।
উত্তর: জীবন-সংগ্রামে একসঙ্গে রোজগার করতে গিয়ে মাসি-পিসির মধ্যকার সব বিরোধ দূর হয়েছিল। মাসি-পিসির মধ্যে আগেও সুসম্পর্ক ছিল। কিন্তু পিসির বাপের বাড়িতে মাসি আশ্রয় নেওয়ায় মাসির  প্রতি পিসির অবজ্ঞা ও অবহেলার ভাব ছিল। পিসি মাঝে মাঝে মাসিকে খোঁচা দিলে ঝগড়া বেঁধে যেত। দুর্ভিক্ষের পর গ্রামের শাকসবজি নিয়ে শহরে গিয়ে বেচে রোজগারের চেষ্টা শুরু করার পর থেকে তাদের দুজনের একমন একপ্রাণ হয়ে যায়। আর আহ্লাদির দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পর তাদের মধ্যকার বিরোধও উবে যায়। একদিকে দুর্ভিক্ষ এবং অন্যদিকে আহ্লাদির প্রতি দায়িত্বশীল হওয়ায় মাসি-পিসি মধ্যকার সব বিরোধ দুর হয়ে যায়।

প্রশ্ন-৯. ‘মাসি-পিসি’ গল্পে জগুর বৌ নিয়ে যাওয়ার জন্য এত আগ্রহের কারণ ব্যাখ্যা করো। 
উত্তর: আহ্লাদির বাপের জমিজমার লোভে জগু বউ নিয়ে যাওয়ার জন্য এত আগ্রহ দেখায়। দুর্ভিক্ষের সময় আহ্লাদির বাবা-মা ও ভাই মারা যায়। এতে বাপের ঘর-বাড়ি ও জমিজমার মালিক হয় আহ্লাদি। আহ্লাদিকে নিলে জগু তার জমিজমার মালিক হতে পারবে। আর এ লোভেই সে আহ্লাদিকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে খুব আগ্রহী ছিল। শ্বশুরের সম্পত্তির প্রতি লোভ থেকেই জগু কৈলাশকে দিয়ে মাসি-পিসিকে জানায় সে এখন ভালো হয়ে গেছে এবং বৌ নিয়ে সংসার করতে চায়।

প্রশ্ন-১০. ‘মরবে তোমরা জানো মাসি, জানো পিসি, মারা পড়বে তোমরা একেবারে।’ উক্তিটি ব্যাখ্যা করো।
উত্তর: মাসি-পিসিকে মামলা ও জেলের ভয় দেখিয়ে আহ্লাদিকে স্বামী জগুর কাছে পাঠানোর কৌশল হিসেবে কৈলাশ উক্তিটি করেছে। স্বামীর বাড়িতে আহ্লাদির নির্যাতনের সীমা ছিল না। স্বামীর নির্যাতনে তার মৃত্যুর আশঙ্কায় মাসি-পিসি তাকে শ্বশুরবাড়িতে না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। কলকে পোড়া ছ্যাঁকা, না খাইয়ে রাখায় আহ্লাদি মর-মর হয়ে বাবার বাড়ি ফেরে। স্বামী জগুর লোভ ছিল স্ত্রীর সম্পত্তির প্রতি। এ সম্পত্তির জন্য স্ত্রীকে ফিরে পেতে সে কৈলাশকে দিয়ে মাসি-পিসিকে মামলার ভয় দেখিয়েছে। মামলা করলে নাকি এবার মাসি-পিসি মারা পড়বে। এসব ভয় দেখিয়েও মাসি-পিসিকে দমিয়ে রাখা যায়নি। জগুর অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়।

লেখক: প্রভাষক, বাংলা বিভাগ, 
আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা

জাহ্নবী

 

 

এইচএসসি পরীক্ষার লেখাপড়া: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৩৬ পিএম
এইচএসসি পরীক্ষার লেখাপড়া: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
তৃতীয় অধ্যায়
সংখ্যা পদ্ধতি ও ডিজিটাল ডিভাইস
 
বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর
১৩. নিচের কোনটি MSD-এর পূর্ণরূপ?
ক. Metric System Digit
খ. More Significant Digit
গ. Most Significant Digit
ঘ. Most Suitable Digit
১৪. নিচের কোনটি LSD-এর পূর্ণরূপ?
ক. Large Significant Digit
খ. Least Significant Digit
গ. Least Significant Development
ঘ. Large Significant Decoded
১৫. সংখ্যা পদ্ধতিকে উপস্থাপন বা প্রকাশের পদ্ধতির ওপর ভিত্তি করে কত ভাগে ভাগ করা যায়?
ক. ২ খ. ৩
গ. ৪ ঘ. ৫
১৬. দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে কয়টি অঙ্ক আছে?
ক. ২টি খ. ১০টি
গ. ১৬টি ঘ. অসংখ্য
১৭. দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে কয়টি সংখ্যা আছে?
ক. ২টি খ. ১০টি 
গ. ১৬টি ঘ. অসংখ্য 
১৮. অকটাল সংখ্যা পদ্ধতির বেইজ বা ভিত্তি কত?
ক. ২ খ. ৮
গ. ১০ ঘ. ১৬
১৯. কোন সংখ্যা পদ্ধতিতে ব্যবহৃত মোট প্রতীক বা অঙ্ককে কী বলে?
ক. সংখ্যা পদ্ধতি খ. রেডিক্স
গ. বেইজ বা ভিত্তি ঘ. রেঞ্জ
২০. দশমিক সংখ্যা ১২-এর বাইনারি মান কত?
ক. ১০১০ খ. ১১০১
গ. ১১০০ ঘ. ১১১১
২১. বাইনারি সংখ্যার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য- 
i. এটি সাধারণ মানুষের বোধগম্যের বাইরে
ii. এটি কম্পিউটারের বোধগম্য
iii. এটি কমপিউটারের সমস্ত হিসাব-নিকাশের ভিত্তি
নিচের কোনটি সঠিক?
ক. i ও ii খ. i ও iii
গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii
২২. বাইনারি ১১১১-এর দশমিক মান কোনটি?
ক. ৩ খ. ৫
গ. ৭ ঘ. ১৫
২৩. (২৫)১০ -এর বাইনারি সংখ্যা হলো-
ক. ১১০০১ খ. ১১০১০
গ. ১১০১১০ ঘ. ১০১০১০
২৪. অকটাল সংখ্যা তৈরি করার জন্য একটি বাইনারি সংখ্যাকে-
i. প্রতি তিনটি বিট একত্রে নিয়ে ছোট ছোট ভাগ করতে হয়
ii. ডান দিক থেকে তিনটি করে বিট সাজিয়ে বাঁ দিকে আসতে হয় পূর্ণ সংখ্যার ক্ষেত্রে 
iii. বাঁ দিক হতে তিনটি করে বিট সাজিয়ে ডান দিকে আসতে হয় ভগ্নাংশের ক্ষেত্রে
নিচের কোনটি সঠিক?
ক. i ও ii খ. i ও iii
গ. ii ও iii ঘ. i, ii ও iii
২৫. বাইনারি ১০১১-এর দশমিক মান কোনটি?
ক. ৩ খ. ৫
গ. ১১ ঘ. ১৫
উত্তর: ১৩. গ, ১৪. খ, ১৫. ক, ১৬. খ, ১৭. ঘ, ১৮. খ, ১৯. গ, ২০. গ, ২১. ঘ, ২২. ঘ, ২৩. ক, ২৪. ঘ, ২৫. গ।
 
লেখক: 
সহকারী অধ্যাপক
রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ, ঢাকা
 
জাহ্নবী

এসএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি: রসায়ন

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৩৪ পিএম
এসএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি: রসায়ন
অধ্যায়-৫
রাসায়নিক বন্ধন
 
১৬। কপার তার কোনটির জন্য বিদ্যুৎ সুপরিবাহী?
(ক) মুক্ত ইলেকট্রন  (খ) ধনাত্মক আধান
(গ) কঠিন 
(ঘ) আয়নিক যৌগ
১৭। নিচের কোন যৌগে অষ্টক নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটে?
  (i) BF3  
(ii) Al2O3
(iii) BeCl2
নিচের কোনটি সঠিক?
(ক) i ও ii (খ) ii ও iii 
(গ) i ও iii (ঘ) i, ii ও iii 
১৮।   Cl2 এ-
(i) সমযোজী বন্ধন বিদ্যমান
  (ii) উভয় পরমাণু দুটি করে ইলেকট্রন শেয়ার করে
(iii) উভয় পরমাণু আর্গনের ইলেকট্রন বিন্যাস লাভ করে 
নিচের কোনটি সঠিক ?
(ক) i ও ii (খ) i ও iii 
(গ) ii ও iii (ঘ) i, ii ও iii
১৯। ৩য় পর্যায়ের গ্রুপ-১৬-এর মৌলটি গঠন করে-
(i) আয়নিক বন্ধন  
(ii) সমযোজী বন্ধন  
(iii) ধাতব বন্ধন
নিচের কোনটি সঠিক?
(ক) i ও ii (খ) ii ও iii 
(গ) i ও iii (ঘ) i, ii ও iii
২০। NH2Cl যৌগে কী ধরনের বন্ধন বিদ্যমান? 
(i) সমযোজী  
(ii) আয়নিক 
(iii) সন্নিবেশ সমযোজী
নিচের কোনটি সঠিক ?
(ক) i ও ii (খ) i ও iii 
(গ) ii ও iii (ঘ) i, ii ও iii
নিচের উদ্দীপকের আলোকে ২১ ও ২২ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও:
A,  Si,  Q,  Z, Cl
[এখানে A, Q ও Z প্রচলিত প্রতীক নয়]
২১। Z মৌলের ভরসংখ্যা-
(ক) ১৬      (খ) ৩১       
(গ) ৩২      (ঘ) ৪০
২২। উদ্দীপকের ক্ষেত্রে-
(i) A মৌলের আয়নিকরণ শক্তি Q অপেক্ষা বেশি
  ii) Q অপেক্ষা Z মৌলের যোজনী ইলেকট্রন বেশি
(iii) Z অপেক্ষা Q-এর তড়িৎ ঋণাত্মকতা কম
নিচের কোনটি সঠিক?
(ক) i ও ii  
(খ) i ও iii 
(গ) ii ও iii
(ঘ) i, ii ও iii
নিচের উদ্দীপকের আলোকে ২৩ ও ২৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও:
১, ৬, ৭ ও ৮ পারমাণবিক সংখ্যা বিশিষ্ট মৌলসমুহ একে অপরের সঙ্গে বিভিন্নভাবে বন্ধন গঠন করে।
২৩। দ্বিতীয় ও চতুর্থ মৌলদ্বয় যৌগ তৈরি করলে নিচের কোন বন্ধন গঠিত হয়?
(ক) একক সমযোজী (খ) আয়নিক 
(গ) ধাতব বন্ধন 
(ঘ) দ্বিবন্ধন
২৪। প্রথম ও তৃতীয় মৌলদ্বয়ের মাধ্যমে গঠিত যৌগে মুক্ত জোড় ইলেকট্রন সংখ্যা কতটি?
(ক) ১ (খ) ২          
(গ) ৩          (ঘ) ৪
উত্তর: ১৬. ক, ১৭. গ, ১৮. খ, ১৯. ক, ২০. ঘ, ২১. গ, ২২. গ, ২৩. ঘ, ২৪. ক।
 
লেখক: সিনিয়র শিক্ষক, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা
 
জাহ্নবী

পঞ্চম শ্রেণির লেসনভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর: ইংরেজি

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৩২ পিএম
পঞ্চম শ্রেণির লেসনভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর: ইংরেজি

Unit-1: Hello!, Lesson-4-5

আজ ইংরেজি বিষয়ের সিন কম্প্রিহেনসনের Unit-1: Hello!, Lesson-4-5-এর dialogue থেকে ৩টি প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে আলোচনা করা হলো।

Read the text and answer the questions 1-4.
Sima and Tamal are in the Town Hall Language Club. They come to the club to practice speaking English. They listen to CDs and watch DVDs in English or speak English with friends. Today there is a new person in the club. He is a young man. He is reading a book about Bangladesh.
Sima: Look, Tamal! Who’s that gentleman? Do you know him?
Tamal: Yes, That’s Andy Smith. He’s working with an NGO here. I met him yesterday at the Bookshop.
Sima: Mat be we can practice our English with him.
Tamal: Good idea. Come, I’ll introduce you to him. Come with me.
1. Match the words in column A with their meanings in column B.

Answer:
(a) Club --- (iii) an association of persons for regular meeting.
(b) Practice --- (vii) do any work regularly.
(c) Watch--- (i) look with attention.
(d) Person--- (v) a human being.
(e) Young--- (vii) being in the first period of growth.
2. Read the following statements, Write ‘True’ for correct statement or ‘False’ for incorrect statement.
(a) Sima and Tamal speak English with friends.
(b) Sima does not know the gentleman.
(c) Both Sima and Tamal practice speaking English.
(d) Tamal knew Andy Smith earlier.
(e) Tamal met the gentleman near the bookshop.
(f) Sima will introduce Tamal to Andy Smith.
Answer: (a) True, (b)True, (c)True, (d) False, (e)True, (f)False.
3. Answer the following questions: 
(i) Where are Sima and Tamal?
(ii) Who is the new person there?
(iii) Write three sentences about what Tamal and Sima do in the Town Hall Language Club.
(iv) Where does Andy work?
(v) Where did Tamal meet the new person?
(vi) Why does Sima want to meet the new person?
Answer: (i) Andy and Tamal are at the Town Hall Language Club.
(ii)The new person is Andy smith.
(iii) Tamal and Sima practice speaking English in the Town Hall Language Club. 
They listen to CDs and watch DVDs in English. The also practice English with friends.
(iv) Andy works with an NGO.
(v) Tamal met the new person at the bookshop.
(vi) Sima wants to meet the new person so that they can practise their English with him.

লেখক: সিনিয়র শিক্ষক
বিএএফ শাহীন কলেজ, কুর্মিটোলা, ঢাকা

জাহ্নবী

এইচএসসির লেসনভিত্তিক প্রশ্ন: ইংরেজি প্রথম পত্র

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:২২ পিএম
এইচএসসির লেসনভিত্তিক প্রশ্ন: ইংরেজি প্রথম পত্র

Unit-2, Lesson-1: Question no. 2 
Unit-3, Lesson-1: Question no. 3


আজ তোমাদের ইংরেজি প্রথম পত্রের Unit-2 & 3, Lesson-1 থেকে দুটি আলাদা passage নিয়ে Question No. 2 (Flow Chart) এবং Question No. 3 (Summary) উত্তরসহ আলোচনা করা হলো।
1. Read the following passage and make a flow chart mentioning the abilities that we gain from education. (No. 1 has been done for you.)


Education gives us knowledge and a set of abilities to function meaningfully in life, such as the ability to decide things rationally and make right choices. As we learn how to read, write and do the basic operations of arithmetic, we gain a degree of self-confidence. We learn to think for ourselves and articulate our thoughts; we pick up skills to communicate with others and manage our affairs well. Education helps us think independently and make our own opinions. As we know more about the world, we appreciate the good things it offers us but also become critical of the deviation from the values it imparts and the rise of hatred or conflicts that follows.

Write a summary of the following text.
Dreams have fascinated philosophers for thousands of years, but only recently have dreams been subjected to empirical research and scientific study. Chances are that you’ve often found yourself puzzling over the content of a dream or perhaps you’ve wondered why you dream at all. First let’s start by answering a basic question: What is a dream? A dream can include any of the images, thoughts and emotions that are experienced during sleep. Dreams can be extraordinarily vivid or very vague; filled with joyful emotions or frightening images; focused and understandable or unclear and confusing. Why do we dream? What purpose do dreams serve? While many theories have been proposed, no consensus has emerged. Considering the time we spend in a dreaming state, the fact that researchers do not yet understand the purpose of dreams may seem baffling. However, it is important to consider that science is still unraveling the exact purpose and function of sleep itself. Some researchers suggest that dreams serve no real purpose, while others believe that dreaming is essential to mental, emotional and physical well-being.

Ans: Dreams have fascinated philosophers for thousands of years; only recently dreams been brought under empirical research and scientific study. A dream can include any of the images, thoughts and emotions that we experience during sleep. Moreover, dreams can be extraordinarily vivid or very vague focused and understandable or unclear and confusing. Though many theories have been proposed, no consensus has emerged: some researchers suggest that dreams serve no real purpose, but others believe that dreaming is essential to mental, emotional and physical well-being.

লেখক: সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় চেয়ারম্যান, ইংরেজি বিভাগ, ঢাকা কমার্স কলেজ, ঢাকা

জাহ্নবী