ঢাকা ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

শব্দ দূষণ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর- ৫ম শ্রেণি

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪৪ পিএম
শব্দ দূষণ কবিতার গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর- ৫ম শ্রেণি

কবিতা: শব্দদূষণ

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর
প্রশ্ন: নিচের শব্দগুলোর অর্থ লিখ ও বাক্য রচনা করো।
উত্তর: নিশি রাত- গভীর রাত/মাঝ রাত। নিশি রাতে চেঁচামেচি করো না, সবাই ঘুমাচ্ছে।
কিচিরমিচির- পাখির ডাকাডাকির আওয়াজ। ভোর বেলাতেই পাখির কিচিরমিচির শুনতে শুনতে আমার ঘুম ভাঙে।
ফেরিওয়ালা - রাস্তায় বা বাড়িতে বাড়িতে ঘুরে যারা জিনিসপত্র বিক্রি করে। ফেরিওয়ালা হাঁক দিচ্ছে- থালাবাসন চাই?
শব্দদূষণ- বেশি কোলাহলে শব্দদূষণ ঘটে। শব্দদূষণে আমাদের কানে শোনার ক্ষমতা কমে যায়।
গরু- গরু খুব উপকারী প্রাণী।
শহর- গ্রামের চেয়ে শহরে শব্দদূষণ অনেক বেশি।
দোয়েল- দোয়েল আমাদের জাতীয় পাখি।
কাক- শহরে কাকের উপদ্রব বেশি।
টিভি- আমাদের ছোট ভাই সুযোগ পেলেই মায়ের চোখ ফাঁকি দিয়ে টিভি দেখতে বসে।
প্রশ্ন: নিচের শব্দগুলো খালি জায়গায় বসিয়ে বাক্য তৈরি করো।
ফেরিওয়ালা, নিশি রাত, শব্দদূষণ, কিচিরমিচির
ক. ........চেঁচামেচি করো না, সবাই ঘুমুচ্ছে।
খ. ভোর বেলাতেই পাখির...... শুনতে শুনতে আমার ঘুম ভাঙে।
গ. ........হাঁক দিচ্ছে- থালাবাসন চাই?
ঘ. .........আমাদের শোনার ক্ষমতা কমিয়ে দেয়।
উত্তর: ঘরের ভেতরে শব্দগুলো খালি জায়গায় বসিয়ে বাক্য তৈরি করা হলো-
ক. নিশিরাত চেঁচামেচি করো না, সবাই ঘুমাচ্ছে।
খ. ভোর বেলাতেই পাখির কিচিরমিচির শুনতে শুনতে আমার ঘুম ভাঙে।
গ. ফেরিওয়ালা হাঁক দিচ্ছে- থালাবাসন চাই?
ঘ. শব্দদূষণ আমাদের শোনার ক্ষমতা কমিয়ে দেয়।
প্রশ্ন: নিচের বাক্যের দাগ দেওয়া শব্দের ক্রিয়াপদের চলতি রূপ লিখ।
(ক) সে রাস্তায় হাঁটিতেছে।
উত্তর: সে রাস্তায় হাঁটছে।
(খ) পাখির ডাক কান পাতিয়া শোন।
উত্তর: পাখির ডাক কান পেতে শোন।
(গ) গরু হাম্বা হাম্বা করে ডাকিতেছে।
উত্তর: গরু হাম্বা হাম্বা করে ডাকছে।
(ঘ) উচ্চ শব্দে টেলিফোন বাজিতেছে।
উত্তর: উচ্চ শব্দে টেলিফোন বাজছে।
(ঙ) পল্লীর সেই সুরে ভরিয়া যায় মন।
উত্তর: পল্লীর সেই সুরে ভরে যায় মন।
(চ) গলিপথে ফেরিওয়ালা হাঁকিতেছে।
উত্তর: গলিপথে ফেরিওয়ালা হাঁকছে।
(ছ) আমি পাখির গান শুনিয়াছি।
উত্তর: আমি পাখির গান শুনেছি।

লেখক: সহকারী শিক্ষক
ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ
বসুন্ধরা শাখা, ঢাকা

জাহ্নবী

ইবাদত অধ্যায়ের শূন্যস্থান পূরণ করো-পর্ব-২, ৫ম শ্রেণি- ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা

প্রকাশ: ২৯ মে ২০২৪, ০৬:২০ পিএম
ইবাদত অধ্যায়ের শূন্যস্থান পূরণ করো-পর্ব-২, ৫ম শ্রেণি- ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা

শূন্যস্থান পূরণ করো 

১৮. মৃত্যু-পরবর্তী -------- বলা হয় আখেরাত।
১৯. আখেরাতের প্রথম ধাপ হলো -----------।
২০. জান্নাত হলো ----------- সুখের স্থান।
২১. আমরা আল্লাহতায়ালার ------ আদায় করব।
২২. শ্বাস ফেলার সময় যে বিষাক্ত বায়ু বের হয় তার নাম -----------।
২৩. শ্বাস নেওয়ার সময় আমরা ------ গ্রহণ করি।
২৪. পানির অপর নাম -----------।
২৫. জলীয়বাষ্প ----------- ভেসে বেড়ায়।
২৬. আলো, বাতাস, পানি সবই -----------।
২৭. অক্সিজেন ছাড়া কোনো জীব------ পারে না।
২৮. আল্লাহ যাকে ইচ্ছা ---- জীবিকা দান করেন।
২৯. আল্লাহ ----------- মাধ্যমে আমাদের প্রতিনিয়ত বিশুদ্ধ পানির জোগান দিয়ে চলেছেন।
৩০. বাসিরুন শব্দের অর্থ -----------।
৩১. সামিউন শব্দের অর্থ সব -----------।
৩২. জুলুম ও অন্যায়কে একজন মুসলিম ------------ করবে। 
৩৩. কাদির শব্দের অর্থ ------------।
৩৪. সর্বশেষ নবীর নাম------------। 
৩৫. ------- চরিত্রে থাকবে আল্লাহতায়ালার ভয়।
৩৬. সৃষ্টিকুলের মধ্যে ----- আল্লাহর কাছে সেরা।
৩৭. সুখে-দুঃখে মহান আল্লাহর ওপর ----- করি।
৩৮. কখনো মিথ্যা সাক্ষ্য দেব না কারণ আল্লাহ সব ------------।
৩৯. যারা আল্লাহ ও রাসুলের কথা মানবে না তাদের অবস্থান হবে -----------।
৪০. ইলাহ শব্দের অর্থ ---।
৪১. আবদ অর্থ অনুগত ---।
৪২. আল্লাহতায়ালার আদেশ-নিষেধ মেনে চলাই ---।
৪৩. ইবাদতে আল্লাহতায়ালা --- হন।
৪৪. ইবাদতের জন্য --- থাকা প্রয়োজন।
৪৫. --- মন শয়তানের কারখানা।
৪৬. --- অবস্থায় কোরআন মজিদ স্পর্শ করা যায় না।
৪৭. পবিত্রতা --- অঙ্গ।
৪৮. অজু, গোসলের জন্য পানি---রাখা প্রয়োজন।
৪৯. পাক-পবিত্র থাকলে শরীর --- থাকে।
৫০. সালাত আদায়ের জন্য --- পবিত্র হওয়া একান্ত আবশ্যক।

উত্তর: ১৮. জগৎকে, ১৯. কবর, ২০. চিরস্থায়ী, ২১. শোকর, ২২. কার্বন ডাই-অক্সাইড, ২৩. অক্সিজেন, ২৪. জীবন, ২৫. বাতাসে, ২৬. আল্লাহর দান, ২৭. বাঁচতে, ২৮. অফুরন্ত, ২৯. পানি চক্রের, ৩০. সর্বদ্রষ্টা, ৩১. শোনেন, ৩২. ঘৃণা, ৩৩. সর্বশক্তিমান, ৩৪. হজরত মুহাম্মদ (সা.) ৩৫. মুসলিম, ৩৬. মানুষ, ৩৭. ভরসা, ৩৮. শোনেন, ৩৯. জাহান্নাম, ৪০. মাবুদ, ৪১. বান্দা,  ৪২. ইবাদত, ৪৩. খুশি, ৪৪. পাক-পবিত্র, ৪৫. অপবিত্র, ৪৬. অপবিত্র, ৪৭. ঈমানের, ৪৮. পবিত্র, ৪৯. সুস্থ, ৫০. স্থান।

মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ, মাস্টার ট্রেইনার ও সিনিয়র শিক্ষক
শের-ই-বাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মধুবাগ, রমনা, ঢাকা/আবরার জাহিন

Unit-8, Lesson-4-এর প্রশ্নোত্তর-এইচএসসি ইংরেজি ১ম পত্র

প্রকাশ: ২৯ মে ২০২৪, ০৬:১৬ পিএম
Unit-8, Lesson-4-এর প্রশ্নোত্তর-এইচএসসি ইংরেজি ১ম পত্র

Seen Passage 

Read the given text and answer the questions.
Andy: Hi, Tamal. Can you help me with something?
Tamal: Sure, Andy.
Andy: What are the main tourist spots in Bangladesh? I know about Cox’s Bazar. I visited there last month.
Tamal: Oh. Cox’s Bazar is the most popular tourist spot.
Andy: Ans it’s beautiful! But I’d like to see some new places this time. 
Tamal: Right! There are many places to see in our country. You can go to Sreemangal. You can enjoy the beauty of the tea gardens there. From there you can go to Madhabkunda. There are some wonderful waterfalls there. You can also go to Saint Martin’s Island. It’s a special place.
Andy: What is special about the Saint Martin’s Island?
Tamal: It’s an island in the Bay of Bengal and it’s the only coral island in Bangladesh. You can see coral in different shapes and colours. And the water in the Bay of Bengal is very clean and blue!
Andy: Oh, that sounds wonderful!
Tamal: Yes! It is! you can also see the turtles on the island. The turtles make their nests on the beach and then they lay their eggs in them. You can see many fish, too.
Andy: Wow! Really? Can I go sailing?
Tamal: well, you can take a day cruise. You can go on wooden boats or sea truck. The cruises are exciting and safe. They are a great way to see the Bay.
Andy: Thanks for the information, Tamal.
1. Match the wards in column A with their similar meaning in column B.
Answer:  (a+iv) Popular- appealing to general public.
(b+ii) Main- most important of its kind.
(c+iii) Beautiful- pleasing to senses.
(d+v) Beach- an area of sand.
(e+i) Waterfall- a place where a stream falls from a high place.

আস-সাদিক, সিনিয়র শিক্ষক, বিএএফ শাহীন কলেজ কুর্মিটোলা, ঢাকা/ আবরার জাহিন

৫টি সারমর্ম ও সারাংশ লিখন- এইচএসসি বাংলা ২য় পত্র

প্রকাশ: ২৯ মে ২০২৪, ০৬:১২ পিএম
৫টি সারমর্ম ও সারাংশ লিখন- এইচএসসি বাংলা ২য় পত্র
ছবি: সংগৃহীত

সারমর্ম ও সারাংশ

প্রশ্ন: সারমর্ম লেখ-১
দৈন্য যদি আসে আসুক, লজ্জা কিবা তাহে,
মাথা উঁচু রাখিস
সুখের সাথী মুখের পানে যদি নাহি চাহে
ধৈর্য ধরে থাকিস।
রুদ্ররূপ তীব্র দুঃখ যদি আসে নেমে
বুক ফুলিয়ে দাঁড়াস,
আকাশ যদি বজ্র নিয়ে মাথায় পড়ে ভেঙে
ঊর্ধ্বে দুহাত বাড়াস।

উত্তর: সারমর্ম: মানব জীবন পুষ্পশয্যা নয়। দুঃখ-দৈন্য যা-ই আসুক, কোনো কিছুতেই ভেঙে পড়লে চলবে না। বরং সাহসের সঙ্গে হাসি মুখে এসব মোকাবিলা করতে হবে। জীবনে সব বাধা দূর করার জন্য প্রয়োজনে সংগ্রাম করতে হবে। এর মধ্যেই রয়েছে প্রকৃত পৌরুষ ও বীর্যবত্তা।

প্রশ্ন: সারমর্ম লেখ-২            
দণ্ডিতের সঙ্গে
দণ্ডদাতা কাঁদে যবে সমান আঘাতে
সর্বশ্রেষ্ঠ সে বিচার। যার তরে প্রাণ    
কোনো ব্যথা নাহি পায় কোনো, তারে দণ্ডদান
প্রবলের অত্যাচার। যে দণ্ড বেদনা
পুত্রেরে পার না দিতে, সে কারেও দিও না।
যে তোমার পুত্র নহে, তারও পিতা আছে
মহা অপরাধী হবে তুমি তার কাছে। 

উত্তর: সারমর্ম: মানুষই অপরাধ করে। আর তার ভুল হওয়াটা স্বাভাবিক ব্যাপার। তাই বিচারক কর্তৃক কোনো অপরাধীকে দণ্ড দেওয়ার আগে নিজেকে দণ্ডিত ব্যক্তির আপনজন ভাবতে হবে। সেই সঙ্গে হতে হবে আন্তরিক সহমর্মী। তাহলেই তা হবে সর্বশ্রেষ্ঠ বিচার।

প্রশ্ন: সারাংশ লেখ-১
প্রকৃত জ্ঞানের স্পৃহা না থাকলে শিক্ষা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়। তখন পরীক্ষা পাসটাই বড় হয়। এতে পরীক্ষায় পাস করা লোকের অভাব না থাকলেও জ্ঞানীর অভাব দেখা দেয়। পরীক্ষা পাসের মোহ যদি ছাত্রছাত্রীদের উৎকণ্ঠিত রাখে, তবে জ্ঞান নির্বাসনে চলে যায়। পৃথিবীতে অক্ষয় আসন লাভের জন্য তরুণ সমাজকে জ্ঞানের প্রতি উৎসাহী করে তুলতে হবে। পরীক্ষা পাসের মোহ থেকে মুক্ত না হলে তরুণ সমাজের সামনে কখনোই জ্ঞানের দিগন্ত উন্মোচিত হবে না।
উত্তর: সারাংশ: শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য জ্ঞানার্জন। উদ্দেশ্যবিহীন শিক্ষা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়। জ্ঞানের পিপাসা ছাড়া প্রকৃত জ্ঞানী তৈরি হয় না। পরীক্ষার শৃঙ্খল প্রকৃত জ্ঞান অর্জনের পথে বাধা সৃষ্টি করে। পরীক্ষার মোহ থেকে মুক্ত করে তরুণদের জ্ঞানচচর্চায় উৎসাহী করতে হবে। 

প্রশ্ন: সারাংশ লেখ-২
অপরের জন্য তুমি তোমার প্রাণ দাও, আমি বলতে চাই নে। অপরের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দুঃখ তুমি দূর করো। অপরকে একটুখানি সুখ দাও। অপরের সঙ্গে একটুখানি মিষ্টি কথা বলো। পথের অসহায় মানুষটির দিকে একটা করুণ কটাক্ষ নিক্ষেপ করো। তাহলেই অনেক হবে। চরিত্রবান মনুষ্যত্ব সম্পন্ন মানুষ নিজের চেয়ে পরের অভাবে বেশি অধীর হন, পরের দুঃখকে ঢেকে রাখতে গৌরব বোধ করেন।

উত্তর: সারাংশ: পরের জন্য প্রাণ না দিয়েও ছোট ছোট উপকার করে মানুষকে সুখী করা যায়। সুন্দর ব্যবহার ও সহানুভূতির মাধ্যমেই অনেক উপকার করা যায়। ভালো মানুষ অন্যের দুঃখে-বেদনা বোধ করেন। তাই তারা পরের দুঃখ দূর করতে চায়।

প্রশ্ন: সারাংশ লেখ-৩
আজকের দুনিয়াটা আশ্চর্যভাবে অর্থের বা বিত্তের ওপর নির্ভরশীল। লাভ ও লোভের দুর্নিবার গতি কেবল আগে যাওয়ার নেশায় লক্ষ্যহীন প্রচণ্ড বেগে শুধুই আত্মবিকাশের পথে এগিয়ে চলেছে। মানুষ যদি এই মূঢ়তাকে জয় করকে না পারে ,তবে মনুষ্যত্ব কথাটাই হয়তো লোপ পেয়ে যাবে। মানুষের জীবন আজ এমন একপর্যায়ে এসে পৌঁছেছে, যেখান থেকে আর হয়তো নামার উপায় নেই, এবার উঠার সিঁড়িটা না খুঁজলেই নয়।
উত্তর: সারাংশ: বর্তমান বিশ্ব অর্থ-বিত্তের ওপর বড় বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। এখন মানুষের জীবনের মূল্য নির্ধারিত হয় অর্থের মাপকাঠিতে। ফলে এক দুর্নিবার লোভ মানুষকে অর্থের পেছনে তাড়া করে ফিরছে। এতে মনুষ্যত্ব বিপর্যস্ত হচ্ছে। আমাদের এখন দরকার মনুষ্যত্ব অর্জনের পথের সন্ধান লাভ।

মঈনউদ্দিন আহমেদ, সহকারী অধ্যাপক, বাংলা বিভাগ,
সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ, গোপালগঞ্জ/ আবরার জাহিন

পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ অধ্যায়ের বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর- এইচএসসি ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা ২য় পত্র

প্রকাশ: ২৯ মে ২০২৪, ০৬:০১ পিএম
পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ অধ্যায়ের বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর- এইচএসসি ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা ২য় পত্র

বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর

১। ব্যবস্থাপনার অন্যান্য কাজের ভিত্তি কোনটি?
ক. সংগঠন         খ. পরিকল্পনা 
গ. নেতৃত্ব         ঘ. নিয়ন্ত্রণ 
২। ব্যবস্থাপনা চক্রে নিয়ন্ত্রণ-পরবর্তী কাজ কোনটি? 
ক. সমন্বয়         খ. প্রেষণা 
গ. পরিকল্পনা     ঘ. কর্মীসংস্থান
৩। ব্যবস্থাপনার কোন পর্যায়ে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়?
ক. নিম্ন পর্যায়ে     খ. মধ্য পর্যায়ে 
গ. উচ্চ পর্যায়ে     ঘ. সব পর্যায়ে 
৪। স্বল্পমেয়াদি পরিকল্পনা সর্বোচ্চ কত বছরের জন্য প্রণীত হয়?
ক. ১ বছর        খ. ২ বছর    
গ. ৩ বছর        ঘ. ৪ বছর
৫। পরিকল্পনার অভিপ্রেত ফলকে কী বলে?
ক. কর্মসূচি         খ. কৌশল 
গ. প্রকল্প         ঘ. লক্ষ্য
৬। নিচের কোনটি স্থায়ী পরিকল্পনা বহির্ভূত?
ক. নীতি         খ. পদ্ধতি 
গ. প্রক্রিয়া         ঘ. কর্মসূচি
৭। নিচের কোনটি স্থায়ী পরিকল্পনা?
ক. বাজেট         খ. নীতি 
গ. প্রকল্প         ঘ. কর্মসূচি
৮। নিচের কোনটি এক ধরনের প্রতিযোগিতামূলক পরিকল্পনা?
ক. কৌশল         খ. প্রক্রিয়া 
গ.কর্মসূচি        ঘ. নীতি 
৯। কোন পরিকল্পনা ব্যবস্থাপকদের কর্মভার লাঘব করে?
ক. একার্থক     খ. স্থায়ী 
গ. মধ্যমেয়াদি     ঘ. দীর্ঘমেয়াদি 
১০। নিচের কোনটি একার্থক পরিকল্পনা?
ক. পদ্ধতি         খ. লক্ষ্য 
গ. প্রকল্প         ঘ. প্রক্রিয়া 

১১। সিদ্ধান্ত গ্রহণ ব্যবস্থাপনার কোন কাজের ক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়ে?
ক. পরিকল্পনা প্রণয়নে     
খ. কর্মীসংস্থানে 
গ. নির্দেশনা প্রদানে    
ঘ. ব্যবস্থাপনার সব কাজে 
১২। সিদ্ধান্ত গ্রহণ বলতে নিচের কোনটি বোঝায়?
ক. পরিকল্পনা তৈরি         
খ. পরিকল্পনার পটভূমি নির্ণয় 
গ. বিকল্পগুলো থেকে উত্তম বিকল্প বাছাই 
ঘ. উপযুক্ত বিকল্পগুলো চিহ্নিতকরণ 
১৩। সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার প্রথম পদক্ষেপ কোনটি? 
ক. তথ্য সংগ্রহ     খ. সমস্যা চিহ্নিতকরণ 
গ. বিকল্প নির্ধারণ     ঘ. উদ্দেশ্য নির্ধারণ 
১৪। সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার সর্বশেষ পদক্ষেপ কোনটি?
ক. তথ্য সংগ্রহ     
খ. সমস্যা চিহ্নিতকরণ 
গ. বিকল্প নির্ধারণ     
ঘ. উদ্দেশ্য নির্ধারণ 
১৫। পরিকল্পনা হলো-
i. ব্যবস্থাপনার প্রথম কাজ 
ii. ব্যবস্থাপনার অন্যান্য কাজের ভিত্তি 
iii. ব্যবস্থাপনার মূলনীতি
নিচের কোনটি সঠিক?
ক. i ও ii         খ. i ও iii 
গ. ii ও iii         ঘ. i, ii ও iii 
১৬। কোন ধরনের মনোভাব দূর করতে পারলে সিদ্ধান্ত যথাযথ হবে? 
ক. খোলামেলা     খ. নিরপেক্ষ    
গ. পক্ষপাতমূলক     ঘ. সচেতন 
১৭। বৃহদায়তন প্রতিষ্ঠান বর্তমানকালে তাদের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণে নিচের কোনটি করে থাকে?
ক. SWOT বিশ্লেষণ 
খ. গ্যান্ট চার্ট তৈরি 
গ. PERT 
ঘ. বিশেষ প্রতিবেদন বিশ্লেষণ
১৮। কোন বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী পরিকল্পনা পরিবর্তিত পরিবেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান করে?
ক. যথার্থতা         খ. সারল্য 
গ. নমনীয়তা     ঘ. বাস্তবমুখিতা 
১৯। পরিকল্পনা কীসের মাধ্যমে ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তা দূর করে?
ক. অর্থ         খ. দিক-নির্দেশনা 
গ. শ্রম         ঘ. পূর্বানুমান 
২০। নিচের কোনটি পরিকল্পনার বৈশিষ্ট্য? 
ক. নিয়ন্ত্রণের পূর্ববর্তী কাজ     
খ. বিকল্পগুলোর প্রতি আলোকপাত 
গ. কার্যকর নির্দেশনা         
ঘ. ভবিষ্যতের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত

২১। আমরা কোথায় আছি এবং কোথায় যেতে চাই- নিচের কোনটি এ দুইয়ের মাঝে সেতুবন্ধক? 
ক. পরিকল্পনা     খ. সংগঠন 
গ. নেতৃত্ব         ঘ. নির্দেশনা 
২২। কারখানা বিল্ডিং তৈরি নিচের কোন ধরনের পরিকল্পনা? 
ক. স্ট্র্যাটেজিক     খ. স্বল্পমেয়াদি 
গ. একার্থক         ঘ. স্থায়ী
২৩। কলেজের সাপ্তাহিক ক্লাস রুটিন কোন ধরনের পরিকল্পনা?
ক. স্থায়ী         খ.একার্থক 
গ. লক্ষ্য        ঘ. নীতি 
২৪। প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের পদোন্নতি প্রদানের নীতি নিচের কোন ধরনের পরিকল্পনা?
ক. কার্যগত         খ. কর্মকেন্দ্রিক 
গ. স্ট্র্যাটেজিক     ঘ. স্থায়ী
২৫। কোন ধরনের পরিকল্পনায় নমনীয়তার অভাব লক্ষ করা যায়?
ক. একার্থক     খ. স্থায়ী 
গ. দীর্ঘমেয়াদি     ঘ. বিভাগীয়
২৬। মৌলিক পরিকল্পনা হিসেবে গৃহীত হয় কোনটি?
ক. সর্বোত্তম বিকল্প গ্রহণ 
খ. বিকল্প স্থিরকরণ 
গ. লক্ষ্য নির্ধারণ     
ঘ. সহায়ক পরিকল্পনা প্রণয়ন 
২৭। স্থায়ী পরিকল্পনায় কর্মীদের দক্ষতা বৃদ্ধি পায় কেন? 
ক. কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া সহজ হয় 
খ. কর্মীদের কাজের উৎসাহ বৃদ্ধি পায়
গ. কর্মীদের কাজ শেখার আগ্রহ বাড়ে 
ঘ. বারবার একই কাজ করায় দক্ষতা বাড়ে
২৮। নিচের কোনটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার বহির্ভূত?
ক. সমস্যা চিহ্নিতকরণ         
খ. ভবিষ্যৎ সুযোগ-সুবিধা বিবেচনা 
গ. বিকল্পগুলো উদ্ভাবন ও মূল্যায়ন 
ঘ. সংশোধিত কার্যপদ্ধতি নিরূপণ 
২৯। সিদ্ধান্ত গ্রহণে সহায়ক উপাদান বহির্ভূত কোনটি?
ক. বিচার ক্ষমতা ও প্রজ্ঞা 
খ. সংগঠন কাঠামো 
গ. অভিজ্ঞতা ও নৈপুণ্য 
ঘ. তথ্য ও উপাত্ত
৩০। নিচের কোনটি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে বাধা সৃষ্টি করে?
ক. অধস্তনদের সহযোগিতার অভাব 
খ. সমস্যা অনুধাবনে ব্যর্থতা 
গ. তথ্যের সীমাবদ্ধতা         
ঘ. বিকল্প মূল্যায়নে ভুল৩১। পরিকল্পনাকে বলা হয়-
i. বুদ্ধিদীপ্ত 
ii. শারীরিক কাজ 
iii. মানসিক কাজ 
নিচের কোনটি সঠিক?
ক. i ও ii         খ. i ও iii 
গ. ii ও iii         ঘ. i, ii ও iii 

উত্তর: ১. খ, ২. গ, ৩. গ, ৪. ক, ৫. ঘ, ৬. ঘ, ৭. খ, ৮. ক, ৯. ঘ, ১০. গ, ১১. ঘ, ১২. গ, ১৩. খ,
১৪. খ, ১৫. ক, ১৬. গ, ১৭. গ, ১৮. ঘ, ১৯. ঘ, ২০. ঘ, ২১. গ, ২২. গ, ২৩. ক, ২৪. ঘ, ২৫. খ, ২৬. ক, ২৭. ঘ, ২৮. ঘ, ২৯. খ, ৩০. ক, ৩১, খ।

মনিরুজ্জামান, সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান,
ব্যবস্থাপনা বিভাগ, মাইলস্টোন কলেজ, ঢাকা/ আবরার জাহিন

ভুয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জিডি

প্রকাশ: ২৮ মে ২০২৪, ০৮:০২ পিএম
ভুয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জিডি
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

‘পরীক্ষার কারণে ঘূর্ণিঝড় স্থগিত’ শিরোনামে ভাইরাল ভুয়া বিজ্ঞপ্তি নিয়ে সাধারণ ডায়েরি করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়সংক্রান্ত সব তথ্য জানার জন্য ওয়েবসাইট অনুসরণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৮ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক আতাউর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে প্রতারণামূলক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি প্রচার বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে গাজীপুরের গাছা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং- ১৪০৮) করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় রিমাল দেশের উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানার বিষয়ে আবহাওয়া সংবাদ সম্পর্কে অবহিত হয়ে পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় গত ২৬ মে রবিবারের স্নাতক চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। এই বিজ্ঞপ্তি সব গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। কিন্তু সাইবার অপরাধীদের একটি সংঘবদ্ধ চক্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ও সুনাম ক্ষুণ্ণ করার হীন প্রয়াসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই সংবাদকে বিকৃত করে প্রচার চালিয়েছে। যার সঙ্গে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা নেই। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়-সম্পর্কিত সব তথ্যের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (www.nu.ac.bd) অনুসরণ করার জন্য আহ্বান করা হয়েছে।