ঢাকা ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪
Khaborer Kagoj

জুম অ্যাপে যুক্ত হবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা!

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২০২৩, ১২:৩৯ পিএম
জুম অ্যাপে যুক্ত হবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা!
ছবি : সংগৃহীত

করোনাকালীন সময়ে ঘরবন্দি অবস্থায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠে আসে টেলিকনফারেন্সিং অ্যাপ জুম। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ঘরবন্দি অবস্থায় থেকে বিশ্ব স্বাভাবিক হতে শুরু করলে গ্রাহক সংখ্যা দিন দিন কমতে থাকে এই অ্যাপটিতে। 

বর্তমান প্রযুক্তি দুনিয়ায় নিজেদের অবস্থান টিকে রাখতে অ্যাপ ও ওয়েবে আমূল পরিবর্তন আনছে প্রতিষ্ঠানটি। টেলিকনফারেন্সিং সেবায় জুমে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সুবিধা যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তা ফ্রেডরিখ মারিস। 

করোনাকালীন সময়ে হোম অফিস, অনলাইন ক্লাস, মিটিং, বন্ধুদের আড্ডায় জনপ্রিয়তা পায় ক্লাউড মিটিং ভিত্তিক এই প্ল্যাটফর্মটি। অন্যান্য অ্যাপের তুলনায় জুমের ব্যবহার কয়েক গুণ বৃদ্ধি পায়, এর সঙ্গে কোম্পনিটির মুনাফা ফুলেফেঁপে উঠেছিল। কিন্তু অবস্থা স্বাভাবিক হওয়ার অ্যাপটি ব্যবহারের চাহিদা কমে গিয়েছে। 

কমে গিয়েছে আয়ও। টেলিকনফারেন্সিং মাধ্যমে মিটিং এবং অনলাইন ক্লাসে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে প্ল্যাটফর্মটিকে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কোম্পানি সংশ্লিষ্টরা।

প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তা ফ্রেডরিখ মারিস বলেন, সুস্থ পৃথিবীর সঙ্গে খাপ খাওয়াতে যা যা পরিবর্তন আনা দরকার তাই আনবে জুম। দুই বছর আগেও জুম শুধু মিটিং অ্যাপ থাকলেও বর্তমানে প্ল্যাটফর্মটিতে আরও কিছু সুবিধা যোগ করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। মারিস আরও বলেন, বর্তমানে বিশ্বে অনেক মানুষ হোম অফিস এবং রিমোট জব করছেন। 

তাদের জন্য টেলিকনফারেন্সিং সহজ করতে জুমে যুক্ত হচ্ছে এআই সুবিধা। এআই সুবিধা থাকার ফলে টেলিকনফারেন্সিংসহ ই-মেইল ড্রাফট এবং মিটিংয়ের সঙ্গে যুক্ত আরও কিছু সুবিধা যোগ করা হবে। ফ্রি পরিষেবার আওতায় ১৫০ জন অংশগ্রহণকারী একযোগে ৪০ মিনিট সময় কনফারেন্সিং করতে পারে। 

আর প্যাকেজ কিনে জুম অ্যাপে ৩০০, ৫০০, ৭০০ বা তারও বেশি সংখ্যক অংশগ্রহণকারী ভার্চুয়াল কনফারেন্স করতে পারে।বর্তমান সময়ে এআই নিয়ে সবচেয়ে বেশি কাজ করছে গুগল এবং মাইক্রোসফটের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো।

 মরিস বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে টেক্কা দিয়েই বাজারে টিকে থাকবে জুম। উইন্ডোজ, আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের জন্য সমান কার্যকর জুম অ্যাপ। এর সাহায্যে মিটিং করা যায় কোনো বাড়তি ঝামেলা ছাড়াই।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

এ .জে / কলি

ব্যবহৃত ফোন বিক্রির আগে যা করতে হবে

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২০২৪, ১১:৫৮ এএম
ব্যবহৃত ফোন বিক্রির আগে যা করতে হবে

প্রযুক্তির অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে ব্যবহৃত গ্যাজেটগুলোও নিয়মিত আপডেট করতে হয়। স্মার্টফোনেও প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ফিচার যুক্ত হচ্ছে। আর এর জন্য অনেকেই ব্যবহৃত স্মার্টফোন বিক্রি করে নতুন ফোন কেনেন। স্মার্টফোন বিক্রি করলে যেহেতু মালিকানা পরিবর্তন হয়, তাই এতে থাকা তথ্যও নিরাপদে সংরক্ষণ করতে হবে। অন্যথায় ডিভাইসটিতে থাকা তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হতে পারে। স্মার্টফোন বিক্রির আগে যা অবশ্যই করবেন-

ব্যবহৃত স্মার্টফোনে সাধারণত ব্যাংক ও আর্থিক সেবার অ্যাপ ও ব্যক্তিগত তথ্য থাকে। যদিও এসব অ্যাপে ওটিপি ছাড়া আর্থিক লেনদেন করা যায় না। তবে অর্থসংক্রান্ত ও ব্যক্তিগত তথ্য কোনোভাবে বেহাত হলে তা বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই ফোন থেকে এ ধরনের সকল অ্যাপ আনইনস্টল ও তথ্য ডিলিট করুন। স্মার্টফোনে কল রেকর্ডস ও গুরুত্বপূর্ণ বার্তা অন্য কোনো ডিভাইস বা ক্লাউড সেবায় সংরক্ষণ করুন। স্মার্টফোনে সংরক্ষিত সব কল রেকর্ডস ও বার্তা মুছে ফেলুন।

ফোনের স্টোরেজে ছবি, ভিডিওসহ অসংখ্য মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট বা আধেয় থাকে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই প্রয়োজনের কারণে মুছে ফেলা যায় না এসব। তাই এসব মাল্টিমিডিয়া আধেয় অন্য কোনো স্থানে সংরক্ষণ করে ফোনটি থেকে ডিলিট করুন।

বাড়তি তথ্য রাখার জন্য অনেকেই স্মার্টফোনে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করেন। স্মার্টফোন পরিবর্তনের আগে অবশ্যই এই কার্ড খুলে নিতে হবে। হোয়াটসঅ্যাপেও অনেক তথ্য থাকে। তাই গুগল ড্রাইভে হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাকআপ রাখতে হবে। পরে নতুন ফোনে এই ব্যাকআপ ব্যবহার করে পুরোনো তথ্যগুলো ফিরে পাবেন। স্মার্টফোনে থাকা সিম কার্ড খুলে ফেলুন। এ ছাড়া যেসব ফোনে ই-সিম  ব্যবহার করা যায়, সেসব ফোন থেকে ই-সিমের সব তথ্য মুছতে হবে।

ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট দেওয়ার আগে অবশ্যই ফোনে থাকা এনক্রিপশন মুছে ফেলতে হবে। কারণ এনক্রিপশন চালু থাকলে ফ্যাক্টরি রিসেটের পরেও ফোনের তথ্য অন্য কারও হাতে চলে যেতে পারে। এ জন্য এনক্রিপশন ডিলিট করে ফ্যাক্টরি রিসেট করলে ফোনে থাকা সব তথ্য মুছে যায়। এতে করে ফোনটিতে আর কোনো তথ্য থাকবে না। তাই ব্যবহৃত ফোন বিক্রির সময় সব তথ্য স্থায়ীভাবে মুছে ফেলতেও ফ্যাক্টরি রিসেট করুন।

কলি

সারা দেশে ২ মার্চ ইন্টারনেট সেবা ব্যাহত হবে

প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৫:২৯ পিএম
সারা দেশে ২ মার্চ ইন্টারনেট সেবা ব্যাহত হবে

কক্সবাজারে স্থাপিত দেশের প্রথম সাবমেরিন ক্যাবল সিস্টেম এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৪ রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করা হবে ২ মার্চ। বাংলাদেশকে কক্সবাজার থেকে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে সংযুক্তকারী সিস্টেমটির সিঙ্গাপুর অংশের সার্কিট আংশিকভাবে বন্ধ থাকবে সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। এই কাজের জন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় ইন্টারনেট সেবা সাময়িক ব্যাহত হবে। এদিন ইন্টারনেটের গতি কম পাওয়াসহ সংযোগ বিচ্ছিন্নের মতো ঘটনার সম্মুখীন হতে পারেন ব্যবহারকারীরা।

গত বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) এ তথ্য জানিয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশকে কক্সবাজার থেকে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে সংযুক্তকারী সাবমেরিন ক্যাবল সিস্টেম (এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৪) সিঙ্গাপুর প্রান্তে কনসোর্টিয়াম কর্তৃক গৃহীত রক্ষণাবেক্ষণ কাজ করার জন্য আগামী ২ মার্চ সকাল ৭টা হতে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এই ক্যাবলের মাধ্যমে সংযুক্ত সার্কিটগুলো আংশিক বন্ধ থাকবে।

ফলে সারা দেশে ইন্টারনেট পরিষেবা আংশিক ব্যাহত হবে। তবে কুয়াকাটায় স্থাপিত দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৫ চালু থাকবে। এ সময় গ্রাহকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছে বিএসসিসিএল।

 কলি

ছবি তৈরির এআই টুল

প্রকাশ: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:২৩ এএম
ছবি তৈরির এআই টুল

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই টুলসের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। তথ্য প্রক্রিয়াজাত থেকে শুরু করে ছবি ও ওয়েবসাইট তৈরি, বিভিন্ন গবেষণা, এমনকি কোডিং পর্যন্ত এআই দিয়ে করা যায়। এআইয়ের ব্যবহার করে ছবি তৈরি করা ছাড়াও এডিটও করা যায়। যা প্রযুক্তিপ্রেমীদের মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহারের এই জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের নিজস্ব ছবি তৈরি ও সম্পাদনার এআই টুলস বাজারে এনেছে। ছবি তৈরির ছয়টি জনপ্রিয় এআই বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের টুলস-

মিডজার্নি: এটি একটি জনপ্রিয় এআই অ্যাপ্লিকেশন, যা টেক্সট প্রম্পট থেকে ছবি তৈরি করতে পারে। এটি ব্যবহার করে খুব সহজে বিভিন্ন ধরনের ছবি তৈরি করা যায়। টেক্সট বর্ণনার ওপর নির্ভর করে বাস্তবসম্মত ও শৈল্পিক ছবি তৈরি করতে পারে এই অ্যাপ্লিকেশন। এটি দিয়ে অ্যানিমেশনও তৈরি করা যায়।

ডাল-ই-থ্রি: ওপেনএআইয়ের ছবি তৈরি জেনারেটিভ এআই মডেল ডাল-ই-থ্রি। এটি টেক্সট প্রম্পট থেকে নানা ধরনের ছবি তৈরি করতে পারে। এটিকে আরও উন্নত করার জন্য কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। এটি ইতোমধ্যে চমৎকার ফলাফল দেখিয়েছে। তবে এআই সব সময় টেক্সট প্রম্পটের বর্ণনা সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করতে পারে না। বিনামূল্যে পরীক্ষামূলক সংস্করণ ব্যবহার করতে পারবেন।

নাইটক্যাফে: এআই আর্ট জেনারেটরের জগতে এটি বেশ জনপ্রিয়। অন্যান্য জেনারেটরের তুলনায় নাইটক্যাফের বেশি অ্যালগরিদম এবং অপশন থাকায় এটি ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে। তবে নতুন ব্যবহারকারীদের জন্যও নাইটক্যাফে উপযুক্ত। ক্রেডিট সিস্টেমের ওপর ভিত্তি করে এটি ব্যবহার করা যায়। তবে বিনামূল্যে ব্যবহারের সুবিধাও রয়েছে। নাইটক্যাফে কমিউনিটিতে অংশগ্রহণ করেও ক্রেডিট আয় করা যায়।

টুনিফাই: ছবিকে কার্টুনে রূপান্তরের এআই ভিত্তিক অ্যাপ্লিকেশন হলো টুনিফাই। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে যেকোনো ছবিকে কার্টুনে রূপান্তর করা যায়। এটির বিভিন্ন ফিচার ব্যবহার করে দুর্দান্ত কার্টুন বানানো যায়। কোনো ব্যক্তির ছবি আপলোড করলে তা বিশ্লেষণ করে একটি কার্টুন সংস্করণ তৈরি করে এটি। টুনিফাই ক্লাসিক মডেলটি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন।

ক্যানভা: এটি একটি গ্রাফিক্স ডিজাইন অ্যাপ্লিকেশন, যা দিয়ে বিভিন্ন ধরনের ছবি ও গ্রাফিক্স তৈরি করা যায়। এটিতে এআই ভিত্তিক ফটো এডিটর রয়েছে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ছবি সম্পাদনা করে।

ডিপসোয়াপ: এই এআই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে ফেস সোয়াপ করা যায়। অর্থাৎ একজনের মুখের ছবিতে অন্য কারও মুখের ছবি বসানো যায়। এটি ব্যবহার করা খুব সহজ। বিভিন্ন ধরনের টেমপ্লেট ও সেটিংসের মাধ্যমে কাজটি করতে পারবেন।

জাহ্নবী

লেনোভোর স্বচ্ছ মাইক্রো এলইডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ

প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:১৭ এএম
লেনোভোর স্বচ্ছ মাইক্রো এলইডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ

চীনা প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান লেনোভো স্বচ্ছ মাইক্রো এলইডি ডিসপ্লের ল্যাপটপ উন্মোচন করেছে। এই স্বচ্ছ মাইক্রো এলইডি ডিসপ্লের ল্যাপটপের ধারণাকে লেনোভো ‘প্রোজেক্ট ক্রিস্টাল’ হিসেবে তুলে ধরেছে। তবে এটি এখনই বাজারে আসছে না। শুধু ধারণাগত ডিভাইস হিসেবে সবার সামনে এনেছে। যা বিশ্বের প্রথম স্বচ্ছ ল্যাপটপ বলে মনে করা হচ্ছে, এটি অনেকটাই কল্পবিজ্ঞানের বাস্তব রূপ।

বর্তমানে প্রোজেক্ট ক্রিস্টাল খুচরা পণ্য হিসেবে বাজারে আনার কোনো পরিকল্পনা নেই প্রতিষ্ঠানটির। লেনোভোর এই সর্বাধুনিক ধারণার নমুনা ডিভাইস নিয়ে থিংকপ্যাড বিভাগ কাজ করবে। তারা স্বচ্ছ মাইক্রো এলইডি প্যানেল ও এআই সমন্বয় করে এটি ব্যবহারের সম্ভাব্য জায়গা অনুসন্ধান করবে। এ ধরনের ডিসপ্লে তথ্য শেয়ার করার জন্য সবচেয়ে উপযোগী হবে। ল্যাপটপটি ডাক্তারের চেম্বার বা হোটেলের ফ্রন্ট ডেস্কে তথ্য শেয়ার করার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। সরাসরি ল্যাপটপটি উল্টো না ধরে, সফটওয়্যারের মাধ্যমে ডিসপ্লেটি উল্টা দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া যাবে। যেন অন্য পাশের যে কেউ এটি দেখতে পায়।

লেনোভো বলেছে, সিস্টেমের পেছনে থাকা ক্যামেরা একত্রে কাজ করলে এটি সম্ভবত এআর অ্যাপ্লিকেশনেও কাজ করবে।

উদাহরণ হিসেবে গুগল লেন্সের মতো কোনো বস্তু শনাক্ত করতে ব্যবহার করা যেতে পারে এর ক্যামেরা। লেনোভো এককভাবে প্রোজেক্ট ক্রিস্টালের জন্য কাজ করেছে। বর্তমানে মাইক্রো এলইডি ডিসপ্লে প্যানেলগুলো অত্যন্ত ব্যয়বহুল হয়। সাধারণত এ ধরনের প্যানেল স্যামসাংয়ের ‘দ্য ওয়াল’ বা অ্যাপলের ‘ভিশন প্রোর’ মতো অত্যাধুনিক গ্যাজেটের জন্য সংরক্ষিত রয়েছে। চলতি বছরে যুক্তরাষ্ট্রের লাসভেগাসে অনুষ্ঠিত প্রযুক্তিপণ্যের মেলা কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক শো ২০২৪-তে এই স্বচ্ছ ডিসপ্লে প্যানেলের সংস্করণগুলো শুধু ‘কনসেপ্ট’ বা ধারণামূলক পর্যায়ে দেখা গেছে।

বাস্তবে ডিসপ্লের স্বচ্ছতা কিছুটা বিভ্রান্তিকর মনে হতে পারে। ল্যাপটপটি বন্ধ বা ডিসপ্লে বন্ধ থাকা অবস্থায় প্রোজেক্ট ক্রিস্টালের স্ক্রিন প্রায় সামান্য বাদামি রঙের সাধারণ কাচের টুকরার মতো দেখায়।

তবে ডিভাইসটি চালু করার মুহূর্তে পুরো জিনিসটি যুদ্ধজাহাজের মতো জ্বলজ্বল করে ওঠে। এই ডিসপ্লের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা এক হাজার নিট পর্যন্ত। তবে লেনোভোর দাবি, এর সর্বোচ্চ উজ্জ্বলতা তিন হাজার নিট পর্যন্ত হতে পারে। যা স্যামসাংয়ের ‘গ্যালাক্সি এস২৪’ সিরিজের নতুন ফোনের চেয়েও উজ্জ্বল হবে। 

একাধিক স্তর দিয়ে তৈরি হওয়ার পরেও প্যানেলটি অত্যন্ত পাতলা। লেনোভো বলেছে বিশেষ ধরনের কনট্রাস্ট লেয়ার যুক্ত করার কথাও বিবেচনা করছে। এটি হলে কেবল একটি বাটনে চাপ দিয়ে ডিসপ্লেটিকে অস্বচ্ছ ডিসপ্লেতে রূপান্তর করা যাবে।

তুলনামূলকভাবে বড় ১৬ ইঞ্চি ডিসপ্লেটির রেজল্যুশন খুব বেশি, তাই কাছ থেকে ডিসপ্লেটি দেখলে পিক্সেল আলাদা আলাদা দেখা যাবে।

সূত্র: এনগ্যাজেট

কলি

 

হনরের এআই ভিত্তিক স্মার্টফোন ‘ম্যাজিক ৬ প্রো’

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:২১ এএম
হনরের এআই ভিত্তিক স্মার্টফোন
‘ম্যাজিক ৬ প্রো’

চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি হনর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ভিত্তিক নতুন স্মার্টফোন ‘ম্যাজিক ৬ প্রো’ উন্মোচন করেছে। গত রবিবার এই স্মার্টফোন বাজারে আনার ঘোষণা দেয় কোম্পানিটি। ওই দিন পরীক্ষামূলকভাবে চোখের ট্র্যাকিংয়ের এআই ফাংশন প্রদর্শন করেছে। যা ব্যবহার করে শুধু ফোনের স্ক্রিনে তাকিয়ে দূর থেকে গাড়ির দরজা খোলা ও চালানো যাবে।

এই টুলটি ইতোমধ্যে চীনে ব্যবহার করা হচ্ছে। তবে বর্তমানে চীনের বাইরে এই সুবিধাটি মিলছে না। কোম্পানিটি বাণিজ্যিকভাবে দেশের বাইরেও এই টুলটি চালু করার জন্য কাজ করছে।

২০২০ সালের নভেম্বরে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন শেনঝেন ঝিঝিন নিউ ইনফরমেশন টেকনোলজি কোম্পানির কাছে হনর বেচে দিয়েছিল। কোম্পানিটি রবিবার পর্যন্ত শুধু চীনেই নতুন ফোন প্রকাশ করেছে।

গতকাল সোমবার থেকে বার্সেলোনায় শুরু হয়েছে বার্ষিক মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস (এমডব্লিউসি)। প্রযুক্তি ও টেলিযোগাযোগ কোম্পানিগুলো বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত এমডব্লিউসির আগে নতুন পণ্য ও পণ্যের ফিচার প্রকাশ করছে। যেন জেনারেটিভ এআই নিয়ে আলোচনা ব্যবসায়িক সম্ভাবনাকে আরও বাড়িয়ে দেয়।

স্মার্টফোন নির্মাতারা আশা করছেন, এআই ব্যবহারের উত্তেজনা স্মার্টফোনের স্থিতিশীল বাজারকে চাঙ্গা করবে। যদিও অনেক বিশেষজ্ঞ মনে করেন জেনারেটিভ এআইয়ের ব্যবহার আইনি বা নৈতিক উদ্বেগ তৈরি করতে পারে।

কোম্পানিটি চীনা স্মার্টফোন বাজারে অ্যাপল ও অপ্পোর মতো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে। চ্যাটজিপিটির মতো লার্জ ল্যাঙ্গুয়েজ মডেল ‘এলএলএএমএ-২’ এআই প্রযুক্তি তাদের ফোনে যুক্ত করার জন্যও কাজ করছে।

আন্তর্জাতিক ডেটা কর্পোরেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালে চীনের স্মাটফোনের বাজারে অ্যাপলের শেয়ার ছিল ১৭ দশমিক ৩ শতাংশ আর হনরের ছিল ১৭ দশমিক ১ শতাংশ।

হনর রবিবারে নতুন ম্যাজিকবুক প্রো ১৬ ল্যাপটপও উন্মোচন করেছে। এটিতে একটি এআই ফিচার রয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের মেসেজিং অ্যাপের মতো অ্যাপ্লিকেশনগুলোকে ড্র্যাগ করে এক ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে স্থানান্তর করা যায়।

সূত্র: রয়টার্স

কলি